অনলাইন ব্যবসা: ৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া

অনলাইন ব্যবসা

অনলাইন ব্যবসা

সূত্র :- smallbiztrends . com

আজকাল মানুষ ব্যবসা করতে বেশি পছন্দ করে। নিজে স্বাবলম্বী হতে চায় অন্যের পরাধীনে না থেকে। আজকাল মানুষ অনলাইন ব্যবসা করে প্রচুর টাকা উপার্জন করছে। তবে আপনি যদি এটা ভেবে বসেন অনলাইনে ব্যবসা শুরু করলেই আপনি প্রচুর টাকা উপার্জন করতে পারবেন এবং সাফল্যে অর্জন করবেন খুব দ্রুত। সেটা ভাবা একটু ভুল হয়ে যাবে কারণ সত্যিই এটাই, অনলাইনে যেকোনো ব্যবসাই সাফল্যে আনতে ৬ মাস থেকে ১ বছর সময় লেগে যায়। একবার সাফল্যে অর্জন করতে পারলেই আপনি প্রচুর টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

ইন্টারনেট যুগ আসার পর থেকে ব্যবসার পদ্ধতি পরিবর্তন করা হয়ে। ইন্টারনেট এখন ঘরে বসে ব্যবসা করে মানুষ লাখ লাখ টাকা আয় করছে। দিনের পর দিন ভারত এবং অন্যান্য দেশেও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে। অনলাইনে এমন কয়েকটি ব্যবসা রয়েছে যার দ্বারা মানুষ নিজেদের ভবিষ্যৎ গড়ে নিচ্ছে। আজকে আমরা এই পেজে অনলাইন ব্যবসার নিয়ে আলোচনা করব। আপনাদের সুবিধার জন্য ৫ টি অসাধারণ অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া দেব যা আপনাদের এনে দেবে সাফল্যে। চলুন তাহলে দেখে নিই অনলাইন ব্যবসার কিছু আইডিয়া।

  1. ব্লগের অনলাইন ব্যবসা (Blogging Online Business):

ব্লগের অনলাইন ব্যবসা (Blogging Online Business)

সূত্র :- thebalancesmb . com

আমরা এর আগের পেজেও ব্লগিং ব্যবসা সম্পর্কে আলোচনা করেছিলাম। ভারতে অনলাইন ব্যবসা তালিকায় ব্লগের ব্যবসা প্রথম স্থানে রয়েছে। অনলাইন ব্যবসা প্ল্যাটফর্মে ব্লগিং এর ব্যবসাকে ভারতে এক নম্বর অনলাইন ব্যবসা বলা হয় কারণ ভারতে প্রচুর ব্লগার রয়েছে যারা মাসে লাখ লাখ টাকা আয় করছে। তবে এটা ঠিক এই ব্যবসায় টাকা উপার্জন করা খুব একটা সহজ নয়, কারণ ভারতে হাজার হাজার লোক ব্লগের ব্যবসায় প্রথম থেকেই যুক্ত রয়েছে। তাই আপনি যদি এই ব্যবসা করতে চান তাহলে আপনাকে ধৈর্য এবং প্রচুর পরিশ্রমের করতে হবে। তাহলে আপনি ব্যবসায় সাফল্যে অর্জন করতে পারবেন।

অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করতে হলে ব্লগিং একটি দুর্দান্ত আইডিয়া। ব্লগিং এর ব্যবসার জন্য আপনাকে ভালো লেখালেখির কাজ করতে হবে। কোন বিষয় নিয়ে আপনাকে আর্টিকেল লিখতে হবে এবং সেই আর্টিকেল আপনাকে ব্লগে পোস্ট করতে হবে। আপনি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালেখির কাজ করতে পারেন। যেমন- ফ্যাশন, বিউটি টিপস, গ্যাজেট, রেসিপি, বিনোদন ইত্যাদি। আপনার লেখা ভিজিটরদের ভালো লাগলে ব্লগে ভিজিটরের সংখ্যা বাড়বে এবং আপনার উপার্জন বাড়বে। একবার ব্লগে ভিজিটরের সংখ্যা বাড়লে ব্লগে বিজ্ঞাপন লাগিয়ে প্রচুর টাকা উপার্জন করা সম্ভব। তবে এটা মাথায় রাখবেন ব্লগে ভিজিটর এলেই একমাত্র আপনার উপার্জন হবে। তাই আপনাকে লেখালেখি ভালো করতে হবে।

