৭ টি প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যা আপনার ডায়েটে থাকা উচিত

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার

শিশু থেকে বয়স্ক সবারই শরীরে প্রোটিন দরকার। প্রোটিনের অভাবে আমাদের শরীরে বিভিন্ন ধরণের সমস্যার সৃষ্টি হয়। নিয়মিত আমাদের খাবারের তালিকায় প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার রাখা অত্যন্ত জরুরী। আমাদের মাথার চুল থেকে পা পর্যন্ত অঙ্গগুলি প্রতিরোধ করতে শরীরে অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের পাশাপাশি পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিনের প্রয়োজন।

প্রত্যেকটি মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরির কাজ করে প্রোটিন। এই অ্যান্টিবডি হল আমাদের রোগ প্রতিরোধের কাজ করে। পাশাপাশি শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশ প্রোটিন ছাড়া অসম্ভব। দেহে প্রোটিনের অভাব হলে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা হ্রাস পায়, শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশ ঘাটতি পাশাপাশি কোয়াশিয়রকর রোগ দেখা হয়। তাই নিয়মিত ডায়েটে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার থাকা আবশ্যিক। তবে নিয়মিত কোন খাবারগুলি ডায়েটে থাকলে প্রোটিন পাওয়া যায় এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার কোনগুলি দেখে নিন আজকের এই নিবন্ধ থেকে। আজকের এই নিবন্ধে প্রোটিনযুক্ত খাবারের তালিকা রইল।

আরও পড়ুনঃ ওজন বাড়ানোর খাবার তালিকা জেনে রাখুন

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার তালিকাঃ

যেসমস্ত খাবারগুলি উচ্চ প্রোটিন রয়েছে সেগুলি নিয়মিত গ্রহণ করা উচিত। উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারগুলি হল–

  • ডিমঃ

ডিমঃ

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারের মধ্যে প্রধান খাদ্য হল ডিম। কারণ এটি স্বাস্থ্যকর এবং সর্বাধিক পুষ্টিকর খাদ্যের মধ্যে অন্যতম। এতে খনিজ, ভিটামিন, স্বাস্থ্যকর ফ্যাট এবং চোখ সুরক্ষিত রাখার উপাদান অ্যান্টি অক্সিডেন্ট বিদ্যমান। ডিমে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন সমৃদ্ধ। তাই নিয়মিত আমাদের দিনে ২ টি সেদ্ধ ডিম খাবার তালিকায় অবশ্যই রাখা উচিত।

সারকথাঃ

আস্ত ডিম উচ্চ প্রোটিন, তবে ডিমের সাদা অংশ শুদ্ধ প্রোটিন।

আরও পড়ুনঃ ৮ টি লিভার ভালো রাখার খাবার তালিকা

  • প্রোটিন খাবার দুধঃ

প্রোটিন খাবার দুধঃ

নিয়মিত এক কাপ দুধ আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ শুধু ক্যালসিয়াম নয় বরং দুধ প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার। দুধকে উচ্চ মানের প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার বলে মানা হয়ে থাকে। দুধ প্রোটিনের একক একক পুষ্টি ধারণ করে যা মানবদেহের স্বাস্থ্যের বিভিন্ন সুবিধার জন্য প্রয়োজনীয়।

সারকথাঃ

এক কাপ দুধে প্রোটিনের পরিমাণ থাকে ৮ গ্রাম।

আরও পড়ুনঃ দৌড়ানোর পর খাবারঃ দৌড়ানোর পর খাদ্য তালিকা কি কি রাখা উচিত?

  • বাদামঃ

বাদামঃ

ড্রাই ফুডও প্রোটিনের ভালো উৎস। যেমন বাদাম। এটি একটি স্বাস্থ্যকর খাবার কারণ এতে প্রোটিন, ফাইবার, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। এটি নিয়মিত সঠিক পরিমাণে খেলে কোন ক্ষতি হয় না বরং স্বাস্থ্যের অনেক সুবিধা পাওয়া যায়। তবে অতিরিক্ত পরিমাণ খাওয়া উচিত নয়। নিয়মিত বাদাম কার্ডিওভাসকুলার রোগ থেকে আপনার হৃদয়কে রক্ষা করতে পারে পাশাপাশি রক্তে শর্করা পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে এবং ত্বকের জন্যও উপকারি খাবার। তাই আপনার নাস্তায় নিয়মিত যোগ করুন এই ড্রাই ফুডটি।

সারকথাঃ

কাজু আর পেস্তা বাদাম প্রোটিনের ভালো উৎস।

আরও পড়ুনঃ ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য পুষ্টিকর খাবারের তালিকা

  • চিকেন ব্রেস্টঃ

চিকেন ব্রেস্টঃ

চিকেন ব্রেস্ট একটি উচ্চ প্রোটিনের আদর্শ খাবার যা নিশ্চিন্তে ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করা যায়। চিকেন ভিটামিন বি এর ভালো উৎস। যেমন ভিটামিন বি৬ কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকি হ্রাস, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ, মস্তিষ্ক ভালো রাখে এবং এলডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করে।

সারকথাঃ

চিকেন ব্রেস্ট রান্না করাও খুব সোজা এবং সঠিক ভাবে রান্না করলে খেতেও সুস্বাদু।

আরও পড়ুনঃ আদর্শ খাবারের তালিকা ও তার শ্রেণীবিভাগ

  • মুসুরের ডালঃ

মুসুরের ডালঃ

মুসুরির ডালও প্রোটিনের একটি ভালো উৎস। মসুরের ডাল শুধু প্রোটিনের ভালো উৎস নয় বরং ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, ফোলেট, ফসফরাস, পটাসিয়াম, আয়রন এবং বি ভিটামিন জাতীয় পুষ্টি এবং খনিজ সমৃদ্ধ। মুসুরের ডালে উপস্থিত প্রোটিন হৃদয় ভালো রাখতে সহায়তা করে। পাশাপাশি হজম শক্তি বাড়ায় এবং রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে।

  • ওটসঃ

ওটসঃ

ওটস আমরা ব্রেকফাস্টে খেয়ে থাকি। এটি প্রোটিনের একটি ভালো উৎস। এতে কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ। যার জন্য এটি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি খাবার। আপনি সকালে তাজা ফল এবং বাদাম মিশিয়ে ওটস খেতে পারেন।

  • গ্রীক দইঃ

গ্রীক দইঃ

গ্রীক দই খেতে খুব সুস্বাদু পাশাপাশি পুষ্টিতে ভরপুর। এটা সচরাচর বাজারে পেয়ে যাবেন। আপনি আপনার ডায়েটে গ্রীক দই রাখতে পারেন সাধারণ দইয়ের পরিবর্তে।

আরও পড়ুনঃ জেনে নিন, শিশুদের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার এ কী কী রাখা জরুরী

এই সমস্ত খাবারগুলি ছাড়া প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার রয়েছে আরও অনেক। তবে এগুলি উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার। পাশাপাশি স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সুবিধাও রয়েছে। তাই নিজে সুস্থ থাকতে নিয়মিত এই খাবারগুলি আপনার খাদ্য তালিকায় যোগ করা উচিত।

সারকথাঃ

বাচ্চাদের বিকাশের জন্য নিয়মিত খাবার তালিকায় প্রোটিনের প্রয়োজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here