পেস্তা বাদাম খাওয়ার ১০ টি উপকারিতা ও পুষ্টিগুণ

পেস্তা বাদাম

মিষ্টির শোভা বাড়ানোর এই শুকনো পেস্তা বাদাম সকলের পছন্দের তালিকার শীর্ষে। এটি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত খাদ্যের মধ্যে অন্যতম। স্বাস্থ্যের পক্ষে পেস্তা খুব উপকারি। এটি বিশুদ্ধ রক্তকে শুদ্ধ করে। এমনকি ক্যান্সারের মতো মারাত্মক রোগ থেকেও রক্ষা করে। নিয়মিত পেস্তা বাদাম খেলে রোগমুক্ত হয়। এছাড়াও রয়েছে অনেক গুণাবলী।

পেস্তা বাদাম

পেস্তা বাদাম কি (What are Pistachios)

পেস্তা একধরনের শুকনো ফল। এর বৈজ্ঞানিক নাম পিস্তাসিয়া ভেরা। পেস্তা পুষ্টিতে সমৃদ্ধ একটি ফল যা আমাদের খাওয়ার মাধ্যমে শরীরে পুষ্টি উপাদানের অভাব পূরণ করে এবং ভিন্ন ধরনের রোগব্যাধি থেকে প্রতিরোধ করে।

পেস্তা বাদামে কি কি পুষ্টি রয়েছে

Source

পেস্তা বাদামে কি কি পুষ্টি রয়েছে (What are the nutrients in Pistachios)

পেস্তা বেশ পুষ্টিকর, এক আউন্স পেস্তা বাদামে পুষ্টিগুণ রয়েছে-

  1. ক্যালোরি (১৫৯)
  2. প্রোটিন (৬ গ্রাম)
  3. কার্বস (৮ গ্রাম)
  4. ফাইবার (৩ গ্রাম)
  5. ফ্যাট (১৩ গ্রাম)
  6. ফসফরাস (১১ শতাংশ RDI)
  7. পটাসিয়াম (৬ শতাংশ RDI)
  8. কপার (৪১ শতাংশ RDI)
  9. ম্যাঙ্গানিজ (১৫ শতাংশ RDI)
  10. ভিটামিন বি ৬ (২৮ শতাংশ RDI)

আরও পড়ুন ।  বাদাম কত প্রকার | বাদামের পুষ্টিকর গুণাগুণ

পেস্তা বাদামের পুষ্টিগুণের উপকারিতা

পেস্তা বাদামের পুষ্টিগুণের উপকারিতা (Nutritional benefits of Pistachios)

  • ক্যালোরি – আমাদের দেহে শক্তির জোগান দেয়
  • প্রোটিন – শরীরের ত্বক, চুল, নখ, হাড় বিকাশে প্রোটিন প্রয়োজন। 
  • কার্বস – কার্বোহাইড্রেটগুলি আমাদের দেহে গ্লুকোজ হিসাবে দ্রুত রক্ত প্রবাহে প্রবেশ করে।
  • ফাইবার – ফাইবার হজম স্বাস্থ্য এবং নিয়মিত অন্ত্রের জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান।
  • ফসফরাস – ফসফরাস একটি খনিজ যা দেহকে বিভিন্ন ধরণের প্রয়োজনীয় কাজগুলি সম্পাদন করা প্রয়োজন।
  • পটাসিয়াম রক্তচাপ, কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য, হাড়ের শক্তি এবং পেশী মজবুত করে।
  • কপার – এটিতে শরীরের সমস্ত টিস্যুতে পাওয়া যায় এবং লাল রক্তকণিকা তৈরি করতে এবং স্নায়ু কোষ এবং প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখতে ভূমিকা রাখে।
  • ম্যাঙ্গানিজ – মানুষের হাড় গঠনের স্বাভাবিক বিকাশের জন্য ম্যাঙ্গানিজ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।
  • ভিটামিন বি ৬ –বি 6 দেহের শক্তি বিপাকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। চোখের জন্য উপকারী।

আরও পড়ুন ।  বাদামের উপকারিতা ও অপকারিতা জেনে নিন

স্বাস্থ্যের জন্য পেস্তা বাদামের উপকারিতা (Health benefits of Pistachios)

1. ডায়াবেটিস থেকে রক্ষাঃ-

পেস্তা বাদামের উপকারিতা

পেস্তা বাদাম ডায়াবেটিসের মতো ভয়ঙ্কর রোগ থেকে রক্ষা করে। আমাদের শরীরের প্রয়োজনীয় ৬০ শতাংশ ফসফরাস পূরণ করে এক কাপ পেস্তা বাদাম। যা ডায়াবেটিস থেকে আমাদের রক্ষা করে। পেস্তায় উপস্থিত ফসফরাস প্রোটিনকে অ্যামিনো অ্যাসিডে ভেঙ্গে দেয় যার ফলে শরীরের গুলুকোজের শক্তি বৃদ্ধি করে।

