ডিম্যাট একাউন্ট কি এবং কীভাবে খুলবেন জেনে নিন

ডিম্যাট একাউন্ট কি

শেয়ার বাজার কি আমরা আগেই জেনেছি। কোন শেয়ার বাজারে শেয়ার কেনা বেচা করতে গেলে অথবা সিকিউরিটিজ কেনা বা বেচার জন্য ডিম্যাট একাউন্ট থাকা মাস্ট। শেয়ার বাজার এবং সিকিউরিটিজ সংক্রান্ত বিষয়গুলিতে ডিম্যাট একাউন্টের গুরুত্ব অপরিসীম। ডিম্যাট একাউন্ট সেই সমস্ত একাউন্ট যারা শেয়ার, বন্ডস এবং সিকিউরিটিজগুলি বিনিয়োগ দ্রবগুলি জমা করে রাখে। ডিম্যাট একাউন্ট ব্রোকারদের সঙ্গে খুলতে হয়। ডিম্যাট একাউন্ট স্টকগুলি ডিমেটিরিয়াল ফর্মের মধ্যে থাকে। কিন্তু শেয়ার বাজারে লেনদেন করতে ডিম্যাট একাউন্ট প্রয়োজন কেন? অনেকের ডিম্যাট একাউন্ট সম্পর্কে কৌতূহল দেখা যায়। তাই আজকের এই নিবন্ধনে ডিম্যাট একাউন্ট বিস্তারিত তথ্য আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করব। এছাড়াও এই নিবন্ধটি থেকে আপনারা ডিম্যাট একাউন্ট কি এবং খোলার নিয়ম জানতে পারবেন। আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক ডিম্যাট একাউন্টের তথ্য।

ডিম্যাট একাউন্ট কি

সূত্র :- i2.wp . com

ডিম্যাট একাউন্ট কি?

ডিম্যাট একাউন্ট একটি সাধারন ব্যাংক একাউন্টের মতোই। আমরা যেমন ব্যাংকে আমাদের নগদ টাকা জমিয়ে রাখি, ঠিক তেমনি একটি ডিম্যাট একাউন্টে আপনার ইক্যুইটি শেয়ার এবং সিকিউরিটিজগুলি ধরে রাখতে পারবেন ।

অতীতে শেয়ারগুলি প্রাকৃতিক ফর্মে ধরে রাখা হত। একবার প্রাকৃতিক শেয়ারগুলি ডিমেটেরিয়ালাইজেসড করা হলে ডিম্যাট একাউন্টে রাখা যেতে পারে। শেয়ার সার্টিফিকেট হারানো, স্বাক্ষর পাল্টে যাওয়া কোন ভয় ছিল না। কিন্তু এখন সমস্ত শেয়ার ক্রয় এবং বিক্রয় ডিম্যাটে এর মাধ্যমে সম্পূর্ণ হয়। তাই শেয়ারে বিনিয়োগ করার জন্য ডিম্যাট একাউন্ট থাকা খুবই জরুরী। ডিম্যাট একাউন্ট ছাড়া শেয়ার মার্কেটে ট্রেড করা যায় না ।

ডিম্যাট একাউন্টের প্রয়োজন কেন?

ডিম্যাট একাউন্টের প্রয়োজন কেন

সূত্র :- 5paisa . com

জাল শেয়ারের বা কাগজপত্র ঝুঁকি হ্রাসের জন্য এবং শেয়ার সংরক্ষিত করার জন্য ডিম্যাট একাউন্টের প্রয়োজন হয়। বিশেষত অনলাইনে শেয়ার ক্রয় এবং বিক্রয়ের জন্য ডিম্যাট একাউন্ট ইলেকট্রনিক ফরম্যাটে শেয়ার এবং সিকিউরিটিজ রাখার জন্য ব্যবহৃত হয়।

ডিম্যাট একাউন্ট খোলার সুবিধা কি?

ডিম্যাট একাউন্ট খোলার সুবিধা অনেক রয়েছে। এখানে ডিম্যাট একাউন্ট খোলার মূল সুবিধাগুলি দেওয়া হল ।

1. লোন পাওয়ার সুবিধাঃ

আপনার ডিম্যাট একাউন্টে সিকিউরিটিজ থাকার জন্য ব্যাংক থেকে বিভিন্ন ধরণের লোন পাওয়ার জন্য আপনি অ্যাক্সেস পেতে পারেন। এবং আপনি লোন পাওয়ার জন্য ঋণ সুরক্ষিত হিসাবে এই সিকিউরিটিজগুলি অঙ্গীকার করতে পারবেন ।

