১০ টি আশ্চর্যজনক কলার খোসার উপকারিতা

কলা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি তা আমরা জানি। কলা খেয়ে আমরা খোসাটা ফেলে দিই। তবে আপনি জানেন কি কলার খোসার উপকারিতা কত? কলার পাশাপাশি কলার খোসার অনেক গুণ রয়েছে। কলার খোসার মধ্যে ভিন্ন ধরণের পুষ্টি বিদ্যমান। কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন বি -6, বি -১২, ম্যাগনিশিয়াম, অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়ামের মতো উপাদান রয়েছে যা মেটাবলিজম বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে। Table of Contents 1. কলার খোসার ১০টি অসাধারণ গুণাবলী 1.1. মাথা ব্যথা নিরাময় 1.2. বেদনা নিরাময় 1.3. ব্রণ দূরে রাখতে 1.4. দাঁত ঝলমল রাখতে 1.5. ত্বকের বলিরেখা দূর 1.6. ইউভি (UV) রশ্মি থেকে সুরক্ষা 1.7. জ্বালা কম করতে কলার খোসা 1.8. আঁচিল দূর করতে সহায়তা করতে পারে 1.9. সোরিয়াসিস নিরাময় 1.10. জুতো, লেদার এবং সিলভার পলিশ করতে কলার খোসার এমন অনেক সুবিধা রয়েছে যা জানলে অবাক হবেন। আপনি যদি কলার খোসার উপকারিতা না জেনে থাকেন তাহলে আজকেই এই নিবন্ধটি আপনার জন্য। আজকের এই নিবন্ধে আমরা কলা নয় বরং কলার খোসার উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করব। তাহলে চলুন জেনে নিই কলার অসাধারণ কিছু খোসার গুণাবলী। আরও পড়ুনঃ স্বাস্থ্য ভালো রাখতে মিষ্টি আলুর গুণ জানলে অবাক হবেন কলার খোসার ১০টি অসাধারণ গুণাবলীঃ মাথা ব্যথা নিরাময়ে কলার খোসার উপকারিতা :- আমরা হয়তো অনেকেই এটা জানি না মাথা ব্যথার কমাতে কলার খোসা দারুন কাজ করে। অনেক বিশেষজ্ঞদের মতে কলার খোসা পেস্ট করে মাথায় ১০-১৫ মিনিট মতো লাগিয়ে রেখে দিলে মাথা ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এর কারণ কলার খোসার উপস্থিত ম্যাগনেসিয়াম ধমনীতে গিয়ে মাথা ব্যথা রোধ করতে সহায়তা করে। Key point প্রকৃতপক্ষে রক্তের ধমনীতে উদ্বেগ সৃষ্টি হওয়ার কারণে মাথা ব্যথা হয়। বেদনা নিরাময়ে কলার খোসার উপকারিতা :- কলার খোসা শরীরের কোন অংশে ব্যথা নিরাময়ে সহায়ক। শরীরের কোন অংশে ব্যথা হলে সেখানে কলার খোসা পেস্ট করে ৩০ মিনিটের জন্য লাগিয়ে রাখলে আরাম পাওয়া যায়। আরও পড়ুনঃ সবুজ আপেলের উপকারিতা জেনে নিন ব্রণ দূরে রাখতে পারে কলার খোসা :- ব্রণ দূর করতে চান তাহলে প্রতিদিন অন্তত ৫ মিনিট আপনার মুখে এবং বডিতে কলার খোসা মাসাজ করুন। যতক্ষণ না পর্যন্ত ব্রণ দূর হয় নিয়মিত আপ্লাই করুন। এক সপ্তাহের মধ্যে ব্রণ অদৃশ্য হয়ে যাবে। দাঁত ঝলমল রাখতে কলার খোসার উপকারিতা :- দাঁত ঝলমল এবং সাদা করতে এক সপ্তাহ নিয়মিত কলার খোসা দাঁতে ঘষুন। এক সপ্তাহে পার্থক্য বুঝতে পারবেন। কলার খোসা উপস্থিত পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ উপাদানগুলি দাঁতের হলুদ ভাব দূর করে। আরও পড়ুনঃ চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার উপায় ত্বকের বলিরেখা দূর