চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহারঃ নতুন চুল গজাতে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার

চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার-

দোরগোড়ায় শীত। তাই চুলের চাই বাড়তি সচেতনতা। কারন শীতকালে চুল নিয়ে বেশি সমস্যায় ভুগতে হয়। এই সময় খুশকির প্রবণতা বাড়ে। যার ফলে অকালে চুল পড়ে যায়। প্রাচীনকাল থেকে চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার হয়ে আসছে। ক্যাস্টর অয়েল হল চুলের পক্ষে কার্যকারী উপাদান।

ক্যাস্টর অয়েলে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা চুলকে ঝলমলে ও স্বাস্থ্যজ্জ্বল করে তোলে। নতুন চুল গজাতে এই অয়েল কার্যকরী উপায়। এর ঔষধি গুনের জুরি নেই। কিন্তু এই চিটচিটে ও আঠালো তেলটি মাথায় কীভাবে ব্যবহার করবে এই নিয়ে সমস্যায় পড়ে মানুষ। তাহলে চলুন জেনে নিই, চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার-

চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার-

সূত্র :- allure . com

চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার-

অনেকেই এই অয়েল ব্যবহার করে বলে থাকেন, চুল পড়া কমছে না বরং চুল পড়ার পরিমাণ বেড়ে গেছে। আপনি তখনি ভালো ফলাফল পাবেন, যখন এই তেল সঠিক পদ্ধতিতে ব্যবহার করবেন। ভুল পদ্ধতিতে ব্যবহার করলে চুলের ক্ষতি হতে পারে। তাই ঠিকভাবে ব্যবহার করাটা খুব জরুরী। নতুন চুল গজাতে ক্যাস্টর অয়েল যেভাবে ব্যবহার করবেন–

  1. নারকেল তেলের সঙ্গে সমপরিমাণ ক্যাস্টর অয়েল ও দুটি ভিটামিন ক্যাপসুল ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার আঙুল দিয়ে চুলের গোড়ায় এটি মাসাজ করবেন। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে নেবেন। এতে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে। চুলের গোড়া মজবুত করে চুলকে পড়তে বাঁধা দেবে।
  2. এই অয়েলের সঙ্গে সমপরিমাণ আমন্ড অয়েলঅ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। রাতে ঘুমাতে যাবার আগে ভালো করে চুলে মেখে মাসাজ করে নেবেন। সকালে ঘুম থেকে উঠে শ্যাম্পু করে নেবেন। আমন্ড অয়েল চুলকে শাইনিং করে তোলে।
  3. এই অয়েলের রয়েছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান। যা খুশকির সমস্যা দূর করে। দেড় চামচ ক্যাস্টর অয়েলে সঙ্গে হাফ চামচ সরিষার তেল ও সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে চুলে লাগিয়ে নেবেন। ১ ঘণ্টা বাদে ধুয়ে শ্যাম্পু করে নেবেন। এতে খুশকির সঙ্গে সঙ্গে স্ক্যাল্পে ইনফেকশনের হাত থেকে রেহাই মিলবে।
  4. ডিম যেমন চুলের পুষ্টি তেমনি কান্ডিশানেরও কাজ করে। আর ক্যাস্টর অয়েল স্ক্যাল্পে পি.এইচ লেভেল বজায় রেখে চুল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। অয়েলের সঙ্গে সমপরিমাণ নারকেল তেল ও একটি ডিম ফেটিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার সেই প্যাকটি চুলে লাগিয়ে রাখবেন অন্তত এক ঘণ্টা। তারপর শ্যাম্পু করে নিন।
  5. এটি অলিভ অয়েলের সঙ্গে ব্যবহার করলে দ্রুত কাজ দেয়। এই অয়েল চুলের পুষ্টি যোগায়। ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে সমপরিমাণে অলিভ অয়েল মিশিয়ে হালকা গরম করে নিন। স্ক্যাল্পে এই উষ্ণ গরম তেল হাল্কাভাবে লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট মাসাজ করবেন। তারপর ধুয়ে নেবেন।
  6. আর্গন অয়েলে রয়েছে ভিটামিন সি। ভিটামিন সি চুলের পক্ষে খুব উপকারী। এটি ত্বকের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর উপাদান। ২ টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল, ২ টেবিল চামচ আর্গন অয়েল উষ্ণ গরম করে মাথার স্ক্যাল্পে লাগান। সপ্তাহে ২-৩ দিন এই তেল ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন।

সম্পর্কিত নিবন্ধ চেক করুন :- 

ক্যাস্টর অয়েলের হেয়ার মাস্কঃ

সূত্র :- rainlillie . com

ক্যাস্টর অয়েলের হেয়ার মাস্কঃ

ঘরোয়া পদ্ধতিতে হেয়ার মাস্ক বানিয়ে নিতে পারেন। মাস্ক চুলের পক্ষে খুব প্রয়োজন। এটি চুলের আগা শক্ত তো করেই সঙ্গে চুল পড়া কমায়, পুষ্টিও যোগায়। হেয়ার মাস্ক বানানোর জন্য বাটিতে একটি ডিম ভাল করে ফেটান। এরপর এক চামচ মধু ও ক্যাস্টর অয়েল নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার এই প্যাকটি মাস্ক হিসেবে চুলে লাগিয়ে নেবেন। প্যাকটি শুকিয়ে এলে শ্যাম্পু করে নেবেন। এটি সপ্তাহে একদিন ব্যবহার করে দেখুন।

চুলে ক্যাস্টর অয়েলের ব্যবহার এ নতুন চুল দ্রুত গজায়। সপ্তাহে অন্তত ২-৩ দিন এই পদ্ধতিগুলি ব্যবহার করে দেখুনই না ভালো ফল পাবেন।

গুরুত্বপূর্ণ নোটসঃ

যে কোনও কোম্পানির তেল ব্যবহারের আগে তার মেয়াদ অবশ্যই দেখে নেবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here