প্রাকৃতিক উপাদানেই রয়েছে ত্বকের বলিরেখা দূর করার উপায়

বলিরেখা দূর করার উপায়

বলিরেখা দূর করার উপায়

সূত্র :- hindustantimes . com

দেখতে দেখতে এক একটি বছর শেষ হয়ে যাচ্ছে। সঙ্গে পাশাপাশি বেড়ে চলচ্ছে মানুষের বয়স। বিশেষ করে নারীদের কথা বলি তাদের বয়সের সঙ্গে সঙ্গে চেহারার পরিবর্তন হয়। ১৫-১৬ বছর থেকে প্রায় প্রত্যেকটি নারী তার সৌন্দর্য নিয়ে সচেতন হয়ে যান। এবং সৌন্দর্য ধরে রাখতে অনেক পরিশ্রম করেন। ত্বকের পরিচর্যা করেন। তবে বয়সের সাথে সাথে আমাদের ত্বকের সৌন্দর্যের ফিকে পড়ে যায়। হ্যা তবে এখন বয়স বাড়লেও মহিলারা নিজেদের সৌন্দর্য বজায় রাখে। বয়স তো আমাদের বাড়বেই তাকে তো ধরে রাখতে পারবনা। তবে বয়সের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের ত্বকে যে বলিরেখা পড়ে, সেই বলিরেখা দূর করার উপায় তো আমরা বার করতেই পারি।

বলিরেখা হল কপালে গালে, চোখের চারপাশে ভাঁজ পড়া। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই ভাঁজ পড়তে দেখা যায় আবার অনেকের কম বয়সেও বলিরেখা পড়ে। কম বয়সে বলিরেখা বিভিন্ন কারনের জন্য হতে পারে কখনো অতিরিক্ত চাপ, রাতে ঘুম না হওয়া, ধূমপান ইত্যাদির কারণে আবার কখনো কোলাজেনের উৎপাদন কমে আমাদের স্কিনে ইলাস্টিসিটি কমে যায় যার ফলে বলিরেখা পড়তে দেখা যায়। তবে আমরা পরিশ্রম করলেই ত্বকের বলিরেখা পড়া দূর করতে পারি। তার জন্য দামি কসমেটিকের দরকার নেই প্রাকৃতিক উপাদানেই বলিরেখা দূর করার জাদু রয়েছে। কীভাবে ভাবছেন? তাহলে দেখে নিন আজকের এই নিবন্ধটি থেকে। আজকের এই নিবন্ধে বলিরেখা দূর করার উপায় আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করলাম।

আরও পড়ুনঃ রূপচর্চায় লেবু ব্যবহারে দেখে নিন কত উপকার

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের বলিরেখা দূর করার উপায়

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের বলিরেখা দূর করার উপায়

বলিরেখা পড়লে কিছু প্রাকৃতিক উপাদানের মাধ্যমেই খুব সহজেই আপনি ত্বকের বলিরেখা রিমুভ করতে পারবেন। এখানে দেওয়া টোটকাগুলি ত্বকের বলিরেখা থেকে রেহাই দেবে। নীচে বলিরেখা দূর করার উপায় রইল-

  1. বলিরেখা দূর করতে জোজোবা অয়েলঃ

বলিরেখা দূর করতে জোজোবা অয়েলঃ

ত্বকের বলিরেখা দূর করতে রাতে ঘুমানোর আগে কয়েক ফোঁটা জোজোবা অয়েল হাতে নিয়ে বলিরেখা পড়া অংশে মাসাজ করুন আঙ্গুল দিয়ে। ১৫-২০ মিনিট পর হালকা উষ্ণ গরম জলে পরিষ্কার করে নিন।

সারকথাঃ

জোজোবা অয়েলে ভিটামিন ই গুণাগুণ রয়েছে যা ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সহায়তা করে। এছাড়াও জোজোবা অয়েলে একরকম উপাদান রয়েছে যা বার্ধক্য বৃদ্ধি প্রভাবকে কমাতে পারে।

আরও পড়ুনঃ জেনে নিন ঘরোয়া পদ্ধতিতে রূপচর্চা অসাধারণ টিপস

  1. বলিরেখা দূর করতে বাদাম তেলঃ

বলিরেখা দূর করতে বাদাম তেলঃ

সূত্র :- keralaspicesonline . com

নিয়মিত রাতে শোয়ার আগে বাদাম তেল নিয়ে ভাঁজ পড়া অংশে যেমন কপালের ভাঁজে মাসাজ করুন ৪-৫ মিনিট। সকালে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নেবেন।

সারকথাঃ

বাদাম তেল ত্বক সফট করে এবং ত্বকে বলিরেখা পড়া দূর করে ত্বকে তারুণ্য বজায় রাখে। এর ফলে বাদাম তেল ত্বক হাইড্রেট রাখতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুনঃ ছেলেদের পায়ের যত্নঃ পুরুষদের পায়ের যত্নের টিপস

