ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স

একঘেয়ে জীবন থেকে মানুষ একটু বিরাম পেতে প্রায় বেরেই পড়েন ভ্রমণের উদ্দেশ্যে। দূর দেশে ভ্রমণ কিছু মানুষের আবার শখ। তবে সবই তো ঠিক আছে কিন্তু আমাদের জীবনের কি নিশ্চয়তা আছে বলুন তো? আমাদের জীবনে যখন তখন ঝুঁকি নেমে আসতে পারে সে বাড়িতে বসেই বলুন আর ভ্রমণে বেরিয়ে। ভ্রমণে বেরিয়ে আমরা তো যেকোনো বিপদের মুখে পড়তেই পারি। যেমন- ব্যাগ চুরি বা ছিনতাই অথবা দুর্ঘটনা আবার অসুস্থ হয়ে যেতে পারি। তাই আপনাদের ভ্রমণ প্রেমীদের কথা ভেবেই বীমা কোম্পানিগুলি ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কভার নিয়ে এসেছে।

ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স

ইনস্যুরেন্স পলিসিতে আপনার ভ্রমণ সম্পর্কিত সমস্ত ঝুঁকির সুরক্ষা দেবে বীমা কোম্পানি। মানে আপনার ভ্রমণ শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত যদি কোন ক্ষতি হয় তার আর্থিক খরচের দায় গ্রহণ করবে বীমা কোম্পানি। তার জন্য তো আপনাকে ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স অথবা ভ্রমণ বীমা পলিসি কিনতে হবে। তবে এই পলিসি কেনার আগে আপনার এই ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স সম্পর্কে সমস্ত তথ্য জেনে রাখা উচিত। আর আজকের এই নিবন্ধ থেকে আপনারা ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।

আসুন তাহলে জেনে নিই ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কি এবং এই ইনস্যুরেন্সের সুবিধা এবং কভারেজ এবং ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্সের প্রকার।

আরও পড়ুনঃ বীমা কি এবং কত ধরণের বীমা রয়েছে

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স অথবা ভ্রমণ বীমা কি?

ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স অথবা ভ্রমণ বীমা কি?

ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স অথবা ভ্রমণ বীমা হল ভ্রমণের ঝুঁকি নিরাপত্তা চুক্তি। যদি কোন ব্যক্তি ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স পলিসি ক্রয় করেন, তাহলে ভ্রমণে যাওয়ার সময় তার কোন ক্ষয়ক্ষতি হলে তার আর্থিক ক্ষতিপূরণ দান করবে বীমা কোম্পানি। অর্থাৎ ধরুন আপনি বিদেশে ভ্রমণে গেছেন আপনার ব্যাগ চুরি হয়ে গেল বা আপনি আহত হলেন তাহলে তার আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি আপনাকে বীমা কোম্পানি প্রদান করবে। পর্যাটকদের জন্য ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স একটি ভালো বীমা চুক্তি।

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কভারঃ

ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স কভারঃ

বীমা প্রদানকারী দ্বারা দেওয়া কভারেজ বিভিন্ন প্রদানকারীর জন্য পরিবর্তিত হয়। নীচে এইগুলি সাধারণত ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কভারের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত হয়।

  • জরুরী চিকিৎসা খরচ
  • ব্যাগ এবং ব্যক্তিগত ডকুমেন্টসের ক্ষতি
  • জরুরী দাঁতের খরচ
  • হাসপাতালে নগদ অনুমোদন
  • দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বা স্থায়ী মোট অক্ষমতা
  • ব্যক্তিগত দায়
  • হাইজ্যাক দুর্যোগ ভাতা
  • দেরিতে ট্রিপ

আরও পড়ুনঃ জীবন বীমা পরিকল্পনা সুবিধা কী ও বীমা পলিসির ধরন

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্সের কত প্রকার?

এই ইনস্যুরেন্স বিভিন্ন বিভাগের অধীনে করা যেতে পারে। আপনি আপনার প্রয়োজন এবং প্রয়োজন অনুযায়ী এটি বাছাই করতে পারেন।

  • শিক্ষার্থীদের ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স (Student Travel Insurance):

শিক্ষার্থীদের ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স

শিক্ষার্থী ভ্রমণ বীমা পরিকল্পনা শিক্ষার্থীদের জন্য চিকিৎসা ও আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। নতুন দেশে পড়তে যাওয়ার সময় কোন চিকিৎসা বা আর্থিক জরুরী অবস্থা জন্য আর্থিক সহায়তা করে বীমা সংস্থা। এটা একমাত্র সেই সব ছাত্রছাত্রীদের জন্য যারা বিদেশে গিয়ে পড়াশুনো করার পরিকল্পনা করছে।

আরও পড়ুনঃ সাধারন বীমা কি এবং এর শ্রেণীবিভাগ

  • ঘরোয়া ভ্রমণ বীমা (Domestic Travel Insurance):

ঘরোয়া ভ্রমণ বীমা

আপনি যদি ভারতের যেকোনো জায়গায় ভ্রমণ করতে পছন্দ করেন, তাহলে এই ভ্রমণ বীমার সুবিধা আপনি উপভোগ করতে পারবেন। এই বীমা পলিসির অধীনে, মেডিক্যালের জন্য ডাক্তারি ও আর্থিক সহায়তা, ব্যাগ চুরি হয়ে যাওয়া, ট্রিপ বাতিল হয়ে যাওয়া অন্তর্ভুক্ত।

