গরমের দাবদাহে শরীর সুস্থ রাখতে ডাবের জল

ডাবের জল

গ্রীষ্মকাল প্রায় হাজির। তীব্র গরমের দাবদাহে আমাদের অবস্থা হয় নাজেহাল। আর এই গরমে দিনে বাইরে থেকে আসার পর যদি একটু ঠাণ্ডা পানীয় পান করা যায় তাহলে মনটা শান্তি মেলে। আর সেটা যদি হয় ডাবের জল তাহলে তো কথাই নেই

নিয়মিত যদি ডাবের জল খেতে পারেন, তাহলে শরীরের সমস্ত ক্লান্তি দূর তো হবেই পাশাপাশি দেহ ঠাণ্ডা থাকবে। ডাবের জল শুধু কিন্তু স্বাস্থ্যই নয় বরং ত্বক গ্লোয়িং করতে অসাধারণ

ডাবের জল আমরা সবাই খেয়েই থাকি কিন্তু এর উপকারিতার কথা অজানা। তাই এই নিবন্ধটি থেকে আজ জেনে নিন ডাবের জল খাওয়ার উপকারিতা ও ত্বকে সুন্দর রাখতে ডাবের জল ব্যবহারের টিপস।

ডাবের জল

Source

ডাবের জল (Coconut Water)

ডাবের জলে কোনও রাসায়নিক নেই, তাই স্বাস্থ্যের দিক থেকে এটি ভাল। শরীর শীতল এবং সতেজ রাখার জন্য ডাবের জলের চেয়ে ভাল আর কিছু নয়। ডাবের জল অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট, মিনারেলস, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিনস, পটাশিয়াম আরও পুষ্টিগুণে ভরপুর। পানীয়গুলির মধ্যে গরমকালে ডাবের চাহিদা প্রচুর

ডাবের জলে কি কি পুষ্টি আছে (What Are The Nutrients In Coconut Water)

এই ঠাণ্ডা পানীয়টিতে ৯৪ শতাংশ জল এবং খুব কম পরিমাণে ফ্যাট রয়েছে । ডাবের জলে পুষ্টিগুণ রয়েছে-

  1. ফাইবার (এক কাপ ডাবের জলে ফাইবার ৩ গ্রাম)
  2. প্রোটিন  (এক কাপ ডাবের জলে প্রোটিন রয়েছে ২ গ্রাম)
  3. ক্যালরি (এক কাপ ডাবের জলে ৪৬ ক্যালরি)
  4. ম্যাগনেসিয়াম (এক কাপ ডাবের জলে ১৫ শতাংশ)
  5. পটাশিয়াম (এক কাপ ডাবের জলে ১৭ শতাংশ) 
  6. ক্যালসিয়াম (এক কাপ ডাবের জলে ৬ শতাংশ) 
  7. ম্যাঙ্গানিজ (এক কাপ ডাবের জলে ১৭ শতাংশ) 
  8. সোডিয়াম (এক কাপ ডাবের জলে ১১ শতাংশ) 
  9. ভিটামিন সি (এক কাপ ডাবের জলে ১০ শতাংশ) 

ডাবের জলের পুষ্টিগুণের উপকারিতা

Source

ডাবের জলের পুষ্টিগুণের উপকারিতা (Nutritional Benefits Of Coconut Water)

  • ফাইবার

ফাইবার আমাদের হজম স্বাস্থ্য এবং নিয়মিত অন্ত্রের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ফাইবার আপনাকে দীর্ঘ সময়ের জন্য পরিপূর্ণ বোধ করতে সহায়তা করে, কোলেস্টেরল উন্নত করতে পারে। এটি রক্তে শর্করার মাত্রা এবং কিছু রোগ প্রতিরোধ করতে পারে। যেমন- ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এবং অন্ত্রের ক্যান্সার।

