রইল রূপচর্চায় ত্বকের যত্নে হলুদ ব্যবহারের টিপস

রূপচর্চায় ত্বকের যত্নে হলুদ ব্যবহারের টিপসঃ

হলুদ এবং রূপটান যেন একে অপরের সঙ্গী। প্রাচীনকাল থেকে রূপটানের কাজে হলুদ ব্যবহার হয়ে আসছে। যদি রূপচর্চার কথা হয়, তাহলে হলুদের কথা প্রথম মাথায় আসে। ত্বক গ্লোয়িং করে তুলতে কাঁচা হলুদ উপাদান অন্যতম। ত্বকের যত্নে হলুদ অপরিসীম।

আপনার যদি ড্রাই স্কিন হয়, তাহলে হলুদের মতো ভাল বিকল্প অন্য কিছু হতে পারে না। স্কিনকে টাইট রেখে মাইশ্চারাইজড করে রাখতে এতি অতুলনীয়। কাঁচা হলুদে রয়েছে অ্যান্টি এজিং উপাদান, যা বয়সের ছাপ দূর করতে চমৎকার কাজ করে। তবে ত্বকের জন্য হলুদ লাগানোর জন্য নিয়ম রয়েছে। সরাসরি ব্যবহার না করে রান্ন ঘরের কিছু উপাদানের সঙ্গে ব্যবহার করলে দারুন ফল পাওয়া যায়। তাই আজ এই নিবন্ধনে ত্বকের যত্নে হলুদ ব্যবহার করার কিছু সহজ টিপস জানাব আপনাদের, যাতে পেয়ে যেতে পারেন একটি সুন্দর এবং উজ্জ্বল ত্বক।

রূপচর্চায় ত্বকের যত্নে হলুদ ব্যবহারের টিপসঃ

রূপচর্চায় ত্বকের যত্নে হলুদ ব্যবহারের টিপসঃ

ত্বককে গ্লোয়িং করতে হলুদ ব্যবহারের টিপস

টিপস ১

উপকরণঃ

কাঁচা হলুদ, এক টেবিল চামচ মধু এবং ২ টেবিল চামচ কমলালেবু খোসা বাটা

প্রণালীঃ

প্রথমে কাঁচা হলুদ ভাল করে বেতে নেবেন। এবার বেটে রাখা কাঁচা হলুদে এক টেবিল চামচ মধু এবং দুই টেবিল চামচ কমলা লেবুর খোসা বাটা মিশিয়ে পেস্ট করে নিন। পেস্তই মুখের এবং গলায় লাগিয়ে ১০ মিনিট বাদে ধুয়ে ফেলবেন। সপ্তাহে অন্তত ১ বার নিয়মিত ব্যবহার করলে কিছুদিনের মধেই পেয়ে যাবেন গ্লোয়িং স্কিন।

টিপস ২

উপকরণঃ

দুই টেবিল চামচ কাঁচা হলুদ বাটা, দুই টেবিল চামচ বেসন, এক টেবিল চামচ চালের গুঁড়ো, এবং দুই চামচ টক দই

প্রণালীঃ

কাঁচা হলুদ বেটে, চালের গুঁড়ো, বেসন এবং টক দই এর সঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে একটা প্যাক বানিয়ে নেবেন। এবার প্যাকটি ত্বকে লাগিয়ে নেন। প্যাকটি শুকিয়ে এলে হালকা করে ঘষে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহারে পেয়ে যাবেন হেলদি এবং গ্লোয়িং স্কিন।

টিপস ৩

উপকরণঃ

দুই টেবিল চামচ কাঁচা হলুদ বাটা, দুই টেবিল চামচ মসুর ডাল বাটা, দুই টেবিল চামচ মুলতানি মাটি এবং গোলাপ জল

প্রণালীঃ

প্রথমে মসুর ডাল এবং কাঁচা হলুদ বেটে একটি পেস্ট বানিয়ে নেবেন। এবার পেস্টটির মধে মুলতানি মাটি এবং গোলাপ জল ভালোভাবে মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে নেবেন। প্যাকটি মুখে এবং ঘাড়ে লাগিয়ে নেবেন। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নেবেন। ভাল রেজাল্ট পেতে নিয়মিত ব্যবহার করেই দেখুন।

