৮ টি ঘরোয়া উপাদানে ব্রণের দাগ দূর করার উপায়

ব্রণের দাগ

আজকাল ব্রণ একটি কমন সমস্যা। তবে জেল্লাদার মুখে একটা ছোট ব্রণ সব সৌন্দর্যতাকে মাটি করে দেয়। নামীদামী কোম্পানির প্রোডাক্ট ব্যবহার করে ব্রণও কমে যায় কিন্তু রয়ে যায় যায় ব্রণের দাগ। যা মুখের সৌন্দর্যে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তবে সাধারণ ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহার করে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এগুলি নিরাময় করা সহজ। অতএব, এখানে ৮ টি ঘরোয়া উপাদানে ব্রণের দাগ দূর করার উপায় রইল যা আপনাদের কাজে আসতে পারে।

Read more: ব্রণ দূর করার উপায়

ব্রণর দাগ কি

ব্রণর দাগ কি (What Is Acne Scars)

আমাদের ত্বকে সেবাসিয়াস গ্রন্থি নামে একপ্রকার পদার্থ থাকে। কোনও ভাবে এই গ্রন্থির মুখ বন্ধ হয়ে গেলে তৈলাক্ত পদার্থ নিঃসরণের বাঁধা দেয় এবং তা ভেতরে ফুলে জমে ওঠে। এটাকেই আসলে ব্রণ বলা হয়ে থাকে। কিন্তু সাধারণত ব্রণ সেরে যাওয়ার পরে মুখে কালো দাগ রেখে যায়।

Read more: ত্বকের বলিরেখা দূর করার উপায়

কি কারণে ব্রণের দাগ হয়

কি কারণে ব্রণের দাগ হয় (What Causes Acne Scars)

ত্বকের কোষে ময়লা, টক্সিন এবং তেল জমা হয়, তখন এটি ছিদ্র আটকে যায়। এই আটকে থাকা ছিদ্রগুলি, ফলস্বরূপ ব্রণ হয়। ব্রণের কারণে তৈলাক্ত ত্বক সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। হরমোনের পরিবর্তনের কারণে, মানসিক চাপ, ত্বক অতিরিক্ত অয়েলি হলে অনেকেই ব্রণর সমস্যায় ভুগে থাকেন। ব্রণ সেরে গেলেও ব্রণের দাগ থেকে যায়।

Read more: ঘরোয়া উপাদানে করে নিন ব্লিচ

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ব্রণের দাগ দূর করার উপায় (Home Remedies For Acne Scars)  

১। নারকেল তেল (Coconut Oil) 

নারকেল তেল

ত্বকের নানা ধরণের সমস্যার সমাধানের জন্য নারকেল তেল অসাধারণ। কারণ এই তেল প্রদাহ-বিরোধী এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্যগুলি রয়েছে।  ভিটামিন ই এবং কে, এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ নারকেল তেল স্কিনের কোষগুলি বৃদ্ধিতে সাহায্যে করে এবং মুখে ব্রণের দাগ দূর করতে সহায়তা করে।

উপকরণ (Ingredients):

  • পরিমাণ মতো নারকেল তেল।

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • রাতে ঘুমানোর আগে পরিমাণ মতো নারকেল তেল নিয়ে ব্রণের দাগের অংশে লাগিয়ে রাখতে হবে।
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিতে হবে।
  • ভালো রেজাল্ট পেতে প্রতিদিন ব্যবহার করতে হবে।

২। হলুদ (Turmeric)

হলুদ

প্রাচীন ঔষধি ভেষজগুলির মধ্যে হলুদ অন্যতম। হলুদে অনেক ধরণের রোগ এবং ত্বকের সমস্যা দূর ক্ষমতা রয়েছে। এছাড়া এর মধ্যে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য যা ত্বকে ব্রণের দাগ দূর করতে সহায়তা করে। ত্বকে হলুদের গুঁড়ো নিয়মিত ব্যবহার করলে ত্বক উজ্জ্বল দেখায়।

উপকরণ (Ingredients):

  • দুই টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • এক টেবিল চামচ লেবুর রস

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • হলুদ গুঁড়ো এবং লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন।
  • এবার এই পেস্টটি মুখে নিন।
  • ৩০ মিনিট রেখে পরিষ্কার করে নিন।

Read more:  ভেষজ চিকিৎসা

৩। অ্যালোভেরা (Aloe Vera)

অ্যালোভেরা

অ্যালোভেরা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। অ্যালোভেরার জেল বিভিন্ন ঔষধি সামগ্রীতে ব্যবহার করা হয়। অ্যালোভেরায় উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যগুলি ত্বকের সমস্যা যেমন ব্রণের দাগ, ইনফেকশন নিরাময়ে সাহায্য করে।

উপকরণ (Ingredients):

  • অ্যালোভেরা জেল

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • অ্যালোভেরা গাছের পাতা থেকে জেল বের করুন।
  • ঘুমানোর আগে এই অ্যালোভেরার জেল আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে নিন।
  • সকালে উঠে ঠান্ডা জলে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

Tips: অ্যালোভেরার জেল বাজারেও কিনতে পাওয়া যায়। এটি স্কিন এবং চুলেও ব্যবহার করা যাবে।

৪। ট্রি টি অয়েল (Tea Tree Oil)

ট্রি টি অয়েল

ট্রি টি অয়েল একটি অপরিহার্য তেল যা ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করার এবং ত্বকের প্রদাহ কমানোর ক্ষমতার জন্য সুপরিচিত। অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্যগুলি ত্বকের দাগ এবং দাগ থেকে মুক্তি পেতে একটি নিখুঁত এজেন্ট হিসাবে কাজ করে। তবে খেয়াল রাখবেন এই তেল স্কিনে সবসময় পাতলা ভাবে আপ্লাই করতে হয়।

