শীতকালে শুষ্ক ত্বকের যত্ন এর কিছু সহজ উপায় জেনে নিন

শীতকালে শুষ্ক ত্বকের যত্ন এর কিছু সহজ উপায়

শীত মানেই হিমহিম কনকনে ঠাণ্ডা। এই হিমেল হওয়ার জেরে বাতাসের আর্দ্রতা কমে যায়। যার ফলে ত্বক রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে ওঠে। যাদের ড্রাই স্কিন তারা তো খুব সমস্যায় পড়েনই সঙ্গে তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীরাও সমস্যায় ভোগেন। কারন শীতের হিমের পরশে অয়েলি স্কিনও ড্রাই হতে শুরু করে। তাই এই শীতে শুষ্ক ত্বকের যত্ন এ চাই বাড়তি সতর্কতা।

শীতে ময়শ্চারাইজারের অভাবে, ত্বক শুষ্ক ও খসখসে হয়ে পড়ে। নামি-দামি ক্রিম মেখেও ঠিকমতো সমাধান পাওয়া যায় না। তাই প্রয়োজন বাড়তি যত্ন। শীতে আপনার শুষ্ক ত্বকের যত্ন রাখার জন্য কিছু উপায় দেওয়া হল-

শীতকালে শুষ্ক ত্বকের যত্ন এর কিছু সহজ উপায়

শীতকালে শুষ্ক ত্বকের যত্ন এর কিছু সহজ উপায়

  • পর্যাপ্ত পরিমাণ জল পান করুনঃ

শীতকালে ত্বককে ড্রি-হাইড্রেড হতে দেওয়া একদমই উচিত না। এর থেকে মুক্তি পেতে প্রচুর পরিমাণে জল পান করবেন। প্রতিদিন ৪-৫ লিটার জল পান করুন। শুষ্ক ত্বকের হাত থেকে রেহাই পাবেন।

  • ডাবের জল খানঃ

ডাবের জল পেটের পক্ষে যেমন উপকার ঠিক তেমনই ত্বকের জন্যও খুব উপকারি। এই জল শরীরকে ঠাণ্ডা রাখার পাশাপাশি ত্বককে ময়শ্চারাইজিং করে রাখে। রুক্ষতা দূর করে ত্বককে গ্লোয়িং করে রাখে।

  • অলিভ অয়েল মাসাজ করুনঃ

অলিভ অয়েলে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। যা ত্বককে শুষ্কতার হাত থেকে রেহাই দিয়ে প্রানবন্ত করে তোলে। প্রতিদিন স্নানের পরে পুরো শরীরে এই অয়েল মাসাজ করলে আপনার ত্বক মসৃণ থাকবে।

সম্পর্কিত নিবন্ধ চেক করুন :-

 

অ্যালোভেরা:

  • অ্যালোভেরা:

অ্যালোভেরা গাছ হল একটি ভেষজ উদ্ভিদ। অ্যালোভেরা জেল চুলের ও ত্বকের পক্ষে খুব কার্যকারী। শীতে শুষ্কতার হাত থেকে সুরক্ষা তো দেয়ই সঙ্গে ত্বকের ইনফেকশান, জ্বালাভাব দূর করতে সক্ষম। এই জেল, মধুর সঙ্গে মিশিয়ে ১০ মিনিট মুখে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

  • কমলালেবুর রসঃ

কমলালেবুতে রয়েছে ভিটামিন সি। শুষ্ক ত্বকের যত্ন এ একটি কার্যকারী উপাদান। শুষ্ক ত্বক থেকে রেহাই পেতে শীতকালে নিয়মিত লেবুর রস খান।

এছাড়াও দুধের সরের সঙ্গে কমলালেবুর খোসা বেটে মুখে লাগালে ময়শ্চারাইজারের কাজ করবে।

ডার্ক চকলেটঃ

  • ডার্ক চকলেটঃ

চকলেটে উপস্থিত ক্যাফাইন ত্বকের ঔজ্জ্বলতা ফেরাতে সক্ষম। চকলেটের ফ্যাট ত্বককে ময়শ্চারাইজিং করে।

ডার্ক চকলেট গলিয়ে হালকা গরম করে নিন। এবার এই চকলেটে কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে ফেশ প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি পুরো মুখে ও ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ময়শ্চারাইজার ক্রিম লাগিয়ে নেবেন।

গুরুত্বপূর্ণ নোটস

খেয়াল রাখবেল এই প্যাকটি যাতে চোখের নীচে না লাগে।

মধু ও দুধের সরঃ

  • মধু দুধের সরঃ

মধু ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখে। দুধের সরের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। ১০-১৫ মিনিট বাদে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলবেন।

  • আমন্ড অয়েলঃ

ভিটামিন সি শুষ্ক ত্বকে ঔজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে। আমন্ড অয়েলে রয়েছে ভিটামিন সি, শীতে শুষ্কতার হাত থেকে রেহাই দেয়। কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল ও মধু মিশিয়ে, প্যাকটি পুরো গলা ও মুখে লাগিয়ে নিন। ২০-২৫ মিনিট পরে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

  • গরম জলে স্নান এড়িয়ে চলুনঃ

শীতে দেহকে উষ্ণ রাখতে সাধারণত গরম জলে স্নান করে থাকি। কিন্তু জানেন কি, গরম জল আপনার দেহকে উষ্ণ করবে ঠিকই, তবে ত্বককে রুক্ষ করে দেয়। তাই শীতে গরম জল এড়িয়ে চলাই ভালো।

এই পদ্ধতিগুলি অবলম্বনে শীতকালে ত্বক সতেজ থাকবে। তাই ট্রাই করে দেখতেই পারেন।

সারকথাঃ

শীতে স্বাস্থ্যের সঙ্গে, ত্বকটা সুন্দর ও মোলায়ম রাখা দরকার। ত্বক প্রাণবন্ত থাকলে স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

শুষ্ক ত্বকের যত্ন এর জন্য কিছু টিপস

  • শীতে বেশি করে শাক সব্জি ও ফল খাবেন।
  • স্নানের জন্য গরম জল এড়িয়ে চলুন।
  • অ্যাভোকাডো ত্বককে কোমল ও নরম রাখে। অ্যাভোকাডো ও মধুর প্যাক বানাতে পারেন।
  • রোদে বেড়ানোর আগে সান্সক্রিম ব্যবহার করবেন।
  • ময়শ্চায়রাইজার ক্রিম ব্যবহার করুন।
  • ১০-১২ গ্লাস জল খাওয়ার অভ্যাস করুন।
  • কমলালেবু বেশি করে খাবেন।
  • পুষ্টিকর খাবার খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here