ব্যবসা পরিকল্পনা কিঃ ব্যবসা পরিকল্পনা ধরনা

ব্যবসা পরিকল্পনা কি

পরিকল্পনা কোন কাজের অর্ধেক। ব্যবসা শুরু করতে হলে দরকার একটি কার্যকারী পরিকল্পনা। তাই ব্যবসায় সফলতা অর্জন করতে চাইলে দরকার একটি সঠিক পরিকল্পনা। সুতরাং ব্যবসা শুরু করতে গেলে ৩-৪ বছর একটি উন্নয়ন পরিকল্পনা করতে হবে। তাই প্রত্যেক ব্যক্তির ব্যবসা শুরু করার আগে ব্যবসা পরিকল্পনা কি জানা দরকার।

ব্যবসার পরিকল্পনা হল ব্যবসা সংক্রান্ত তথ্য। যেকোনো ব্যবসা শুরু করার আগে পরিকল্পনা তৈরি করে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু এই ব্যবসা পরিকল্পনা কি ? কীভাবে একটি উপযুক্ত পরিকল্পনা মাধ্যমে ব্যবসায় অগ্রগতি সম্ভব। জেনে নিন আজকের এই নিবন্ধন থেকে।

ব্যবসা পরিকল্পনা কি

ব্যবসা পরিকল্পনা কি ?

পরিকল্পনার প্রাথমিক পর্যায়ঃ

আপনি একটি ব্যবসা শুরু করতে চান, তাহলে প্রথম ধাপে একটি বিস্তারিত ব্যবসায়িক পরিকল্পনা প্রস্তুতি নিতে হবে। আপনার নতুন ব্যবসার জন্য ব্যবসাটিকে কীভাবে সেট আপ করবেন এবং পরিচালনা করবেন এবং সেই সাথে আপনার স্টার্টআপ খরচগুলি কীভাবে চলবে তা পরিকল্পনা করতে হবে।

আপনি যদি নতুন ব্যবসায় শুরু করতে চান, আপনি কীভাবে সঠিকভাবে ব্যবসা শুরু করবেন তার সাথে সাথে আরও তথ্য, কৌশল এবং আত্মবিশ্বাসের জন্য সফলভাবে কীভাবে পরিচালনা করবেন সেই বিষয়ে পরামর্শদাতার থেকে মতামত নিতে পারেন।

তারপর এমন একটি ব্যবসার উপযুক্ত জায়গা খুঁজে বার করুন যেখানে গ্রাহকরা সহজেই খুঁজে পাতে পারে এবং যেটি ভাড়া বা ক্রয়ের জন্য উপযুক্ত। জায়গাটি কিনতে বা ভারা নিতে এবং লোকেশনটি সুরক্ষিত কিনা বিস্তারিত তথ্য জানতে বাড়িওয়ালা বা জমির মালিকের সঙ্গে কথা বলুন।

আর্থিক পর্যায়ঃ

একবার আপনি পরিকল্পনা পর্যায়টি তৈরি করতে পারলে, আপনি আপনার নতুন ব্যবসার জন্য অর্থায়ন সন্ধান করতে প্রস্তুত হতে পারবেন। আপনি যদি স্বাধীনভাবে ধনী হন, তবে আপনি এটি নিজে অর্থায়ন করতে পারেন। অথবা আপনি পরিবারের সদস্যের কাছ থেকে বা বন্ধু বান্ধবদের কাছ থাকে ব্যবসা শুরু করার জন্য আর্থিক সাহায্য নিতে পারেন।

যদি তহবিল দেওয়ার পদ্ধতিগুলি আপনাকে কোনও ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয় পরিমাণ অর্থ না প্রদান করে, তবে আপনি আরও সরকারি তহবিল পদ্ধতির জন্য আবেদন করতে পারেন, যার মধ্যে সরকারী সমর্থিত ব্যবসা ঋণ এবং ব্যাংক ঋণ অন্তর্ভুক্ত। ব্যবসার প্রকৃতির উপর নির্ভর করে, সরকারি অনুদান উপলব্ধ হতে পারে।

আইনি প্রস্তুতি পর্যায়ঃ

আইনি প্রস্তুতি পর্যায়টি ‘ ব্যবসা পরিকল্পনা কি ‘ নিবন্ধ আলোচনার শেষ পর্যায়ে। এটি সাধারণত আপনার ব্যবসার জন্য উপযুক্ত আইনি কাঠামোর সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরিকল্পনার সঙ্গে শুরু হয়। উদাহরণস্বরূপ – এটি একমাত্র মালিকানা, একটি অংশীদারিত্ব, একটি কর্পোরেশন ইত্যাদি হতে পারে।

ব্যবসার নামকরণঃ

ব্যবসার নামকরণঃ

এরপরে আপনাকে একটি ব্যবসার নাম রাখতে হবে এবং সেক্রেটরি অফ স্টেট অফিসের মাধ্যমে রাজ্য সরকারের সাথে এটি নিবন্ধন করতে হবে। যে কোন ব্যবসা উন্নতির জন্য ব্যবসার নামকরন করা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

এই পর্যায়ে আপনি অভ্যন্তরীণ রাজস্ব পরিষেবা থেকে বা রাজ্যের ট্যাক্স কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে একটি ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নম্বর পেতে পারেন। ব্যবসার বৈধ ভাবে করতে চাইলে আইন কানুন মেনে চলতে হবে এবং ট্রেড লাইসেন্স থাকা দরকার। এছাড়া ব্যবসার ঝুঁকি হ্রাসের জন্য বিমা পরিকল্পনা করতে পারেন।

আশা করি, এই তিনটি পর্যায় মাধ্যমে ব্যবসা পরিকল্পনা কি তা বুঝতে পারবেন। যে কোন ব্যবসা শুরু করার জন্য চূড়ান্ত পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।

সারকথাঃ

ব্যবসা পরিকল্পনা করার আগে ব্যবসা সংক্রান্ত সব বিষয়ে ধারণা থাকা দরকার। ব্যবসা পরিকল্পনা ছাড়া ব্যবসায় চালু করা ভুল সিধান্ত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here