অ্যাভোকাডো : স্বাস্থ্যের জন্য অ্যাভোকাডোর উপকারিতা

অ্যাভোকাডো

অ্যাভোকাডো এমন একটি ফল যার মধ্যে ফ্যাটি অ্যাসিড বেশি পাওয়া যায়, তবে কোলেস্টেরলের মাত্রা কম থাকে। অনেকে আবার বলে থাকেন অ্যাভোকাডোয় ক্যালরির বেশি মাত্রায় পাওয়া যায়। এর জন্য ওজন বাড়ানোর জন্যও অ্যাভোকাডো খাওয়া হয়ে থাকে।

অ্যাভোকাডো

Source

অ্যাভোকাডোয় অনেক উপকারিতা রয়েছে তবে, এটি যদি আপনি মাখন অথবা দুগ্ধ দ্রবের সঙ্গে তুলনা করেন তাহলে এটি কম ক্যালরি ধারন করে অন্যান্য পণ্য থেকে। এর মধ্যে ফ্যাটি অ্যাসিড পাওয়া যায় যা স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারি। আজকের এই নিবন্ধে আমরা আপনাদের অ্যাভোকাডো উপকারিতা তুলে ধরব। যার থেকে আপনারা জানতে পারবেন অনায়াসে আপনাদের স্বাস্থ্যের জন্য অ্যাভোকাডো কতটা উপকার। চুলন তাহলে জেনে নেওয়া যাক আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অ্যাভোকাডো উপকারিতা।

অ্যাভোকাডো কি

অ্যাভোকাডো কি (What is avocado) 

অ্যাভোকাডো দেখতে অনেকটা বড় আকৃতির। এর গাছের পঁচিশ ফুট পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে। এবং এর ফলগুলির ওজন অনেক বেশি হয়। এটি স্বাদ এবং স্বাস্থ্যের জন্য অনেক প্রয়োজনীয় একটি ফল স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি হওয়ার কারণে এটি অনেক জায়গায় পাওয়া যায়। এটি উপরের স্তর পুরু হওয়ার কারণে এই ফলে পোকা দেখা যায় না।

আরও পড়ুন । স্বাস্থ্যের জন্য মেথির উপকারিতা আপনার জানা উচিত

অ্যাভোকাডোর পুষ্টিগুণ

Source

অ্যাভোকাডোর পুষ্টিগুণ (Avocado nutritional value) 

প্রতি ১০০ গ্রাম অ্যাভোকাডোয় পুষ্টিগুণ রয়েছে –

  • প্রোটিন (১.৯৬ গ্রাম)
  • কার্বোহাইড্রেট (৮.৬৪ গ্রাম)
  • ফাইবার (৮.৮০ গ্রাম)
  • ক্যালসিয়াম (১৩ গ্রাম)
  • পটাশিয়াম (৫০৭ মিলিগ্রাম)
  • ফসফরাস (৫৪ মিলিগ্রাম)
  • ফোলেট (২০ % DV)
  • ভিটামিন কে (২৬% DV)
  • ভিটামিন সি (১৭% DV)
  • ভিটামিন ই (১০%  DV)
  • ভিটামিন বি ৫ (১৪% DV)
  • ভিটামিন বি ৬ (১৩% DV)

আরও পড়ুন । কিসমিসের উপকারিতা: শরীর সুস্থ রাখতে নিয়মিত কিসমিস

অ্যাভোকাডো পুষ্টিগুণের উপকারিতা

Source

অ্যাভোকাডো পুষ্টিগুণের উপকারিতা (Nutritional benefits of avocado) 