করতে কলার খোসার উপকারিতা :- কলার খোসা আপনার ত্বককে হাইড্রেটেড রাখতে সহায়তা করে। ত্বকের বলিরেখা দূর করতে কলার খোসা পেস্ট করে ডিমের কুসুমের সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ৫ মিনিটের জন্য রেখে দিন। ৫ মিনিট পরে ধুয়ে নিন। এতে ত্বকের বলিরেখা দূর হবে এবং ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল। Key point ত্বকের খোসা জলে লাগালে ত্বকের জলের অভাব দূর হয়। ইউভি (UV) রশ্মি থেকে সুরক্ষা পেতে কলার খোসার উপকারিতা :- কলার খোসার মধ্যে লুটেইন নামের একটি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট রয়েছে যা আমাদের চোখকে অতি বেগুনি রশ্মির হাত থেকে সুরক্ষা করতে সহায়তা করে। তাছাড়া আপনি যদি খুব ক্লান্ত বোধ করেন তাহলে কলার খোসা কিছুক্ষণের জন্য চোখের উপর রাখুন, আরাম বোধ করবেন। Key point কলার খোসা চোখের ছানি পড়ার ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে। আরও পড়ুনঃ চুলের যত্নে আপেল সাইডার ভিনিগার জ্বালা কম করতে কলার খোসা :- কোন পোকামাকড় কামড়ালে সেই যায়গায় বেদনা হয়, ফুলে যায় এবং জ্বালা করে। সেই জ্বালা এবং বেদনা কমাতে কলার খোসা চমৎকার কাজ করে। কীটপতঙ্গ কামড়ানো অংশে কলার খোসা ঘষলে আরাম জ্বালা কম হয়। কলার খোসা আঁচিল দূর করতে সহায়তা করতে পারে :- কলার খোসা আঁচিল দূর করতে সহায়তা করে। শরীরে আঁচিল দূর করার জন্য, আঁচিল আক্রান্ত অংশে কলার খোসা ঘষুন অথবা সবচেয়ে ভালো উপায় দ্রুত কাজ দেবে যদি আপনি কলার খোসা আঁচিল আক্রান্ত অংশে ভালোভাবে বেঁধে রাতারাতি রেখে দেন। কিছুদিন এই পদ্ধতি অনুশীলন করলে আপনার আঁচিল দূর হতে পারে। সোরিয়াসিস নিরাময় করতে কলার খোসার উপকারিতা :- সোরিয়াসিস আক্রান্ত অংশে কলার খোসা লাগিয়ে রাখুন। কলার খোসায় ময়শ্চারাইজিং বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং ত্বকের চুলকানি হ্রাস করবে। সোরিয়াসিস দ্রুত নিরাময় করতে কলার খোসা চমৎকার কাজ করে। আরও পড়ুনঃ প্রাকৃতিক উপাদানেই রয়েছে ত্বকের বলিরেখা দূর করার উপায় জুতো, লেদার এবং সিলভার পলিশ করতে পারে কলার খোসা :- জুতো, লেদার, সিলভার পলিশ করতে আমাদের হাতের সামনেই রয়েছে দুর্দান্ত উপায়। একটা কলার খোসা নিন এবং জুতো, লেদার অথবা সিলভারের উপর ঘষুন। মুহূর্তে মধ্যে চকচক করবে। Key point কলার মতোই কলার বাইরের অংশ পুষ্টিগুণে ভরপুর। আরও পড়ুনঃ কলার পুষ্টিগুণ এবং স্বাস্থ্যের জন্য কলার উপকারিতা তাহলে দেখলেন তো কলার খোসার উপকারিতা কিন্তু অনেক। তাহলে আশা করি আজ থেকে আর কলা খেয়ে তার খোসা ফেলে দেবেন না। কলার খোসা ব্যবহার করুন উপকার পাবেন। সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ প্রঃ কলার খোসা ত্বকের জন্য কি সত্যিই উপকারি? উঃ কলার ত্বকের ব্রণ এবং বলিরেখা দূর করতে অসাধারণ কার্যকর। প্রঃ কলার খোসা দিয়ে সোনা ঘষলে চকচক হবে? উঃ হ্যাঁ, লেদার, জুতো, সিলাভার এমনকি সোনা ঘষলে চকচক করে।