  • পারিবারিক ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স (Family Travel Insurance):

পারিবারিক ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স

পারিবারিক ট্রাভেল ইনস্যুরেন্সটি পরিবারের যেকোনো সদস্যের জন্য সরাসরি কেনা যাবে। এই বীমা পলিসি দুর্ঘটনাজনিত খরচ, হাসপাতালের খরচ, এবং ব্যগ চুরি হয়ে যাওয়া ইত্যাদি কভার করে।’

আরও পড়ুনঃ স্বাস্থ্য বীমা কভারেজ

বয়স্ক নাগরিকদের জন্য ভ্রমণ বীমা (Senior Citizen Travel Insurance):

বয়স্ক নাগরিকদের জন্য ভ্রমণ বীমা

এই ভ্রমণ বীমা পলিসি ৬১-৭০ বছর বয়সী মানুষের ভ্রমণের জন্য বীমা পলিসি। এটি চিকিৎসার খরচ, স্বাস্থ্যসেবা ইত্যাদি সুবিধার কভারেজ সরবরাহ করে।

  • গ্রুপ ভ্রমণ বীমা (Group Travel Insurance):

গ্রুপ ভ্রমণ বীমা

আপনি যদি ২০ জন বা তার বেশি লোকজনের গ্রুপ হয় এবং আপনি ভ্রমণে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন। তাহলে আপনি গ্রুপ ভ্রমণ বীমা পলিসি কিনতে পারেন। এটি ভ্রমণ বাতিল, লাগেজ চুরি, চিকিৎসা এবং দেরীতে ভ্রমণ ইত্যাদি কভার করে।

আরও পড়ুনঃ দাঁতের স্বাস্থ্য বীমার সুবিধা

  • এশিয়া ভ্রমণ বীমা (Asia Travel Insurance):

এশিয়া ভ্রমণ বীমা

আপনি যদি এশিয়া দেশে ভ্রমণ করেন, তাহলে আপনি এশিয়া ভ্রমণ বীমা পলিসি কিনতে পারেন। এই পলিসিটির অধীনে আপনার চিকিৎসা এবং অন্যান্য অপ্রত্যাশিত খরচ কভার করা হয়।

  • কাস্টমাইজড ট্রাভেল বীমা (Customised Travel Insurance):

কাস্টমাইজড ট্রাভেল বীমা

কিছু লোক কাস্টমাইজড ভ্রমণ বীমা পরিকল্পনা পছন্দ করেন, কারণ তারা তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী ইনস্যুরেন্স কভারেজ কাস্টমাইজ করতে পারবেন। এই সেবা বিশ্বের নির্দিষ্ট অঞ্চলে কিছু বীমা প্রদানকারী দ্বারা দেওয়া হয়।

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কেনার সুবিধাঃ

ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স কেনার সুবিধাঃ

  • চিকিৎসা খরচঃ

যখন আপনি বিদেশে বা ভারতে ভ্রমণ করছেন। সেখানে অসুস্থতার কারণে হাসপাতালের খরচ ব্যয় হতে পারে। আর ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কভারের মধ্যে আপনি সার্জারি, আহত, হাসপাতালের খরচ অন্তর্ভুক্ত। এতে আপনি ২৪ ঘণ্টা সুবিধা পেতে পারেন।

  • ব্যাগ হারানোঃ

ঘুরতে গেলে দুর্ঘটনা একটি খুব কমন জিনিস। আপনি যদি এই ইনস্যুরেন্স না কিনে থাকেন তাহলে আপনি আপনা লাগেজ সহ মূল্যবান জিনিসপত্র হারিয়ে ফেলতে পারেন। এই ইনস্যুরেন্স পলিসি অনুযায়ী আপনি লাগেজের সমস্ত মূল্যবান জিনিসের আর্থিক পরিমাণ ফেরত পাবেন।

  • ভ্রমণ বাতিলঃ

প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারনের আপনার ভ্রমণ বাতিল হয়ে গেলে আপনার হোটেল বুকিং এবং ট্র্যাভেল বুকিং এর সমস্ত টাকা লস হয়ে যেতে পারে। ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স পলিসিতে আপনার ভ্রমণ বাতিল হলে আপনি সমস্ত টাকা ফেরত পাবেন।

আরও পড়ুনঃ কারবার বা ব্যবসার ক্ষেত্রে বীমার প্রয়োজনীয়তা

Key point

যারা ভ্রমণ প্রেমিক, যারা দেশ বিদেশে যেয়ে থাকেন, তাদের জন্য ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স কেনা প্রয়োজন।’

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

Q.  ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স কেন প্রয়োজন? 

A. ভ্রমণে দুর্ঘটনা ঝুঁকি থেকে নিশ্চয়তা পেতে ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্স প্রয়োজন।

Q. ট্র্যাভেল ইনস্যুরেন্সের মধ্যে কি  কি কভার হয়? 

A. জরুরী চিকিৎসা খরচ, ব্যাগ এবং ব্যক্তিগত ডকুমেন্টসের ক্ষতি খরচ, দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বা স্থায়ী মোট অক্ষমতা, হাইজ্যাক দুর্যোগ ভাতা, দেরিতে ট্রিপ ইত্যাদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here