  • প্রোটিন

প্রোটিন শরীরের ত্বক, চুল, নখখণ্ডি, হাড়, রক্ত এবং কার্টিলেজের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। তাই শরীরের এর প্রয়োজন সবচেয়ে বেশি। এটি মানবদেহের বিকাশে সহায়তা করে। ভাইরাস এবং ব্যাকটেরিয়া থেকে শরীরকে রক্ষা করে এবং দেহে শর্করা পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে।

  • ক্যালরি

ক্যালোরি মানব স্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজনীয়। ক্যালরি মানুষের দেহে শক্তির উৎস। আমরা খাবার থেকে ক্যালোরি নিয়ে থাকি।

  • ম্যাগনেসিয়াম

এটি স্বাভাবিক স্নায়ু এবং পেশীর ক্রিয়া বজায় রাখতে সহায়তা করে, এটি স্বাস্থ্যকর প্রতিরোধ সিস্টেম রক্ষা করে এবং হার্টবিট স্থির রাখে এবং হাড়কে শক্তিশালী রাখতে সহায়তা করে। এটি রক্তে গ্লুকোজ স্তরগুলি সামঞ্জস্য করতে সহায়তা করে।

  • পটাশিয়াম – 

পটাসিয়াম রক্তচাপ, কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য, হাড়ের শক্তি এবং পেশী শক্তিশালী করে।

  • ক্যালসিয়াম

ক্যালসিয়াম দেহের মাংসপেশি এবং হাড় এবং দাঁত মজবুত করে। ক্যালসিয়াম স্বাভাবিক রক্ত ​​জমাট বাঁধার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

  • ম্যাঙ্গানিজ

ম্যাঙ্গানিজ এমন একটি খনিজ যা কোনও ব্যক্তির দেহে স্বল্প পরিমাণে প্রয়োজন। মানুষের হাড় গঠনের স্বাভাবিক বিকাশের জন্য ম্যাঙ্গানিজ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এছাড়া কোনও ব্যক্তির শরীরে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে এবং এটি ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সহায়তা করে

  • সোডিয়াম – 

সোডিয়াম আমাদের দেহে অ্যাসিড এবং ক্ষারীয় অবস্থার ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে। আমাদের দেহে সঠিক পানির ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে। হৃদস্পন্দনকে স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে

  • ভিটামিন সি –

ভিটামিন সি অনেক অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির মধ্যে একটি। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টগুলি হ’ল পুষ্টিকর উপাদান যা ফ্রি র‍্যাডিক্যাল ফলে ক্ষতির রক্ষা করে। প্রতিদিন ভিটামিন সি শরীরকে রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুন |  এই ৬ টি গরমের ফল আপনার ডায়েটে যোগ করুন

স্বাস্থ্যের যত্নে ডাবের জল খাওয়ার উপকারিতা (Benefits of Drinking Coconut Water In Health Care)

গরমকালে নিয়মিত ডাবের জল শরীর ঠাণ্ডা রাখে পাশাপাশি পেটের সমস্যা দূর করে। এছাড়াও এর অনেক উপকারিতা রয়েছে।

কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের উন্নতিঃ

Source

1. কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের উন্নতিঃ

আমরা সবাই একটি সুস্থ হৃদয় অধিকারী হওয়ার প্রত্যাশা করি। কিন্তু তার জন্য আমাদের ছোট থেকেই প্রয়োজন পুষ্টিকর খাবার এবং নিয়মিত ব্যায়াম । তবে, আজ থেকে তার সঙ্গে ডাবের জল যুক্ত করতে পারেন । গবেষণায় দেখা গেছে, কচি ডাবের জল হার্ট অ্যাটাক, নিম্ন রক্তচাপ, এবং উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি হ্রাস করতে সক্ষম।

নোটসঃ

ডাবের জলে কম ক্যালরি থাকলেও একটি ডাবে চিনির পরিমাণ থাকে প্রায় ৫ গ্রাম । এর জন্য এক কাপ অথবা দুই কাপ করে পান করাই ভালো । মাত্রাতিরিক্ত নয় ।