কলা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি তা আমরা জানি। কলা খেয়ে আমরা খোসাটা ফেলে দিই। তবে আপনি জানেন কি কলার খোসার উপকারিতা কত? কলার পাশাপাশি কলার খোসার অনেক গুণ রয়েছে। কলার খোসার মধ্যে ভিন্ন ধরণের পুষ্টি বিদ্যমান। কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন বি -6, বি -১২, ম্যাগনিশিয়াম, অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়ামের মতো উপাদান রয়েছে যা মেটাবলিজম বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।

কলার খোসা

কলার খোসার এমন অনেক সুবিধা রয়েছে যা জানলে অবাক হবেন। আপনি যদি কলার খোসার উপকারিতা না জেনে থাকেন তাহলে আজকেই এই নিবন্ধটি আপনার জন্য। আজকের এই নিবন্ধে আমরা কলা নয় বরং কলার খোসার উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করব। তাহলে চলুন জেনে নিই কলার অসাধারণ কিছু খোসার গুণাবলী।

আরও পড়ুনঃ স্বাস্থ্য ভালো রাখতে মিষ্টি আলুর গুণ জানলে অবাক হবেন

কলার খোসার ১০টি অসাধারণ গুণাবলীঃ

  1. মাথা ব্যথা নিরাময়ে কলার খোসার উপকারিতা :-

মাথা ব্যথা নিরাময়ে কলার খোসার উপকারিতা

আমরা হয়তো অনেকেই এটা জানি না মাথা ব্যথার কমাতে কলার খোসা দারুন কাজ করে। অনেক বিশেষজ্ঞদের মতে কলার খোসা পেস্ট করে মাথায় ১০-১৫ মিনিট মতো লাগিয়ে রেখে দিলে মাথা ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এর কারণ কলার খোসার উপস্থিত ম্যাগনেসিয়াম ধমনীতে গিয়ে মাথা ব্যথা রোধ করতে সহায়তা করে।

Key point

প্রকৃতপক্ষে রক্তের ধমনীতে উদ্বেগ সৃষ্টি হওয়ার কারণে মাথা ব্যথা হয়।

  1. বেদনা নিরাময়ে কলার খোসার উপকারিতা :-

বেদনা নিরাময়ে কলার খোসার উপকারিতা

কলার খোসা শরীরের কোন অংশে ব্যথা নিরাময়ে সহায়ক। শরীরের কোন অংশে ব্যথা হলে সেখানে কলার খোসা পেস্ট করে ৩০ মিনিটের জন্য লাগিয়ে রাখলে আরাম পাওয়া যায়।

আরও পড়ুনঃ সবুজ আপেলের উপকারিতা জেনে নিন

  1. ব্রণ দূরে রাখতে পারে কলার খোসা :-

ব্রণ দূরে রাখতে পারে কলার খোসা

ব্রণ দূর করতে চান তাহলে প্রতিদিন অন্তত ৫ মিনিট আপনার মুখে এবং বডিতে কলার খোসা মাসাজ করুন। যতক্ষণ না পর্যন্ত ব্রণ দূর হয় নিয়মিত আপ্লাই করুন। এক সপ্তাহের মধ্যে ব্রণ অদৃশ্য হয়ে যাবে।

  1. দাঁত ঝলমল রাখতে কলার খোসার উপকারিতা :-

দাঁত ঝলমল রাখতে কলার খোসার উপকারিতা :

দাঁত ঝলমল এবং সাদা করতে এক সপ্তাহ নিয়মিত কলার খোসা দাঁতে ঘষুন। এক সপ্তাহে পার্থক্য বুঝতে পারবেন। কলার খোসা উপস্থিত পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ উপাদানগুলি দাঁতের হলুদ ভাব দূর করে।

আরও পড়ুনঃ চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার উপায়

  1. ত্বকের বলিরেখা দূর করতে কলার খোসার উপকারিতা :-

ত্বকের বলিরেখা দূর করতে কলার খোসার উপকারিতা

কলার খোসা আপনার ত্বককে হাইড্রেটেড রাখতে সহায়তা করে। ত্বকের বলিরেখা দূর করতে কলার খোসা পেস্ট করে ডিমের কুসুমের সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ৫ মিনিটের জন্য রেখে দিন। ৫ মিনিট পরে ধুয়ে নিন। এতে ত্বকের বলিরেখা দূর হবে এবং ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল।