ব্রণ দূর করতে হলুদ ব্যবহারের টিপসঃ

ব্রণ দূর করতে হলুদ ব্যবহারের টিপসঃ

টিপস ১

উপকরণঃ

দশ বারটি নিমপাতা

দেড় চা চামচ কাঁচা হলুদ বাটা

প্রণালীঃ

নিমপাতা সেদ্ধ করে পেস্ট করে নেবেন। এবার পেস্টটিতে কাঁচা হলুদ বাটা ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নেবেন। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নেবেন। সপ্তাহে ২ দিন ব্যবহার করলে ত্বকে ব্রণ কমে যাবে।

সারকথাঃ

অতিরিক্ত অয়েলি ত্বকের জন্য নিম পাতা খুব ভাল কার্যকর।

টিপস ২

উপকরণঃ

দুই টেবিল চামচ দুধ

দেড় টেবিল চামচ কাঁচা হলুদ বাটা

প্রণালীঃ

কাঁচা হলুদ বেটে দুধে মিশিয়ে নেন। এবার তুলোর বলে করে ব্রণ আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে রাখুন। ৫-১০ মিনিট বাদে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

এছাড়া এই পেস্টটি আপনি পুরো মুখে লাগালে ত্বকে উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

গুরুত্বপূর্ণ নোটসঃ

দুধে অ্যালার্জি থাকলে প্যাকটি এড়িয়ে চলুন।

টিপস ৩

উপকরণঃ

দুই টেবিল চামচ বেসন, এক টেবিল চামচ কাঁচা হলুদ বাটা এবং দুই বা তিন চা চামচ গোলাপ জল

প্রণালীঃ

বেসন, কাঁচা হলুদ বাটা এবং গোলাপ জল মিশিয়ে একটি ঘন প্যাক বানিয়ে নেবেন। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করবেন। ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নেবেন। ভালো ফল পেতে সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করবেন। এই প্যাকটি ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত পদার্থ দূর করে ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কমিয়ে দেবে।

রোদে পোড়া ত্বক দূর করতে হুলদের ব্যবহারের টিপস

রোদে পোড়া ত্বক দূর করতে হুলদের ব্যবহারের টিপস

টিপস ১

উপকরণঃ

দুই টেবিল চামচ হলুদ, এক টেবিল চামচ মুলতানি মাটি, এক টেবিল চামচ শসার রস এবং হাফ টেবিল চামচ লেবুর রস

প্রণালীঃ

কাঁচা হলুদ বেটে সঙ্গে মুলতানি মাটি, শসার রস এবং লেবুর রস ভালোভাবে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন। ১০-১৫ মিনিট বাদে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করলে রোদে পোড়া ত্বকে প্রাকৃতিক রং ফিরে আসবে।

টিপস ২

উপকরণঃ

দুই চামচ কাঁচা হলুদ বাটা

পরিমাণ মতো দুধের সর

প্রণালীঃ

প্রথমে কাঁচা হলুদ বেটে নেবেন। এবার বেটে রাখা কাঁচা হলুদের সঙ্গে দুধের সর মিশিয়ে ফেস প্যাক হিসাবে মুখে লাগিয়ে নেবেন। নিয়মিত এইভাবে লাগালে রোদে কালচে ত্বক রিমুভ হয়ে ত্বকে আসবে জেল্লা।

টিপস ৩

উপকরণঃ

দুই টেবিল চা চামচ কাঁচা হলুদ বাটা, এক টেবিল চামচ মসুর ডাল বাটা ও এক টেবিল চামচ মধু

প্রণালীঃ

প্রথমে কাঁচা হলুদ বাটা এবং মসুরের ডাল বাটা একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে পেস্ট করে নেবেন। এবার এই পেস্টটিতে মধু মিশিয়ে নিয়ে পুরো মুখে এবং ঘাড়ে লাগিয়ে নেন। প্যাকটি শুকিয়ে এলে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নেবেন। নিয়মিত ব্যবহার করলে রোদেপোড়া দাগ কমে ত্বক গ্লোয়িং হয়ে উঠবে।

নিয়ম করে এই পদ্ধতিগুলি অনুসরণ করলে পেয়ে যাবেন একটি সুন্দর এবং গ্লোয়িং ত্বক।

সারকথাঃ

হুলদে এমন গুন রয়েছে যাক ত্বকের সবরকম সমস্যা নিরাময় করতে সক্ষম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here