গ্রিন টির গুণাগুণ যা আপনাদের অবশ্যই জেনে রাখা প্রয়োজন

green tea

green tea

সূত্রঃ- onlymyhealth . com

ঘুম থেকে বিছানা ছেড়েই এক কাপ চা না খেলে দিনটাই যেন অসম্পূর্ণ থেকে যায়। এক কাপ চায়ে চুমুক ব্যস্তময় জীবনে ক্লান্তি দূর করতে যথেষ্ট। আর তার সঙ্গে বাড়তি পাওনা হিসাবে আপনি যদি পেয়ে যান নীরোগ  শরীর, তাহলে কেমন হয়? চা আর স্বাস্থ্য শরীর অসম্ভব এটাই নিশ্চয়ই ভাবছেন। কিন্তু আপনি কি জানেন, এমন এক চা রয়েছে যাতে ক্লান্তির সঙ্গে শরীর সুস্বাস্থ্য রাখবে। সেটি হল গ্রিন টির ম্যাজিক। শুধু শরীরর নয় ত্বক ও চুল ভালো রাখতে গ্রিনটির গুণাগুণ অপরিসীম।

ভিন্ন ধরনের চায়ের মধ্যে গ্রিন টি স্বাস্থ্যকর পানীয়। ওজন কমাতে এর তুলনা নেই। এছাড়া এর  এমন কিছু  গুণাগুণ রয়েছে যা আপনাদের অবশ্যই জেনে রাখা উচিত। আসুন তাহলে এই নিবন্ধ থেকে জেনে নিন গ্রিন টির গুণাগুণ।

গ্রিন টি আসলে কি?

green-teaসূত্রঃ- www.bbcgoodfood . com

গ্রিন টি বা সবুজ চা আসলে তৈরি হয় ক্যামেলিয়া সিনেন্সিস পাতা থেকে।গ্রিন টি সাধারন চায়ের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। সাধারণ চায়ের ক্ষেত্রে  অনেক প্রক্রিয়া জাতকরণ করা হয়, গ্রিন টি ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময় তা হয় না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আস্ত ছোট পাতা থেকে যায়, এই ধরণের প্রক্রিয়াজাতের কারণে গ্রিন টি বেশি পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ধারণ করতে সক্ষম হয়।

গ্রিন টির পুষ্টিগুণ

green tea (1)সূত্রঃ- 813magazine . com

অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ছাড়াও গ্রিন টির মধ্যে যেসমস্ত পুষ্টিগুণ রয়েছে সেগুলি হল-

  • প্রোটিন
  • শর্করা
  • ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ
  • অ্যামিনো অ্যাসিড এবং এনজাইম
  • ভিটামিন সি
  • ভিটামিন বি ৬
  • খনিজ
  • লোহা, ক্রোমিয়াম, তামা এবং দস্তা

সুপারিশ নিবন্ধন :-

গ্রিন টির গুণাগুণ

বর্তমানে গ্রিন টির  স্বাস্থ্য সুরক্ষার কবজ হিসাবে বেশি পরিচিত। গ্রিনটি থেকে স্বাস্থ্যের জন্য ভিন্ন ধরণের সুবিধা পাওয়া যায়। হার্ট, ওজন, ক্যান্সার এবং ডায়াবেটিসের মতো গুরুতর অসুস্থতার প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

What Is Green Tea

সূত্রঃ- agoramedia . com

  1. ওজন কমানোর সহায়ক

গ্রিন টির গুনাগুন এর মধ্যে ওজন হ্রাস করা একটি। এর মধ্যে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট বিদ্যমান থাকায় বিপাক ক্রিয়া বৃদ্ধি করে ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করে। এতে উপস্থিত সক্রিয় যৌগগুলি ফ্যাট বার্ন হরমোনকে প্রভাবিত করে। এমনকি ব্যায়াম করার সময়, গ্রিন টি চর্বি হ্রাস করতে সহায়তা করে।

ইনসুলিন সংবেদনশীলতা উন্নত করে। সবুজ-টি আপনার বিপাকীয় হার বৃদ্ধি করতে পারে, এবং সর্বদা সামান্য সামান্য করে ক্যালরি কম হতে থাকে।

  1. ডায়াবেটিসদের জন্য গ্রিন টির গুণাগুণ

Diabetes

সূত্রঃ- diabetes.ufl . edu

গ্রিন টি শরীরের কোষকে সংবেদনশীল করে তুলতে পারে, যাতে তারা চিনিকে ভালভাবে হজম করতে পারে এবং ডায়াবেটিসের প্রভাব কমাতে পারে। এই ভাবে, আপনি বলতে পারেন যে গ্রিন টি থেকে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করা যেতে পারে।

একটি গবেষণার মতে, একজন ব্যক্তি প্রতিদিন ছয় বা তার বেশি কাপ চা পান করলে কয়েকটি শতাংশ দ্বারা টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কম হতে পারে।

নোটসঃ

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে ডাক্তারের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে হবে, কারন 6 কাপ গ্রিন টি একদিনের জন্য স্বাস্থ্যের জন্য উপযুক্ত নয়।

  1. ইউমিন সিস্টেম

গ্রীন-টিতে উপস্থিত ক্যাচচিনগুলি ইমিউন ফাংশন বৃদ্ধি করার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গ্রীন টিতে ইজিসিজি রেগুলেটরি উপস্থিত, যা টি কোষগুলিকে বাড়ায় এব ইমিউন ফাংশন নিয়ন্ত্রণ রোগগুলি ক্রমবর্ধমান হতে বাধা দেয়।

  1. দেহ ফিট রাখেঃ

fitt

সূত্রঃ- cdn.shopify . com

চায়ের পরিবর্তে যদি নিয়মিত গ্রিন টি পান করা যায় তাহলে বডি ফিট থাকে। কারণ এতে উপস্থিত অ্যান্টি আক্সিডেন্ট শরীরে মেদ জমতে বাঁধা দেয়। পাশাপাশি শরীর সুস্থ রাখে।

  1. ত্বক এবং চুলের জন্য গ্রিন টির গুণাগুণ

নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে ত্বক ভালো থাকে। ডার্ক সার্কেল রিমুভ করতে সহায়তা করে পাশাপাশি চুলের জন্য গ্রিন টি কার্যকারী। হেনার সাথে গ্রিন টি প্রয়োগ করলে চুল ভালো থাকে।

সুস্থ থাকতে চায়ের পরিবর্তে গ্রিন টি খান এবং সুস্থ থাকুন। আশা করব গ্রিন টি নিবন্ধটি আপনাদের ভালো লাগবে।

সারকথাঃ

চিনে এই পানীয়টির উৎপত্তিস্থল। প্রাচীনকালে ভারতে গ্রিন টি ঔষধ হিসাবে ব্যবহার করা হত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here