ক্যান্সারের লক্ষণ: কয়েকটি লক্ষণ যা ক্যান্সার রোগের কারণ

ক্যান্সার

ক্যান্সার রোগের নামটা শুনলে আমরা আতঙ্কে থাকি। আর ভাবুন তো যারা এই রোগের ভুক্তভোগী তাদের অবস্থা কেমন হয়। ক্যান্সার এমন একটি মারাত্মক রোগ যা লক্ষ লক্ষ মানুষের কেড়ে নেয় প্রাণ। ক্যান্সার মানুষের জীবন কেড়ে নেয় ঠিকই তবে বর্তমানে এই রোগের সঠিক চিকিৎসায় প্রাণ ফিরে পাচ্ছে অনেক মানুষ। ঠিক সময় চিকিৎসা করাতে পারলে একটা প্রাণ বাঁচার সম্ভবনা থাকে অনেকটাই। অনেক সময় ক্যান্সারের লক্ষণ বুঝে উঠতে দেরি হয়ে যায় যার জন্য রোগীকে বাঁচানো সম্ভব হয় না।

ক্যান্সার

Source

তবে, এই রোগ সঠিক সময় বুঝতে পারলে ডাক্তারদের চিকিৎসা করতে সুবিধা হয়। যার ফলে রোগীকে বাঁচানো সম্ভব হয়। তাই সবার আগে প্রয়োজন আমাদের এই রোগের লক্ষণ জানার তাই আজকে এই নিবন্ধে আমরা আপনাদের কয়েকটি লক্ষণ সম্পর্কে আলোচনা করব যা দেখলে আপনারা বুঝতে পারবেন এগুলি ক্যান্সারের লক্ষণ।

ক্যান্সার কি

ক্যান্সার কি (What is cancer)

আমাদের শরীর বিভিন্ন ধরণের কোষ দ্বারা গঠিত। এই কোষগুলি যেমন আমাদের প্রয়োজন ঠিক তেমনি আবার এই কোষগুলি অনিয়ন্ত্রিত ভাবে বৃদ্ধি পায়। কোষের এই অস্বাভাবিক বৃদ্ধিকে ক্যান্সার বলা হয়। যা কোষগুলি স্বাভাবিক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে।

আরও পড়ুন । লিভার ক্যান্সার কেন হয় এবং লিভার ক্যান্সারের লক্ষণ

ক্যান্সারের কারণ

Source

ক্যান্সারের কারণ (Causes of cancer) 

ক্যান্সার বিভিন্ন কারনের জন্য হয়।  যেমন –

  1. জেনেটিক ক্যান্সারের কারণ।
  2. সংক্রমণ দ্বারা ক্যান্সার হয়।
  3. প্রদাহজনিত ব্যাধি ক্যান্সারের কারণ।
  4. ইমিউন সিস্টেমের ব্যর্থতা

আরও পড়ুন । কিডনি রোগের প্রতিকার: কিডনি রোগের লক্ষণ এবং প্রতিকার

ক্যান্সার রোগের কয়েকটি লক্ষণ (Some of the symptoms of cancer)

ক্যান্সারের লক্ষণ বিভিন্ন ধরণের হয়। এখানে আমরা সংক্ষেপে কিছু ধরণের ক্যান্সারের লক্ষণ উল্লেখ করছি।

অস্বাভাবিক ভাবে ওজন কমে যাওয়া

Source

  • অস্বাভাবিক ভাবে ওজন কমে যাওয়া (Abnormal weight loss) 

অস্বাভাবিক ওজন কমে যাওয়া ক্যান্সার লক্ষণ এর মধ্যে একটি। যাদের ক্যান্সার আছে তাদের অপ্রত্যাশিত ওজন কমতে শুরু হয়। কোন ব্যায়াম ছাড়া অথবা খাওয়া কমানো ছাড়াই অস্বাভাবিক ভাবেই ওজন কমে যাওয়া ক্যান্সারের লক্ষণ হিসাবে দেখা হয়। তাই আপনার যদি ডায়েট অথবা ব্যায়াম ছাড়াই অতিরিক্ত ওজন হ্রাস হতে শুরু করে তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করুন

ক্লান্তি এবং দুর্বলতা

Source

  • ক্লান্তি এবং দুর্বলতা (Fatigue and weakness) 

ক্লান্তি ক্যান্সারের প্রাথমিক লক্ষণ বলে ধরা হয়ে থাকে। এই রোগে মানুষ কোন কারণ ছাড়াই ক্লান্ত হয়ে পড়ে ঘন ঘন। অনেক সময় রোগী বুঝে উঠতে পারে না কোন কাজ না করেও সে ঘন ঘন ক্লান্ত এবং দুর্বল হয়ে পড়ছে। বিশ্রাম করার পরেও ক্লান্তি দূর হয় না। মাঝে মধ্যে হাত, পাও সাড় পাওয়া যায় না। এই ধরণের লক্ষণগুলি ক্যান্সার রোগের লক্ষণ হতে পারে।

আরও পড়ুন । জন্ডিস কেন হয়, জন্ডিসের লক্ষণ এবং চিকিৎসা

ইউরিন থেকে রক্তক্ষরণ

Source

  • ইউরিন থেকে রক্তক্ষরণ (Bleeding from urine) 