উপকরণ (Ingredients):

  • ট্রি টি অয়েল
  • নারকেল তেল

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • ট্রি টি অয়েলের সঙ্গে নারকেল তেল অথবা আমন্ড অয়েল ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
  • এবার মিশ্রণটি আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে নিন।
  • শুকিয়ে এলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।
  • দিনে ১-২ বার এই পদ্ধতিতে ট্রাই করুন।

Read more: গরমে ত্বক উজ্জ্বল করার উপায়

৫। বেকিং সোডা (Baking Soda)

বেকিং সোডা

বেকিং সোডা মূলত ব্লিচিং বৈশিষ্ট্যের জন্য পরিচিত। এটি ব্যবহারের মাধ্যমে মুখের ব্রণের দাগ কম করা সম্ভব।

উপকরণ (Ingredients):

  • দুই টেবিল চামচ বেকিং সোডা

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • দুই টেবিল চামচ বেকিং সোডা (বেকিং পাউডার নয়) এবং এক টেবিল চামচ জল মিশিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন।
  • এবার পেস্টটি আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে রাখুন।
  • ১০-১৫ মিনিট বাদে জল দিয়ে পরিষ্কার করে নিন।

৬। কমলালেবুর খোসার গুঁড়ো (Orange Peel Powder) 

কমলালেবুর খোসার গুঁড়ো

সাইট্রিক অ্যাসিড স্কিনের কালো দাগ, ব্রণের দাগ দূর করতে সহায়তা করে এবং ত্বক উজ্জ্বল করতে পারে। তাই যাদের মুখে ব্রণের দাগের সমস্যা রয়েছে, তাদের জন্য কমলালেবু স্কিন চর্চায় ভালো উপাদান হবে।

উপকরণ (Ingredients):

  • কমলালেবুর খোসা
  • এক টেবিল চামচ মধু

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • কমলালেবুর খোসা গুঁড়ো করে নিন।
  • এক টেবিল চামচ মতো কমলালেবু খোসার গুঁড়ো এবং এক টেবিল চামচ মধু নিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন। পেস্টটি মসৃণ হতে হবে।
  • এবার এই পেস্টটি মুখের যেখানে ব্রণের দাগ রয়েছে সেই অংশে ভালো করে আপ্লাই করে নিন।
  • ১০-১৫ মিনিট মতো রেখে হালকা গরম জল দিয়ে পরিষ্কার করে নিন।

Read more: ভেষজ চিকিৎসা

৭। আপেল সিডার ভিনিগার (Apple Cider Vinegar)

আপেল সিডার ভিনিগার

আপেলের রসে ইস্ট ও ব্যাকটিরিয়া মিশিয়ে তাকে প্রস্তুত করা হয় আপেল সিডার ভিনিগার। এর জন্য এটি অনেক ধরণের ব্যাকটেরিয়ার সাথে লড়াই করার ক্ষমতা রাখে। এতে সাইট্রিক অ্যাসিড এবং ল্যাকটিক অ্যাসিডের মতো জৈব অ্যাসিড রয়েছে, যা ব্রণের দাগ দূর করে। এছাড়াও এটি পিএইচ ব্যাল্যান্স বজায় রাখে।

উপকরণ (Ingredients):

  • আপেল সিডার ভিনিগার
  • মধু

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • আপেল সিডার ভিনিগারে দুই টেবিল চামচ মধু যোগ করুন।
  • মিশ্রণটিতে খুব অল্প পরিমাণে জল মেশান। ভালোভাবে মিশিয়ে পাতলা পেস্ট করুন।
  • তুলোর সাহায্যে মিশ্রণটি আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে রাখুন।
  • ১৫-২০ মিনিট রেখে পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

৮। লেবুর রস (Lemon Juice)

লেবুর রস

লেবুর রস ব্লিচিং এজেন্ট হিসাবে কাজ করে। পাশাপাশি ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে। ব্রণের দাগ দূর করার উপায় হিসাবে এই ঘরোয়া উপাদানটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

উপকরণ (Ingredients):

  • লেবু
  • তুলো

কিভাবে করতে হবে? (How to do) 

  • অর্ধেক লেবু কেটে রস বের করে নিন।
  • একটি তুলোর বল লেবুর রসে ডুবিয়ে নিন।
  • মুখে ব্রণ আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে রাখুন।
  • কিছুক্ষণ পর হালকা গরম জলে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

ব্রণের জন্য বেশিরভাগ ঘরোয়া প্রতিকার কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। তবে গুরুতর ব্রণের ক্ষেত্রে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। 

Frequently Asked Questions:

Q. মানসিক চাপে কি ব্রণ হতে পারে?

A. মানসিক চাপ শরীরে অনেক কিছুর পরিবর্তন ঘটাতে পারে। এবং এই পরিবর্তনগুলির জন্য ব্রণ হতে পারে।

Q. ব্রণের দাগ কি প্রাকৃতিকভাবে মুছে ফেলা যায়?

A. প্রাকৃতিক উপায়ে এমন প্রতিকার রয়েছে যা ব্রণের দাগ ধীরে ধীরে সারিয়ে তুলতে পারে।

Q. ব্রণের দাগ কতদিন থাকে? 

A. সাধারণ ব্রণের দাগ অদৃশ্য হতে 3-6 মাস সময় লাগে। তবে যদি আপনি ঘরোয়া পদ্ধতিতে চিকিৎসা করেন তাহলে খুব তাড়াতাড়ি অদৃশ্য হয়ে যায়।

Leave A Reply

Please enter your comment!
Please enter your name here