কিডনির কার্যক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করেঃ

Source

2. কিডনির কার্যক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করেঃ

কিডনির পাথর হওয়া রোধ করতে নিয়মিত ডাবের জল ভালো ঔষধ। ডাবের জলে ম্যাগনেসিয়াম এবং পটাশিয়াম বিদ্যমান। যার ফলে নিয়মিত ডাবের জল পানের মাধ্যমে কিডনির কার্যক্ষমতা বাড়ানো সম্ভব। তাছাড়াও ডাবের জল পান শরীরের টক্সিন ইউরিনের সঙ্গে বেরিয়ে যায় এবং কিডনি ক্ষতি হওয়া থেকে প্রতিরোধ করে।

রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রন রাখেঃ

Source

3. রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রন রাখেঃ

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রন রাখতে ডাবের জল অসাধারণ। একটি স্টাডিজে প্রমাণিত, যাদের উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে, তাদের জন্য নিয়মিত এক কাপ ডাবের জল সিস্টোলিক রক্তচাপ উন্নতি করে। অন্যদিকে, যাদের নিম্ন রক্তচাপ, ডাবের জলে ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম এবং ভিটামিন “সি” থাকার কারনে তাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে আনতে সহায়তা করে।

সারকথাঃ

পটাশিয়াম রক্তচাপ বাড়তে বাধা দেয়।

শরীরকে হাইড্রেট রাখেঃ

Source

4. শরীরকে হাইড্রেট রাখেঃ

আমাদের শরীরে জলের ঘাটতি হলে অথবা শরীর থেকে কোন কারণে অতিরিক্ত জল বেরিয়ে গেলে ডিহাইড্রেশনের মতো সমস্যা দেখা যায়। ডাবের জল আমাদের শরীরে জলের অভাব পূরণ করে পাশাপাশি শরীরে এনার্জি শক্তি বাড়িয়ে তোলে।

ত্বক গ্লোয়িং করে তোলে

Source

আরও পড়ুন | স্বাস্থ্য এবং রূপচর্চায় মধুর উপকারিতা ও ব্যবহার

5. ত্বক গ্লোয়িং করে তোলেঃ

হয়তো এটা এখন আর কারো অজানা নয় যে নিয়মিত ডাবের জল পান করলে ত্বক ধীরে ধীরে গ্লোয়িং হতে শুরু করে । আর এটা সম্ভব ডাবের জলে অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য থাকার জন্য। এটি ভেতর থেকে ত্বককে করে তোলে তরতাজা এবং উজ্জ্বল। এছাড়া ত্বকে ডাবের জল ব্যবহার করে গ্লোয়িং ভাব আসে।

শরীর ঠাণ্ডা রাখেঃ

6. শরীর ঠাণ্ডা রাখেঃ

শরীর গরম হয়ে গেলে নানা রকম সমস্যা হতে পারে। পেতে ব্যথা, গ্যাস্ট্রিক ইত্যাদি। ডাবের জল শরীর ভেতর থেকে ঠাণ্ডা রাখে। অনেক সময় বাড়ির বড়োদের মুখে শোনা যায়, শরীর অসুস্থ বোধ করলে ডাবের জল খাওয়ানোর কথা।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়ঃ

Source

7. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়ঃ 

যে কোন ধরণের রোগ থেকে সুস্থ হতে গেলে মানসিক জোর দরকার রোগ প্রতিরোধ করার জন্য। ডাবের জল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই নিয়মিত এক কাপ ডাবের জল খান এবং সুস্থ থাকুন।

আরও পড়ুন | স্বাস্থ্যের জন্য কমলালেবুর রসের উপকারিতা

ত্বকের যত্নে ডাবের জল ব্যবহার করার টিপস (Tips For Using Coconut Water In Skin Care)

