ওজন বাড়ানোর ব্যায়াম যা ওজন বৃদ্ধি করবে দ্রুত

যোগব্যায়াম

দেশের অধিকাংশ মানুষ যখন নিজেদের ওজন কমানোর জন্য ব্যস্ত ঠিক তেমনি অন্যদিকে আরও একদল মানুষ নিজেদের পাতলা চেহারার জন্য বিরক্ত। প্রায়শই মানুষ ভেবে থাকেন ব্যায়ামের মাধ্যমে রোগা হওয়া যায়। তবে আপনি কি জানেন এমন কয়েকটি ওজন বাড়ানোর ব্যায়াম রয়েছে যা নিয়মিত অনুশীলন করলে কিছুটা ওজন বাড়ানো যায়।

যোগব্যায়াম

Source

যোগব্যায়াম যেমন ওজন কমাতেও সাহায্য করে আবার এর থেকে ওজন বৃদ্ধি করাও সম্ভব। ব্যায়াম আমাদের শরীরের অন্যান্য কাজের জন্য জরুরী। তবে যোগব্যায়ামের পাশাপাশি ভালো ডায়েটও প্রয়োজন। সঠিক ওজন বাড়ানোর ব্যায়াম অনুশীলন না করলে আপনার ওজন কমেও যেতে পারে। তাই আজকের এই নিবন্ধে ওজন বাড়ানোর ব্যায়াম এবং তা করার পদ্ধতি দেওয়া হল।

যোগব্যায়াম

যোগব্যায়াম (Yoga) 

যোগ ব্যায়ামের আর এক নাম যোগাসন। এটির স্বাস্থ্য সম্পর্কিত প্রতিটি সমস্যার সমাধান রয়েছে। যোগব্যায়ামের মাধ্যমে যেমন বডি ফিট রাখে এবং ওজন হ্রাস করা যায়। ঠিক তেমনি যোগব্যায়ামের মাধ্যমে ওজন বৃদ্ধিও হয়। 

আরও পড়ুন । জেনে নিন ঘরে বসে ওজন কমানোর ব্যায়াম

ওজন কম হলে কী হয়

Source

ওজন কম হলে কী হয় (What happens when you lose weight) 

কিছু লোক জেনেটিক্যালি কম ওজনের হতে পারে তবে অন্যরা কম ওজনে থাকতে পারে কারণ তারা খাবার থেকে পর্যাপ্ত পুষ্টি পান না। পুষ্টির ঘাটতি দ্বারা শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা প্রভাবিত হয়। আপনার পক্ষে সংক্রমণ এবং রোগ এড়ানো কঠিন হয়ে পড়ে। 

কীভাবে যোগব্যায়াম ওজন বাড়াতে সহায়তা করে

Source

কীভাবে যোগব্যায়াম ওজন বাড়াতে সহায়তা করে (How yoga helps in weight gain)  

যোগব্যায়াম মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের চাবিকাঠি যোগব্যায়াম শরীরে অক্সিজেন এবং রক্ত ​​সঞ্চালন বাড়ায় এবং পুষ্টি গ্রহণেও সহায়তা করে। এটি পেশী শক্তিশালী করার পাশাপাশি নমনীয় করে তোলে। এটি স্ট্যামিনা উন্নত করতেও সহায়তা করে। ক্ষুধা বৃদ্ধি করে যা দেহের ওজন বাড়াতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুন । যোগ ব্যায়ামের সুবিধাঃ নিয়মিত যোগাসনের সুবিধা কি কি

ওজন বাড়ানোর ব্যায়াম

Source

ওজন বাড়ানোর ব্যায়াম (Weight gain exercises) 

ওজন বাড়ানোর জন্য নীচের যোগব্যায়ামগুলি অনুশীলন করুন নিয়মিত।

ভুজঙ্গাসনঃ

Source

1. ভুজঙ্গাসন (Bhujangasana) 

ভুজঙ্গাসন পাচক সিস্টেমে কাজ করে। যার ফলে ক্ষুধা বৃদ্ধি, বিপাক নিয়ন্ত্রণ হয়। 

ভুজঙ্গাসন করার নিয়মঃ

• প্রথমে একটি তক্তা নিন।
• এবার উপুর হয়ে শুয়ে পড়ুন।
• পায়ের পাতা এবং গোড়ালি দুটি জোড়া করুন।
• হাত দুটি ভাঁজ করে বক্ষের দুই পাশে রাখুন তক্তা ভর করে। (হাতের তালুটি মাটির দিকে থাকবে )
• এবার কোমর থেকে মাথাসহ শরীরের অংশ ধীরে ধীরে উপরে তুলুন।
• এবার পেটের উপর ভর দিয়ে হাত দুটি আলগা করে ২০-৩০ সেকেন্ড এই অবস্থায় থাকুন।

ভুজঙ্গাসন করার সময়ঃ

৩০ সেকেন্ড

আরও পড়ুন । ভুজঙ্গাসন কীভাবে করবেন এবং এর উপকারিতা

বজ্রাসনঃ

Source

2. বজ্রাসন (Vajrasana) 

বজ্রাসন একমাত্র আসন যা খাবার খাওয়ার পরেও অবিলম্বে অনুশীলন করা যায়। এটি হজমের প্রক্রিয়া ভালো রাখে এবং বিপাক ক্রিয়ায় সহায়তা করে। পাশাপাশি ক্ষুদা বৃদ্ধি করে। ফলে ওজন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এছাড়াও এই আসনটি করা সবচেয়ে সোজা।