  1. ইউটিউব অনলাইন ব্যবসা (Youtube Online Business):

ইউটিউব অনলাইন ব্যবসা (Youtube Online Business)

Source: Instagram https://www.instagram.com/p/By6c-uon7Jh/

আজকাল সবাই আমরা জানি ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করার মাধ্যমে মানুষ ভালো টাকা উপার্জন করছে। আজকের দিনে অনেক ইউটিউবার রয়েছে যারা ভালো টাকা আয় করছে। তবে শুধু ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করলেই আপনি টাকা উপার্জন করতে পারবেন তা নয়। ভিডিওর বিষয়বস্তু এমন হতে হবে যাতে ব্যবহারকারীদের পছন্দ হয়। আপনি নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে নিন এবং ভিডিও আপলোড করতে থাকুন। ভিজিটরের সংখ্যা বাড়লে আপনার উপার্জন হবে এবং পরে Google Adsense platform এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন।

  1. এফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate Marketing):

এফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate Marketing)

সূত্র :- digitalvidya . com

অনলাইন ব্যবসার আইডিয়ায় Affiliate Marketing একটি নিজের জায়গা বানিয়ে নিয়েছে। এফিলিয়েটের মাধ্যমে অনলাইনে টাকা উপার্জন করার জন্য আপনার একটি হাই ট্রাফিক ওয়েবসাইট বা ব্লগ থাকতে হবে। অথবা যদি কম ট্রাফিকের সঙ্গে Micro Niche Blog থাকে তাহলেও আপনি এফিলিয়েট ব্যবসার মাধ্যমে ভালো টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং মানে কমিশন। অর্থাৎ ধরুন আমার কোন প্রোডাক্ট রয়েছে যার মূল্য ১০০ টাকা। এবার আমার সেই প্রোডাক্ট আপনার মাধ্যমে যদি বিক্রয় হয় তবে আপনি ১০ শতাংশ কমিশন পাবেন। প্রায় সবরকম ই- কমার্স কোম্পানি যেমন – Flipkart, Amazon, Snapdeal ইত্যাদি এফিলিয়েট মার্কেটিং চালায়।

যেকোনো Niche সম্পর্কিত আপনার ওয়েবসাইটের সম্পর্কিত প্রোডাক্টের affiliate করে ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারেন। Affiliate Marketing এ প্রোডাক্টগুলি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের বা অন্যান্য পদ্ধতিতে প্রমোট করতে হবে। যখনি কোন ব্যবহারকারী এফিলিয়েট লিংকে ক্লিক করে প্রোডাক্ট কিনবে তখন এই মূল্যের বিক্রয় মূল্যের উপর কিছু শতাংশ কমিশন আপনি উপার্জন করতে পারবেন। এই ক্ষেত্রে ব্যবসা আইডিয়া আলাদা হতে পারে। যেমন কিছু ওয়েবসাইট আছে যা মূল্য তুলনা করে এবং ব্যবহারকারীর যেই ওয়েবসাইটের মূল্য ভালো লাগে সে সেখান থেকে পণ্য কিনে নেয়। তবে ব্যবহারকারী যেই লিংক থেকেই প্রোডাক্ট কিনুক না কেন কমিশনের টাকা কিন্তু আপনিই পাবেন।

সারকথাঃ

উচ্চ ট্রাফিক, ব্লগ বা Micro Niche Blog বানানোর জন্য আপনাকে ওয়েবসাইট তৈরি, অনলাইন বিজ্ঞাপন, এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান) এর সম্পর্কে জানতে হবে।

  1. ডিজিটাল মার্কেটিং অনলাইন ব্যবসা (Digital Marketing Online Business):

ডিজিটাল মার্কেটিং অনলাইন ব্যবসা (Digital Marketing Online Business)