Key point

ত্বকের খোসা জলে লাগালে ত্বকের জলের অভাব দূর হয়।

  1. ইউভি (UV) রশ্মি থেকে সুরক্ষা পেতে কলার খোসার উপকারিতা :-

ইউভি (UV) রশ্মি থেকে সুরক্ষা পেতে কলার খোসার উপকারিতা

কলার খোসার মধ্যে লুটেইন নামের একটি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট রয়েছে যা আমাদের চোখকে অতি বেগুনি রশ্মির হাত থেকে সুরক্ষা করতে সহায়তা করে। তাছাড়া আপনি যদি খুব ক্লান্ত বোধ করেন তাহলে কলার খোসা কিছুক্ষণের জন্য চোখের উপর রাখুন, আরাম বোধ করবেন।

Key point

কলার খোসা চোখের ছানি পড়ার ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে।

আরও পড়ুনঃ চুলের যত্নে আপেল সাইডার ভিনিগার

  1. জ্বালা কম করতে কলার খোসা :-

জ্বালা কম করতে কলার খোসা

কোন পোকামাকড় কামড়ালে সেই যায়গায় বেদনা হয়, ফুলে যায় এবং জ্বালা করে। সেই জ্বালা এবং বেদনা কমাতে কলার খোসা চমৎকার কাজ করে। কীটপতঙ্গ কামড়ানো অংশে কলার খোসা ঘষলে আরাম জ্বালা কম হয়।

  1. কলার খোসা আঁচিল দূর করতে সহায়তা করতে পারে :-

কলার খোসা আঁচিল দূর করতে সহায়তা করতে পারে :-

কলার খোসা আঁচিল দূর করতে সহায়তা করে শরীরে আঁচিল দূর করার জন্য, আঁচিল আক্রান্ত অংশে কলার খোসা ঘষুন অথবা সবচেয়ে ভালো উপায় দ্রুত কাজ দেবে যদি আপনি কলার খোসা আঁচিল আক্রান্ত অংশে ভালোভাবে বেঁধে রাতারাতি রেখে দেন। কিছুদিন এই পদ্ধতি অনুশীলন করলে আপনার আঁচিল দূর হতে পারে।

  1. সোরিয়াসিস নিরাময় করতে কলার খোসার উপকারিতা :-

সোরিয়াসিস নিরাময় করতে কলার খোসার উপকারিতা

সোরিয়াসিস আক্রান্ত অংশে কলার খোসা লাগিয়ে রাখুন। কলার খোসায় ময়শ্চারাইজিং বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং ত্বকের চুলকানি হ্রাস করবে। সোরিয়াসিস দ্রুত নিরাময় করতে কলার খোসা চমৎকার কাজ করে।

আরও পড়ুনঃ প্রাকৃতিক উপাদানেই রয়েছে ত্বকের বলিরেখা দূর করার উপায়

  1. জুতো, লেদার এবং সিলভার পলিশ করতে পারে কলার খোসা :-

জুতো, লেদার এবং সিলভার পলিশ করতে পারে কলার খোসা

জুতো, লেদার, সিলভার পলিশ করতে আমাদের হাতের সামনেই রয়েছে দুর্দান্ত উপায়। একটা কলার খোসা নিন এবং জুতো, লেদার অথবা সিলভারের উপর ঘষুন। মুহূর্তে মধ্যে চকচক করবে।

Key point

কলার মতোই কলার বাইরের অংশ পুষ্টিগুণে ভরপুর।

আরও পড়ুনঃ কলার পুষ্টিগুণ এবং স্বাস্থ্যের জন্য কলার উপকারিতা

তাহলে দেখলেন তো কলার খোসার উপকারিতা কিন্তু অনেক। তাহলে আশা করি আজ থেকে আর কলা খেয়ে তার খোসা ফেলে দেবেন না। কলার খোসা ব্যবহার করুন উপকার পাবেন।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

প্রঃ কলার খোসা ত্বকের জন্য কি সত্যিই উপকারি?

উঃ কলার ত্বকের ব্রণ এবং বলিরেখা দূর করতে অসাধারণ কার্যকর।

প্রঃ কলার খোসা দিয়ে সোনা ঘষলে চকচক হবে?

উঃ হ্যাঁ, লেদার, জুতো, সিলাভার এমনকি সোনা ঘষলে চকচক করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here