বজ্রাসন করার নিয়মঃ

• প্রথমে হাঁটু মুড়ে বসে পড়ুন। খেয়াল রাখবেন হাঁটু দুটো যেন জোড়া অবস্থায় থাকে। উপরে দেওয়া ছবির মতো।
• পায়ের পাতা থেকে হাঁটু যেন মাটিতে লেগে থাকে।
• এবার হাত দুটি হাঁটুর উপর রাখুন।
• শিরদাঁড়া সোজা করে এই অবস্থানে ৩-৪ মিনিট বসে থাকবেন।

বজ্রাসন করার সময়ঃ

৩-৪ মিনিট

আরও পড়ুন । হার্ট ভালো রাখতে নিয়মিত হার্টে ভালো রাখার ব্যায়াম

পবনমুক্তাসনঃ

Source

3. পবনমুক্তাসন (Pawanmuktasana) 

পবনমুক্তাসন হজম বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এবং এটি নিয়ন্ত্রিত করে। এনার্জি শক্তি বাড়ায় এবং ওজন বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।

পবনমুক্তাসন করার নিয়মঃ

• প্রথমে সোজা হয়ে শুয়ে পড়ুন এবং পা দুটি লম্বাভাবে সামনের দিকে রাখুন।
• এবার ধীরে ধীরে পা দুটি একসঙ্গে বুকের কাছে নিয়ে আসুন ঠিক যেরকম ভাবে ছবিতে দেওয়া রয়েছে।
• হাত দুটি দিয়ে পা দুটিকে এমনভাবে ধরে রাখুন যাতে দেখলে মনে হয় আপনি হাত দিয়ে পা দুটি বেঁধে রেখেছেন। ব্যায়ামটি করার সময় স্বাভাবিক শ্বাস –প্রশ্বাস নেবেন।

পবনমুক্তাসন করার সময়ঃ

৬০ সেকেন্ড

আরও পড়ুন । নিয়মিত হাঁটু ব্যথার ব্যায়াম করুন এবং সুস্থ থাকুন

4. সর্বাঙ্গাসন (Sarbangasana)

সর্বাঙ্গাসন শরীরের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে এবং শিরদাঁড়া সোজা রাখে পাশাপাশি শরীর মজবুত করে। এছাড়াও থাইরয়েড গ্লান্ড এর জন্য এই ব্যায়াম খুব গুরুত্বপূর্ণ।

সর্বাঙ্গাসন করার নিয়মঃ

• প্রথমে একটি ম্যাটে সোজাভাবে লম্বা করে শুয়ে পড়ুন।
• এবার কাঁধের উপর পুরো শরীর ভর করুন।
• এবার ব্যালেন্স বজায় রাখার জন্য কোমরে হাত দিয়ে কোমর থেকে বাকি অংশ ধীরে ধীরে উপরের দিকে তুলুন। (ঠিক ছবিতে যেমন রয়েছে)
• পা দুটি সমকোণে খাড়াভাবে উপরের দিকে থাকবে। কয়েক সেকেন্ড এভাবে নিয়মিত ব্যায়ামটি অভ্যাস করুন।

সর্বাঙ্গাসন করার সময়ঃ

কয়েক সেকেন্ড

আরও পড়ুন । 10 টি যোগাসন ছবি ও ভিডিও সহ শিখে ফিট থাকুন

Key Pont: যোগব্যায়াম সমস্ত রকমের স্বাস্থ্যের সমস্যার সমাধানের ভালো বিকল্প।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

Q. ওজন কমানোর ব্যায়ামগুলি করলে ওজন কি কমবে?

A. ব্যায়ামের পাশাপাশি আপনাকে পুষ্টিকর খাবারও খেতে হবে। এই ব্যায়ামগুলি ওজন বাড়াতে সহায়তা করবে।

Q. ব্যায়ামগুলি কখন করতে হবে?

A. নির্দিষ্ট সময় নেই তবে ব্যায়াম করার সবচেয়ে ভালো সময় ভোরবেলা।

Q. ওজন কমানোর ব্যায়ামগুলো রোজ করতে হবে?

A. হ্যাঁ, ওজন কমানোর ব্যায়ামগুলো নিয়মিত করলে ভালো ফল পাবেন।

Previous articleত্বকের জন্য ফেসিয়াল করার উপকারিতা জেনে রাখুন
Next article7 টি হোম জিমের জন্য ওজন | Weight সরঞ্জাম
হাই, আমি তিশা সেন। একজন ব্লগ লেখিকা এবং স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ। আমার প্যাশন মানুষের শরীর- স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন করা। মানুষের শরীরের রোগ সংক্রান্ত চিকিৎসা এবং স্বাস্থ্য ভালো রাখার টিপস নিয়ে লেখালেখির কাজ করতে ভালোবাসি। আমার লক্ষ্য রোগের এবং স্বাস্থ্য সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করা। বিভিন্ন ধরণের রোগের চিকিৎসার উপায় জেনে নিজেকে সুস্থ রাখুন এবং নিজের সৌন্দর্যকে বজায় রাখার টিপস জানতে আমাদের এই পেজ অনুসরণ করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here