স্বাস্থ্যের জন্য সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা

স্বাস্থ্যের জন্য সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা

স্বাস্থ্য ভালো রাখতে ব্যায়ামের বিকল্প নেই। আর সেটা যদি হয় সকালের দৌড়ানো। কথায় আছে যারা নিয়মিত ব্যায়াম করেন তারা দীর্ঘায়ু হন। তাই আপনি যদি ব্যায়াম করেন তাহলে অবশ্যই সকালে দৌড়াতে ভুলবেন না। জানেন কি শরীরকে ফিট রাখতে সকালে দৌড়ানোর মতো ভালো উপায় আর কিছু হয় না। সকালে দৌড়ানো শুধু বডি ফিটই রাখে না বরং সুস্বাস্থ্য জীবনও দেয়। গ্রামে সবাই সুস্থ থাকতে এই কাজটা করে। কিন্তু শহরের মানুষ সময়ের অভাব বা আলসেমির কারণে এই ব্যায়াম থেকে দূরে সরে থাকেন। যার কারণে শহরে রোগব্যাধির প্রবণতা বেশি। তাই শুধু ওজন কমানোর জন্য নয় নিজেকে সুস্থ রাখতে সকালে নিয়ম করে দৌড়ানোর অভ্যাস গড়ে তুলন।

যে কোন সময়ই দৌড়ানো যায় কিন্তু সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা প্রচুর। হয়তো অনেকেরই তা অজানা। তাই তাদের জন্য আজকের আর্টিকেলে সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করব।

স্বাস্থ্যের জন্য সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা

স্বাস্থ্যের জন্য সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা

জিমের থেকেও দৌড়ানো বেশি ওজন হ্রাস করেঃ-

ওজন কমাতে চাইলে জিমে না গিয়ে ১ ঘণ্টা দৌড়ে আসুন। কারণ এই ব্যায়ামটি জিমের থেকে ওজন বেশি হ্রাস করে। কথায় আছে রোজ ১ ঘণ্টা নিয়মিত দৌড়ালে ৭০০ থেকে ৮০০ ক্যালরি হ্রাস হয়।

সকালে নিয়মিত দৌড়ানো মস্তিষ্কের সহায়তা করেঃ

গবেষণায় দেখা গেছে, সকালে নিয়মিত দৌড়ানো মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করে। জীবনে অনেক বিষয় থাকে যা আমাদের মস্তিষ্কে চিন্তা বাড়ায়। যার জন্য প্রেসার বেড়ে যায়। এর থেকে রেহাই পেতে সকালে না ঘুমিয়ে ৩০ মিনিট বা এক ঘণ্টার জন্য দৌড়ানো অভ্যাস করুন।

প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়েঃ

প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়েঃ

নিয়মিত সকালে দৌড়ানোর অভ্যাস করলে আপনার রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা শক্তিশালী হয়। দেহের সমস্ত রকমের রোগ যেমন ঠাণ্ডা লাগা, খিঁচুনি হাত থেকে রেহাই পাবেন।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করেঃ

সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা কথা আলোচনায় ডায়াবেটিসএর কথা ভুলতে পারি না। কারণ ডায়াবেটিস এমন এক ধরণের রোগ যা শরীরে বিষের মতো ছড়িয়ে পড়ে। এটি একবার শরীরে প্রবেশ করলে স্বাস্থ্য নাজেহাল অবস্থা করে দেবে। তাই আগে থেকে ডায়াবেটিসের হাত থেকে নিজেদের সরিয়ে রাখতে হবে। আর তার জন্য দরকার সকালে নিয়মিত ৩০ মিনিট অন্তত দৌড়ানো।

দৌড়ানোর ফলে শরীরে ইনসুলিন তৈরি করার প্রক্রিয়ার উন্নতি হয় এবং রক্তে শর্করা লেভেল নিয়ন্ত্রণে থাকে।

রাতে ভালো ঘুমঃ

রাতে ভালো ঘুমঃ

সকাল হোক বা রাত দিনের যে কোনও সময় দৌড়ানো রাতে ভালো ঘুমের কারণ হতে পারে। নিয়মিত এই ব্যায়ামের জন্য মানুষ সহজেই রাতে ঘুমাতে পারে। তবে সকালের দৌড়ানো আরও বেশি কার্যকর হতে পারে এক্ষেত্রে। এতে মস্তিষ্কের শক্তি বৃদ্ধি করে।

হৃদয় সুস্থ রাখেঃ

সকালে দৌড়ানো বা হাঁটার ফলে রক্তের চাপ স্বাভাবিক থাকে এবং ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকে, পাশাপাশি বর্ধিত কোলেস্ট্রোলের মাত্রা কমাতে সহায়তা করে। যারা রোজ সকালে আধ ঘণ্টা দৌড়ায় বা হাঁটে তাদের হার্ট রোগ হওয়ার সম্ভবনা কম থাকে। যাদের শ্বাস নিতে সমস্যা হয়, তারা অবশ্যই নিয়ম মেনে সকালে দৌড়ান।

স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধি হয়ঃ

বলা হয়, যারা নিয়মিত সকালে দৌড়ান তাদের স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধি পায়। যে কোন সমস্যার সঙ্গে তারা মোকাবিলা করতে পারে। তাই আপনি যদি নিজের স্মৃতি শক্তি বাড়াতে চান নিয়মিত দৌড়ানোর অভ্যাস করুন।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রিতঃ

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রিতঃ

সকালে দৌড়ানোর উপকারিতা আর একটি অন্যতম উপকার হল উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রন। সকালে দৌড়ানোর সময় ধমনী ছড়িয়ে পড়ে এবং সংকুচিত হয়। এর ফলে ধমনীদের ব্যায়াম হয় পাশাপাশি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রিত থাকে।

শারীরিক দৃঢ়তাঃ

দৌড়ানো ফলে শরীরের নীচের অংশ শক্তিশালী হয় এবং স্নায়ুতন্ত্রে দৃঢ়তা আসে।

সারকথাঃ

আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য নিজেকে বিশেষ সময় দিন এবং নিয়মিত সকালে দৌড়ানোর মধ্যে নিজেকে সক্রিয় রাখুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here