সূত্র :- resolveagency . com . au

অনলাইন ব্যবসার মধ্যে এটি আরেকটি ব্যবসা যা অল্প বিনিয়োগে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। এই ইন্টারনেটের যুগে মোবাইল একটি নতুন দুনিয়া তৈরি করে দিয়েছে। তাই বিজ্ঞাপনদাতারা মোবাইল ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেটের মধ্যে প্রবেশ করাতে চান। আর এটা একমাত্র ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে সম্ভব।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি বোঝানোর জন্য আপনাদের একটি উদাহরণের দিই। যেমন- বিজ্ঞাপন এমন একটি জিনিস যা সবাই চায়। যেসমস্ত বিজ্ঞাপনদাতার কাছে বাজেট আছে তারা বড় বড় সেলিব্রিটি দিয়ে বিজ্ঞাপন করছেন। ধরুন বিজ্ঞাপন করা হয়ে গেল এবং ভিডিও বানানো হয়ে গেল কিন্তু তা দর্শকের কাছে পোঁছাবে কি করে? আর এই ভিডিও গ্রাহকদের মোবাইলে পোঁছে দেওয়ার কাজটাই করে থাকে ডিজিটাল মার্কেটিং।

আজকের দিনে ডিজিটাল মার্কেটিং একটি বড় সেক্টর। এরকম অনেক কোম্পানি রয়েছে যারা ডিজিটাল মার্কেটিং পরিষেবা প্রদান করে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করছে। আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনার ক্লায়েন্টের পণ্য বা পরিষেবা অনলাইনে ব্যবসা করতে পারেন।

অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা ডিজিটাল মার্কেটিং এর কোর্স শেখায়। তবে আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে চান তাহলে আমি বলব গুগুল সেরা প্রতিষ্ঠান হবে আপনার জন্য। গুগুলে সার্চ করুন অনেক তথ্য জানতে পারবেন।

সারকথাঃ

গুগুলে ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে প্রচুর আর্টিকেল রয়েছে।

  1. টেকনিক্যাল সাপোর্ট ব্যবসা (Technical Support Business):

টেকনিক্যাল সাপোর্ট ব্যবসা (Technical Support Business)

সূত্র :- cdn-images-1.medium . com

আজকাল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর আমরা তো জানি তার সাথে তাল মিলিয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে ওয়েবসাইট বানানোর প্রক্রিয়া। হাজার হাজার ওয়েবসাইট যেমন তৈরি হচ্ছে তেমন খারাপও হছে। আর আপনি যদি ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রোগ্রামিং জানেন তাহলে ওয়েবসাইটে অনেক টেকনিক্যাল সমস্যা দেখা যায় এবং আপনি এটা ঠিক করে আয় করতে পারেন। তাই আপনি টেকনিক্যাল সাপোর্টার হয়ে ওয়েবসাইটের সমস্যা ঠিক করে অনলাইনে টাকা আয় করতে পারেন।

এই ৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়াগুলি থেকে আপনি ভালো আয় করতে পারবেন এবং নিজের ব্যবসায় সাফল্যে আনতে পারবেন। এখানে ৫ টি অনলাইন ব্যবসার সম্বন্ধে আলোচনা করা হয়েছে। এই পাঁচটি ছাড়াও আরও কিছু অনলাইন ব্যবসা রয়েছে।

সারকথাঃ

আধুনিক যুগে অর্থও আমাদের জন্য জরুরী হয়ে গেছে। তাই আমাদের কিছু এক্সট্রা উপার্জন প্রয়োজন। তাই এক্সট্রা অর্থ উপার্জনের জন্য অনলাইন ব্যবসা একটি ভালো মাধ্যম। তবে,যেকোনো ব্যবসার পরিকল্পনা অবশ্যই করা উচিত।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

প্রঃ আমি ব্লগিং এর ব্যবসা করতে চাই তার জন্য কি করতে হবে?

উঃ ফ্রি ব্লগার ওয়েবসাইট থেকে আপনাকে ব্লগ তৈরি করতে হবে এবং আপনার ব্লগে আর্টিকেল পোস্ট করতে হবে।

প্রঃ ডিজিটাল মার্কেটিং ব্যবসার জন্য প্রচুর পুঁজি লাগে?

উঃ ডিজিটাল মার্কেটিং ব্যবসার জন্য অল্প পুঁজি দরকার। শুধু আপনাকে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here