  1. প্রোটিনপেশী, হাড়, ত্বক, চুল এবং দেহের প্রতিটি অঙ্গ বা টিস্যুতে। এটি এমন এনজাইমগুলি তৈরি করে যা অনেকগুলি রাসায়নিক বিক্রিয়া এবং অক্সিজেন বহনকারী হিমোগ্লোবিনকে শক্তি দেয়।
  2. কার্বোহাইড্রেট – কার্বোহাইড্রেটগুলি আমাদের দেহে গ্লুকোজ হিসাবে দ্রুত রক্ত প্রবাহে প্রবেশ করে।
  3. ফাইবার – ফাইবার হজম স্বাস্থ্য এবং নিয়মিত অন্ত্রের জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান।
  4. ক্যালসিয়াম – শরীরের হাড় এবং দাঁত  মজবুত করতে সহায়তা করে
  5. পটাশিয়াম –  রক্তচাপ, কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য, হাড়ের শক্তি এবং পেশী মজবুত করে।
  6. ফসফরাস – ফসফরাস মানব দেহের প্রতিটি কোষে পাওয়া একটি প্রয়োজনীয় খনিজ।
  7. ভিটামিন কে – ভিটামিন কে ফ্যাট-দ্রবণীয় ভিটামিনগুলির একটি গ্রুপকে বোঝায় যা রক্ত ​​জমাট বাঁধা, হাড়ের বিপাক এবং রক্ত ​​ক্যালসিয়ামের স্তর নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে।
  8. ভিটামিন সি – ভিটামিন সি অনেক অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির মধ্যে একটি যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ করে।
  9. ভিটামিন ই –ভিটামিন ই শরীরের অনেক অঙ্গের সঠিক ক্রিয়াকলাপের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন। এটি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টও।এটি কোষের ক্ষতিগ্রস্থ প্রক্রিয়াগুলি ধীর করতে সহায়তা করে।
  10. ভিটামিন বি ৫ – এটি স্বাস্থ্যকর ত্বক, চুল, চোখ এবং লিভারকেও ভালো রাখে। 
  11. ভিটামিন বি ৬ – বি 6 দেহের শক্তি বিপাকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। চোখের জন্য উপকারী।

আরও পড়ুন । ট্রেডমিলে অথবা মেশিনে দৌড়ানোর উপকারিতা

স্বাস্থ্যের জন্য অ্যাভোকাডোর উপকারিতাঃ

Source

স্বাস্থ্যের জন্য অ্যাভোকাডোর উপকারিতা (Health benefits of avocado)

স্বাস্থ্যের উপকারিতা কথা বলতে গেলে অ্যাভোকাডোতে স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকার রয়েছে। এই ফলের মধ্যে পুষ্টি ভরপুর যার জন্য একে স্বাস্থ্যের জন্য সেরা ফল বলে বলা হয়ে থাকে। তবে অ্যাভোকাডো কাঁচা খাওয়া সবচেয়ে উপকার। নীচে অ্যাভোকাডো উপকারিতাগুলি রইল।

হজমে উপকারিতাঃ

Source

  1. হজমে উপকারিতা (Benefits of digestion)

এটা বলা হয়ে থাকে অ্যাভোকাডো অন্ত্রের ফাংশনকে স্বাভাবিক রাখে এবং খাবার সহজেই হজম করাতে সহায়তা করে। এতে বিদ্যমান ফাইবার অন্ত্রের কাজে উন্নতি সাধন করে।

আমাদের খাদ্য হজম করানোর জন্য দুই ধরণের ফাইবার অত্যন্ত প্রয়োজনীয় যা অ্যাভোকাডোয় পাওয়া যায়। এগুলি অন্ত্রের খাদ্য সহজেই পচন করে এবং তার ক্রিয়াকালাপ সহজ করে তোলে। তাই যাদের গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা রয়েছে তাদের অবশ্যই এই ফলটি গ্রহণ করা উচিত।

লিভারের যত্নে অ্যাভোকাডোঃ

Source

  1. লিভারের যত্নে অ্যাভোকাডো (Avocado in liver care) 

লিভার আমাদের শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। অ্যাভোকাডো লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া থেকে রক্ষা করে এবং এতে কিছু জৈব রয়েছে যা লিভারকে সুস্থ এবং শক্তিশালী হতে সহায়তা করে। হেপাটাইটিস বি হলে সাধারণত লিভার দুর্বল হয়ে যায় এবং ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে। গবেষণায় দেখা যায় এই ফলটি লিভাল সংক্রান্ত সমস্ত সমস্যা থেকে রক্ষা করে এবং এটি শক্তিশালী করে তোলে।

হার্ট ভালো রাখেঃ

Source

  1. হার্ট ভালো রাখে (Heart keeps well)

অ্যাভোকাডো হার্ট ভালো রাখে। এছাড়া অ্যাভোকাডো কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করে এবং হৃদয়কে রোগ থেকে দূরে রাখে। গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত এই ফলটি খাওয়ার ফলে এইচডিএল কোলেস্টেরলের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য বাড়ায়। এই ফলতে উপস্থিত পটাসিয়াম উচ্চ রক্তচাপের সাথে লড়াই করে এবং রক্তচাপ ও ধমনীর চাপকে হ্রাস করে। এটি হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি হ্রাস করে।

ওজন কমাতে সহায়তা করেঃ

Source

  1. ওজন কমাতে সহায়তা করে (Helps to lose weight) 