ত্বকের সৌন্দর্যচর্চায় ডাবের জল অসাধারণ কার্যকর। ডাবের জলের সঙ্গে প্রাকৃতিক কিছু উপাদানে ঘরে বসেই করে নিতে পারবেন রূপচর্চা। নীচে আপনাদের জন্য ঘরোয়া টিপস রইল-

  • ডাবের জল মধু সঙ্গে মিশিয়ে লাগালে ত্বকে গ্লো ফিরে আসে। ১০-১৫ মিনিট বাদে ধুয়ে নেবেন।
  • ডাবের জল সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বক ময়শ্চারাইজ থাকে। ১০ মিনিট পর ঠাণ্ডা জলে পরিষ্কার করে নেবেন।
  • ডাবের জল সঙ্গে দুধ মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। ১০-১৫ মিনিট বাদে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলবেন।

ডাবের জল কোন সময়  পান করলে বেশি উপকার পাওয়া যায়

Source

ডাবের জল কোন সময়  পান করলে বেশি উপকার পাওয়া যায় (When Time Is More Beneficial For Drinking Coconut Water)

সকালে খালি পেটে ডাবের জল খেলে দেহে শক্তি সরবরাহ হয় এবং পুরো দিন এনার্জি পাওয়া যায়। ওয়ার্কআউট করার আগে বা পরে খাওয়া ভালো কারন শরীর হাইড্রেট রাখে। এবং আপনি খাওয়ার আগে অথবা পরে খেতে পারেন। সুতরাং, যদি আপনি ওজন হ্রাস করতে চান, তা খাবারের পান করুণ যাতে খিদে কম পায় এবং ওজন কমাতে সহায়তা করবে।

আরও পড়ুন | স্বাস্থ্যের জন্য আনারসের উপকারিতা

ডাবের জলের সাইড এফেক্ট

Source

ডাবের জলের সাইড এফেক্ট (Side Effects Of Coconut Water)

 ডাবের জলে কিছু সাইড এফেক্ট হতে পারে। যেমন-

  • কিছু লোক ডাবের জল পান করে অ্যালার্জি হতে পারে।
  • কিছু লোকের মধ্যে ডায়াবেটিসের মাত্রা বাড়তে পারে।
  • ডাবের জল অতিরিক্ত গ্রহণের ফলে পেটে ফোলাভাব হতে পারে।
  • বেশি পরিমাণে পান করা ডায়রিয়ার কারণ হতে পারে।

আরও পড়ুন | শসার রসের উপকারিতাঃ শসার রসের জাদুকারী গুনাগুণ

তাহলে দেখলেন ডাবের জল অথবা কচি ডাবের জলের উপকারিতা প্রচুর। যদি এটি সঠিক পরিমাণে এবং সঠিক সময়ে খাওয়া হয় তবে ডাবের জলের গুনাগুণ আপনার জন্য অমৃত হিসাবে কাজ করতে পারে।

সারকথাঃ

গবেষণায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত ডাবের জল খায় তাদের রোগব্যাধি কম হয় তাদের তুলনায়, যারা ডাবের জল নিয়মিত খান না ।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

Q. ত্বক গ্লো করতে ডাবের জল নিয়মিত কটা খেতে হবে?

A. প্রতিদিন ১ কাপ ডাবের জল খাওয়া উপকার।

Q. ডাবের জল ডায়াবেটিসের মাত্রা বাড়ে?

A. অতিরিক্ত মাত্রায় ডাবের জল খেলে বাড়তে পারে।

Q. ডাবের জল খেলে অ্যালার্জি কি বাড়তে পারে?

A. কিছু লোকের ডাবের জলে অ্যালার্জি বাড়ে।

Q. ডাবের জল খেলে কি উপকার পাওয়া যায়।

A. নিয়মিত ডাবের জল খেলে শরীরে জলের অভাব হয় না এবং শরীর ঠাণ্ডা থাকে।

1 COMMENT

  1. Like!! I blog frequently and I really thank you for your content. The article has truly peaked my interest.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here