2. শেয়ার স্থানান্তরঃ

শেয়ার স্থানান্তরঃ

সূত্র :- skylinerta . com

একজন বিনিয়োগকারীর শেয়ার স্থানান্তর করার জন্য এই একাউন্টের প্রয়োজন। এবং এটা শুধুমাত্র সম্ভব হতে পারে শেয়ার ট্রেডিং পরিচলনা করার জন্য ডেলিভারি ইন্সট্রাকশন স্লিপ ব্যবহার করে ।

3. সিকিউরিটিজ রূপান্তরঃ

আপনার যদি ডিম্যাট একাউন্ট থাকে তাহলে সিকিউরিটিজগুলি বিভিন্ন রূপান্তর করা সহজ হবে ।

4. একাধিক এক্সেসের সুযোগঃ

একটি ডিম্যাট একাউন্ট থাকলে কম্পিউটার বা মোবাইলে ইন্টারনেট মাধ্যমে বিনিয়োগ, ট্রেডিং অ পর্যবেক্ষণ বিভিন্ন একাধিক কাজকর্ম পরিচলনা করতে পারবেন।

5. দ্রুততর প্রক্রিয়াঃ

ন্যাশনাল সিকিউরিটিজ ডিপোজিটরি লিমিটেড ডিম্যাট একাউন্ট হোল্ডারদের জন্য বিভিন্ন সুবিধা বাড়ায়। ফিজিক্যাল স্লিপ জমা দেওয়ার পরিবর্তে ডিম্যট একাউন্ট ধারকরা ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারীকে ইলেকট্রনিকভাবে নির্দেশ স্লিপ পাঠাতে পারে। এই কাজটি দ্রুততর প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বিনা পরিশ্রমে সম্পন্ন করা সম্ভব ।

ডিম্যাট একাউন্ট খোলার নিয়মঃ

ডিম্যাট একাউন্ট খোলার নিয়মঃ

সূত্র :- chartadvise . com

একটি ডিম্যাট একাউন্ট খোলার জন্য নীচের ধাপগুলি অনুসরণ করুন-

প্রথমত, একটি ডিম্যাট একাউন্ট খোলার জন্য ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারী ( Depository participant) সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে যার সঙ্গে আপনি ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে চান। ডিপি ( Depository participant ) একজন ব্রোকার যে আপনার সঙ্গে ডিম্যাট একাউন্ট খুলবে ।

দ্বিতীয়, ডিপি বাছাই করা হয়ে গেলে এবার আপনাকে KYC ( Know your client ) ডকুমেন্টস জমা দিতে হবে। এবং একাউন্ট খোলার জন্য আবেদনপত্র পূরণ করে সঙ্গে সমস্ত তথ্য যেমন পাসপোর্ট সাইজ ফটো, প্যান কার্ড পরিচয় পত্র এবং বর্তমান বাসস্থান ঠিকানা জমা করতে হবে। যাচাইকরণের জন্য আসল ডকুমেন্টসগুলি নিজের সঙ্গে রাখবেন।

তৃতীয়, ডিপি অথবা ব্রোকার নিয়ম, বিধি, চুক্তির শর্তাবলী এবং আপনাকে কত অর্থ চার্জ দিতে হবে সেই সম্পর্কিত একটি কপি আপনাকে দেবে।

চতুর্থ, যাচাইকরণের সময়, ডিম্যাট একাউন্ট খোলার আবেদনপত্র বিশদ যাচাইকরণের জন্য ডিপি আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবে ।

পঞ্চম, আবেদনপত্র প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পরে, আপনি ডিপির কাছ থেকে একটি একাউন্ট নম্বর এবং ক্লায়েন্ট আইডি পাবেন। অনলাইনে ডিম্যাট একাউন্ট অ্যাক্সেস পেতে এই বিশদগুলির দরকার পড়বে।

ষষ্ঠত, যখন আপনি ডিম্যাট একাউন্ট হোল্ডার হয়ে উঠবেন, তখন আপনার একাউন্টটি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আপনাকে বার্ষিক রক্ষণাবেক্ষণ ফি দিতে হবে। এবং শেয়ারগুলি এই একাউন্টের মাধ্যমে ক্রয় এবং বিক্রয়ের জন্য লেনদেন ফি চার্জ দিতে হবে ।

গুরুত্বপূর্ণ নোটসঃ

আপনার শেয়ারগুলি যদি ফিজিক্যাল ফর্মে থাকে, তাহলে ডিপি আপনার থেকে ডিমেটিরিয়ালাইজ করার জন্য পৃথক পৃথক ভাবে চার্জ নিতে পারে ।

এইভাবেই আপনি একটি ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে পারবেন কোন হোল্ডার ছাড়াই।

ডিম্যাট একাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসঃ

ডিম্যাট একাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসঃ

সূত্র :- investallign . in

  • পাসপোর্ট সাইজ ফটো।
  • পরিচয় প্রমানপত্র।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট।
  • প্যান কার্ড।
  • আয়কর রিটার্ন কাগজপত্র।
  • ঠিকানার প্রমাণপত্র।