  1. বলিরেখা দূর করতে এলোভেরা জেলঃ

বলিরেখা দূর করতে এলোভেরা জেলঃ

একটি ডিমের সাদা অংশে দুই চামচ এলোভেরা জেল মিশিয়ে নিন ভালোভাবে। এবার বলিরেখা আক্রান্ত অংশে এই মিশ্রণটি লাগিয়ে রাখুন। ১০-১৫ মিনিট বাদে হালকা উষ্ণ গরম জলে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করলে বলিরেখা দূর হবে।

সারকথাঃ

এলোভেরা এবং ডিমের সাদা অংশ ভিটামিন ই এর ভালো উৎস। যা ত্নক তরুণ রাখে। এছাড়াও এলোভেরা অ্যান্টি অক্সিডেন্টের বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা বলিরেখা দূর করতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুনঃ চুল এবং ত্বকের যত্নে মেথি ব্যবহারের উপকারিতা

  1. বলিরেখা দূর করতে লেবুর রসঃ

বলিরেখা দূর করতে লেবুর রসঃ

ত্বকের বলিরেখা রিমুভ করতে লেবুর রসের মধ্যে সামান্য পরিমাণ জল মেশান। এবার তুলোর বলের সাহায্য এই মিশ্রণটি নিয়ে বলিরেখা অংশে লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পর ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নিন। নিয়মিত একবার প্রক্রিয়াটি প্রয়োগ করলে উপকৃত হবেন। আপনি চাইলে লেবুর পরিবর্তে যেকোনো সাইট্রাস ব্যবহার করতে পারেন।

সারকথাঃ

লেবু বা কমলালেবু ভিটামিন সি এবং ই সমৃদ্ধ, যা আমাদের ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি। এটি ত্বকের কোষ শক্তিশালী করে কোলাজেনের উৎপাদন কম হতে বাধা দেয়।

আরও পড়ুনঃ ভেষজ চিকিৎসাঃ শুষ্ক ত্বকের জন্য ৬ টি ভেষজ চিকিৎসা

  1. বলিরেখা দূর করতে খাঁটি নারিকেল তেলঃ

বলিরেখা দূর করতে খাঁটি নারিকেল তেলঃ

আমাদের ত্বকের ফ্রি রেডিকেল জমা হয় এবং বলিরেখার সৃষ্টি করে। নারিকেল তেলে অ্যান্টি আক্সিডেন্টের গুন রয়েছে যা ত্বকের ফ্রি রেডিকেলস সরিয়ে ত্বক সুরক্ষিত রাখে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে নারিকেল তেল কয়েক ফোঁটা হাতে নিয়ে কিছুক্ষণের জন্য বলিরেখা অংশে হালকা মাসাজ করুন। নারিকেল তেল বলিরেখা দূর করার উপায় অন্যতম।

সারকথাঃ

নারকেল তেল আমাদের ত্বককে ময়শ্চারাইজ করে রাখে।

  1. বলিরেখা কমাতে জলপাই তেলের মাসাজঃ

বলিরেখা কমাতে জলপাই তেলের মাসাজঃ

জলপাইয়ের তেল গরম করে ১০ মিনিট উষ্ণ তেল বলিরেখা অংশে মাসাজ করুন। আঙ্গুল ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ভালোভাবে মাসাজ করে নিন। আপনি জলপাইয়ের তেলের সঙ্গে নারকেল তেল মিশিয়ে নিতে পারেন। এই জলপাইয়ের মাসাজ দিনে এক থেকে দুবার করলে উপকৃত হবেন।

সারকথাঃ

জলপাইয়ের তেলের সঙ্গে নারকেল তেল মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে ভালো ময়শ্চারাইজারের কাজ করে যা ত্বক হাইড্রেট রাখে। এই তেলের মাসাজে টিস্যুগুলি উন্নত হয়।

আরও পড়ুনঃ শসার পুষ্টিগুণ : শসার গুণাগুণ জানলে অবাক হবেন

বলিরেখা দূর করার উপায় জেনে গেলেন। তাহলে বয়স পড়ার সাথে সাথে বলিরেখা দূর করতে এই টোটকাগুলি অনুশীলন করুন আশা করি এক মাসের মধ্যে ভালো ফল পাবেন।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

প্রঃ বলিরেখা কেন হয়?

উঃ বলিরেখা বিভিন্ন কারনের জন্য হয় ঘুম কম হওয়া, জল কম খাওয়া, অতিরিক্ত ধূমপান, অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে বলিরেখা পড়ে।

প্রঃ বলিরেখা কোন বয়সে থেকে দেখা যায়?

উঃ বলিরেখা সাধারণত ২০ থেকে ৫০ বছর বছরের মধ্যে বলিরেখা পড়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here