আপনার যদি ইউরিন থেকে রক্ত পড়ে তাহলে এটা অবহেলা করা উচিত হবে না। এটি রক্তে ক্যান্সার একটি সাধারণ লক্ষণ।

মলমুত্র থেকে রক্তক্ষরণ

Source

  • মলমুত্র থেকে রক্তক্ষরণ (Bleeding from excrement)

মলমুত্র থেকে রক্তক্ষরণ ক্যান্সারের একটি প্রাথমিক লক্ষণ বলা যেতে পারে। আপনার যদি মলমুত্র থেকে প্রায়ই রক্তক্ষরণ হয়ে থাকে তাহলে অবেহেলা না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা করুন কারণ এটি ক্যান্সার রোগের একটি মূল পর্যায়।

আরও পড়ুন । ইউরিক অ্যাসিড কমানোর ঘরোয়া উপায়

চেহারায় পরিবর্তন

Source

  • চেহারায় পরিবর্তন (Change in appearance)

উপরের লক্ষণগুলি পাশাপাশি চেহারায় অস্বাভাবিক পরিবর্তন দেখা গেলে এটি ক্যান্সারের রোগের লক্ষণ হতে পারে। কোন ব্যক্তির হঠাৎ করে চেহারায় কালো হয়ে গেলে অথবা ত্বক কালোভাব এসে গেলে এটি ক্যান্সার রোগের সঙ্কট হতে পারে। চেহারা অথবা ত্বকের রঙ হঠাৎ করে লাল হয়ে যাওয়া ক্যান্সার রোগের লক্ষণগুলির মধ্যে একটি।

আরও পড়ুন । টাইফয়েড কি, টাইফয়েডের লক্ষণ, ঘরোয়া প্রতিকার

অস্বাভাবিক কাশি

Source

  • অস্বাভাবিক কাশি (Unusual cough)

শুধুমাত্র ধূমপায়ীদের বা ঠান্ডা বা এলার্জি জন্য কাশি হয় না। অস্বাভাবিক কাশি ফুসফুস ক্যান্সারের প্রাথমিক লক্ষণ। যদি আপানার ভাইরাস সংক্রান্ত কারণে যেমন- ঠাণ্ডা লাগা ইত্যাদি জনিত কারণে না হয় তাহলে এই সমস্যার জন্য হতে পারে। যদি আপনার কাশির সঙ্গে রক্ত পড়ে তাহলে এটি ক্যান্সারের বড় লক্ষণ।

এই কয়েকটি লক্ষণ ছাড়াও ক্যান্সারের আরও কিছুভ লক্ষণ রয়েছে। আমরা এখানে বিশেষ কয়েকটি লক্ষণ আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করলাম।

আরও পড়ুন । পাইলস এর ঘরোয়া চিকিৎসা যেভাবে করবেন

ক্যান্সারের কয়েকটি লক্ষণ নজরে আসে না যতক্ষণ না মারাত্মক আকার ধারন করে। তবে এই সমস্ত লক্ষণগুলি অনুভব করলে সাথে সাথে চিকিৎসা করা প্রয়োজন। সময়মতো চিকিৎসা এবং আত্মবিশ্বাস আমরা এই মারাত্মক রোগকে হারিয়ে দিতে পারি।

সব লক্ষণ ক্যান্সার না হলেও আমাদের নিজেদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন থাকা উচিত। যেকোনো বড় ধরণের রোগ হওয়ার আগে প্রত্যেকের উচিত নিয়ম অনুযায়ী স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা।

Key point: ক্যান্সার বিভিন্ন ধরণের হয় এবং প্রত্যেকটা আলাদা আলাদা ক্যান্সারের লক্ষণগুলি ভিন্ন ধরণের।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

Q. ক্যান্সারের লক্ষণগুলি কি কি? 

A. ইউরিন থেকে রক্তক্ষরণ, ক্লান্তি এবং দুর্বলতা, অস্বাভাবিক ওজন কমে যাওয়া, মলমুত্র থেকে রক্তক্ষরণ, অস্বাভাবিক কাশি ইত্যাদি।

Q. ক্যান্সার কীভাবে শুরু হয়? 

A. ক্যান্সার বিকশিত হয় যখন শরীরের স্বাভাবিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা কাজ বন্ধ করে দেয়। অস্বাভাবিক কোষ গঠন করে। এই অতিরিক্ত কোষগুলি টিস্যুর একটি টিউমার আকার গঠন করতে পারে।

Q. ক্যান্সার রোগ থেকে কি ভালো হওয়া যায়? 

A. এখন চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেক উন্নত। তাই সঠিক সময় লক্ষণগুলি বুঝে সঠিক সময়ে চিকিৎসা করালে সুস্থ হওয়া সম্ভব

Q. ক্যান্সার কেন হয়?

A. ক্যান্সার বিভিন্ন কারনের জন্য হয়। জেনেটিক কারণে, সংক্রমণ দ্বারা, ইমিউন সিস্টেমের ব্যর্থতার কারণে ক্যান্সার হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here