এই নিবন্ধটি থেকে ডিম্যাট একাউন্ট প্রয়োজনীয়তা, একাউন্ট খোলার নিয়ম এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সম্পর্কে জানতে পারলেন। তাহলে এবার ব্রোকার খুঁজে ডিম্যাট একাউন্ট খুলুন এবং শেয়ার ট্রেডিং শুরু করুন ।

সারকথাঃ

ডিম্যাট কথাটি ডিমেটেরিয়ালাইজেসন কথা থেকে উৎপত্তি।

সুপারিশ নিবন্ধন :- 

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

    • শেয়ার বাজারে ব্যবসার জন্য ডিম্যাট একাউন্ট কি করতেই হবে?
    • শেয়ার বাজারে লেনদেন করতে হলে আপনার ব্রোকার সঙ্গে ডিম্যাট একাউন্ট থাকা দরকার। না হলে লেনদেন করা সম্ভব নয় ।
    • ডিম্যাট একাউন্ট খোলার জন্য আয়কর রিটার্ন কাগজপত্র কি দরকার?
    • ডিম্যাট একাউণ্ট করার সময় আয়কর রিটার্নের কাগজপত্র দেখতে চায় ।
    • ডিম্যাট একাউন্টের কাজ কি?
    • ডিম্যাট একাউন্টে আপনার ইক্যুইটি শেয়ার এবং সিকিউরিটিজগুলি ধরে রাখতে সাহায্য করবে ।
    • ব্রোকার কিভাবে পাওয়া যাবে?
    • আপনার যদি ব্রোকার না থাকে তাহলে শেয়ার বাজারের ব্রোকারের তালিকা থেকে আপনার পছন্দমতো ব্রোকার নিতে পারবেন। তাছাড়া ব্রোকার ছাড়া আপনি শেয়ার বাজারে সরাসরি ট্রেডিং করতে পারবেন না ।
    • ডিম্যাট একাউন্ট কি?
    • ডিম্যাট একাউন্ট এমন একধরণের একাউন্ট যা ইলেকট্রনিক ফর্মের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের সিকিউরিটিজ জমা রাখে ।
    • ডিপি কি?
    • ডিপি মানে ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারী অথবা ব্রোকারকে বোঝায়। যে ডিপোজিটরি এজেন্ট ডিম্যাট সেবা সরবরাহ করে ।
    • আমি কোথায় ডিমানট অ্যাকাউন্ট খুলতে পারি?
    • আপনি যেকোনো ব্যাংকে ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে পারবেন ।
    • কারা ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে পারবে?
    • যে কোন ব্যক্তি, মালিকনা সংস্থা, অংশীদারি সংস্থা, কোন কোম্পানি অথবা ব্যাংকসহ আবাসিক ব্যক্তি ।
    • ডিম্যাট একাউন্ট করতে কি কি ডকুমেন্টস লাগবে?
    • পাসপোর্ট সাইজ ফোটো, পরিচয় এবং ঠিকানার প্রমাণপত্র, আয়কর রিটার্ন কাগজপত্র এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট ।
    • আমার কাছে প্যান কার্ড নেই। আমি কি ডিম্যাট একাউন্ট করতে পারি?
    • না, ডিম্যাট একাউন্ট খোলার জন্য প্যান কার্ড অবশ্যই লাগবে। প্যান কার্ড ছাড়া আপনাকে ডিম্যাট একাউন্ট করতে অনুমতি দেবে না ।
    • জয়েন্ট হোল্ডার হিসাবে ডিম্যাট একাউন্টে কতজন থাকতে পারবে?
    • কমপক্ষে তিনজন জয়েন্ট হোল্ডার হিসাবে ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে পারবে ।
    • আমি ডিপোজিটরি দিয়ে সরাসরি আমার ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে পারব?
    • আইন অনুযায়ী, আপনি ডিপোজিটরি দিয়ে সরাসরি ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে পারবেন না। একাউন্ট খুলতে হলে ডিপোজিটরির অংশগ্রহণকারীর মাধমে খুলতে হবে ।
    • যদি আমার ডিম্যাট একাউন্ট একাউন্ট না থাকে তবে আমি কি আইপিওর জন্য আবেদন করতে পারব?
    • আপনার নামে ডিম্যাট একাউন্ট না থাকলে আইপিওর জন্য আবেদন করা সম্ভব নয়। সেবি নির্দেশাবলী অনুসারে, সকল পাবলিক ইস্যু ডিম্যাট ফর্মের জন্য বাধ্যতামূলক। অতএব, আপনি প্রথম কোন আইপিও অথবা এফপিও আবেদন করার আগে কোন ডিপোজিটরি অংশগ্রহণকারীদের সাথে ডিম্যাট একাউন্ট খুলতে হবে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here