এই ফলটি নিয়মিত ব্যায়াম, সুস্থ খাদ্য সঙ্গে ওজন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। অ্যাভোকাডো এমন একটি ফল যা দেহে পুষ্টি সরবরাহ করে এবং ওজন নিয়ন্ত্রণ রাখতে সহায়তা করে। সুতরাং, যদি আপনি ওজন হ্রাস করার জন্য একটি ডায়েট প্ল্যান তৈরি করেন, তবে আপনাকে অবশ্যই এটি আপনার ডায়েটে ব্যবহার করতে হবে।

দাঁতের জন্য উপকারিঃ

Source

  1. দাঁতের জন্য উপকারি (Beneficial for teeth) 

এই ফলে উপস্থিত অ্যান্টি- ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট দাঁতের ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং মুখের বাজে গন্ধ প্রতিরোধ করে। মুখে দুর্গন্ধ দূর করতে নিয়মিত এই ফলটি খাওয়া উচিত। এছাড়া মুখের ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

চুলে এবং ত্বকের যত্নে

Source

  1. চুলে এবং ত্বকের যত্নে (Hair and skin care)

অ্যাভোকাডো মধ্যে বিদ্যমান পুষ্টি ত্বক সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। এবং ক্ষতি হয়ে যাওয়া ত্বক ভালো করে। অ্যাভোকাডোর মধ্যে উপস্থিত দুটি যৌগ যা বিটা ক্যারোটিন এবং লাইকোপিন যা ত্বক এবং চুল ভালো রাখে।

আরও পড়ুন । দৌড়ানোর পর খাবারঃ দৌড়ানোর পর খাদ্য তালিকা কি কি রাখা উচিত?

অ্যাভোকাডো পুষ্টিগুণের উপকারিতা

Source

অ্যাভোকাডো কীভাবে ব্যবহার করবেন (How to use avocado)

এই ফলটি সকালে খাবারের সাথে খেতে পারেন। সালাডে ব্যবহার করতে পারেন অথবা অ্যাভোকাডো ফ্রেঞ্চ ফ্রাইও তৈরি করে খেতে পারেন। প্যান কেক অ্যাভোকাডো যুক্ত করতে পারেন।

আরও পড়ুন । বিকালে দৌড়ানোর উপকারিতাঃ বিকালে দৌড়ানো সত্যিই কি উপকার?

অ্যাভোকাডো খাওয়ার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

Source

অ্যাভোকাডো খাওয়ার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া (Side effects of eating avocado) 

অ্যালার্জি থাকলে অ্যাভোকাডো ফল থেকে দূরে থাকা ভালো কারণ এতে অ্যালার্জির সমস্যা বেড়ে যেতে পারে। এছাড়া এটি কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয় তাই বেশি খাওয়া ভালো নয়।

আরও পড়ুন । স্বাস্থ্যের উপর সিগারেটের ক্ষতিকারক প্রভাব

Key Point: আরথ্রাইটিসের জন্য অ্যাভোকাডো প্রচুর কার্যকারী।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

Q. অ্যাভোকাডো নিয়মিত খেলে কোন সমস্যা হবে কি?

A. অ্যাভোকাডো স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারি। অ্যালার্জি না থাকলে আপনি নিয়মিত খেতে পারেন।

Q. অ্যাভোকাডো খেলে ওজন কমানো যায় কি?

A. অ্যাভোকাডো খাওয়ার সঙ্গে ব্যায়াম এবং ডায়েট চার্ট অনুশীলন করতে হবে। তাহলে অনায়াসে ওজন কমানো সম্ভব।

Q. অ্যাভোকাডো সালাডের সাথে খেলে কি উপকার পাওয়া যাবে?

A. হ্যাঁ উপকার পাওয়া যাবে।

Q. এই ফল কি কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয়।

A. হ্যাঁ, কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করতে পারে।

Previous articleবন্ডের প্রকারভেদঃ বন্ড কি এবং তার প্রকারভেদ
Next articleজন্মদিনের কেক খুব সহজেই বানিয়ে নিন ঘরে বসেই
হাই, আমি তিশা সেন। একজন ব্লগ লেখিকা এবং স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ। আমার প্যাশন মানুষের শরীর- স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন করা। মানুষের শরীরের রোগ সংক্রান্ত চিকিৎসা এবং স্বাস্থ্য ভালো রাখার টিপস নিয়ে লেখালেখির কাজ করতে ভালোবাসি। আমার লক্ষ্য রোগের এবং স্বাস্থ্য সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করা। বিভিন্ন ধরণের রোগের চিকিৎসার উপায় জেনে নিজেকে সুস্থ রাখুন এবং নিজের সৌন্দর্যকে বজায় রাখার টিপস জানতে আমাদের এই পেজ অনুসরণ করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here