2. স্নায়বিক সিস্টেমঃ-

স্নায়বিক সিস্টেম

পেস্তা বাদামে রয়েছে ভিটামিন বি ৬ যা স্নায়বিক সিস্টেমের জন্য খুব উপকারি। এই ভিটামিন নার্ভ তন্ত্রগুলির চারপাশে মায়েলিন ঘনত্ব তৈরি করে, যা নার্ভের তন্ত্রগুলির মাধ্যমে অন্য স্নায়ু থেকে বার্তা প্রেরণ করে।

3. হৃদয় সুস্থ রাখার জন্যঃ-

হৃদয় সুস্থ রাখার জন্য

নিয়মিত পেস্তা বাদাম খেলে হৃদয় সুস্থ থাকে, হৃদরোগ সংক্রান্ত রোগগুলির প্রবণতা কম হয়। এটি পেশীর শক্তি বৃদ্ধি করে হার্টকে শক্তিশালী করে তোলে। পাশাপাশি খারাপ এলডিএল কম করে এবং ভাল এলডিএল বৃদ্ধি করে।

4. হিমোগ্লোবিন বৃদ্ধিঃ-

হিমোগ্লোবিন

পেস্তা বাদামে উপস্থিত ভিটামিন বি ৬ নামক প্রোটিনের উপাদান, যা রক্তে অক্সিজেন বহন করে। যদি প্রতিদিন এটা খাওয়া যায় তবে রক্তে হিমোগ্লোবিন এবং অক্সিজেনের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।

আরও পড়ুন । কাঠ বাদামঃ কাঠ মাদামের উপকারিতা ও গুণাগুণ

5. জ্বলন থেকে রক্ষাঃ-

পেস্তা বাদাম

এই বাদামে জ্বালা প্রতিরোধ করার গুণাবলী প্রচুর। পেস্তায় সমৃদ্ধ ভিটামিন এ, ভিটামিন ই এবং জ্বলন প্রতিরোধী ক্ষমতা রয়েছে হ’ল যা শরীরের কোনও রকমের সমস্যায় হাত থেকে রক্ষা করে।

6. প্রতিরোধক ক্ষমতা বৃদ্ধিঃ-

প্রতিরোধক ক্ষমতা বৃদ্ধি

আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যদি শক্তিশালী হয়, তবে সহজেই আমরা অনেক রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারি। ভিটামিন বি ৬ পেস্তায় পাওয়া যায়, যা প্রতিরোধের ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এটি রক্ত গঠনে এবং শরীরে রক্ত সঞ্চালন করার জন্য সহায়ক। এটি মস্তিষ্ক সক্রিয় করে তোলে।

7. ক্যান্সার থেকে রক্ষাঃ-

ক্যান্সার থেকে রক্ষা

ক্যান্সার একটি মারাত্মক রোগ, যা সহজেই নিরাময় করা যায় না। কিন্তু যদি আপনি নিয়মিত পেস্তা বাদাম খান তবে আপনি এই মারাত্মক রোগ থেকে বাঁচাতে পারবেন। এটিতে উপস্থিত ভিটামিন বি ৬, রক্তের কোষের সংখ্যা বাড়ায়।

8. সুস্থ ত্বকের জন্যঃ-

সুস্থ ত্বকের জন্য

সুস্থ ত্বক পেতে চান? তাহলে নিয়মিত পেস্তা বাদাম খান। স্বাস্থ্যকর চামড়ার জন্য ভিটামিন ই খুব প্রয়োজনীয়, যা পেস্তায় প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। এতে থাকা তেলটি আপনার ত্বককে ময়শ্চারাইজ করে রাখে এবং শুষ্কতার হাত থেকে রেহাই দেয়। এটি সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে। এটি ত্বক বৃদ্ধির বাধা দেয় এবং আপনাকে অল্প বয়স্ক দেখায়।

আরও পড়ুন ।   নিয়মিত চিনা বাদাম খাওয়ার উপকারিতা

9. চুলের পুষ্টির জন্যঃ-

পেস্তা বাদাম

রোজ পেস্তা বাদাম চুলের সমস্যা দূর করে। এতে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাটি এসিড থাকে, যা চুলের গোঁড়া শক্তিশালী এবং ঘন করে তোলে। এই বাদাম ব্যবহার করে যে হেয়ার মাস্ক তৈরি হয়, যা আপনার ভেতর থেকে ময়শ্চারাইজ করে এবং চুলের পুষ্টি উপাদান সরবরাহ করে। এর পাশাপাশি চুলের আগা ফাটা এবং চুল পড়ার সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়।

10. চোখের সমস্যা থেকে মুক্তিঃ

চোখের সমস্যা থেকে মুক্তি

পেস্তা চোখের জন্যও খুব উপকারি এবং চোখের রোগের সমস্যা থেকে রক্ষা করে। এটি মাস্কুলার বিকৃতি থেকে রক্ষা করে, যা বৃদ্ধ বয়েসে চোখের সাধারণ সমস্যা এবং যার ফলে চোখের দৃষ্টি শক্তি হারিয়ে যায়। পেস্তা বাদামে লুটিন এবং জ্যাক্স্যান্থিন নামক দুটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমূহ পাওয়া যায়, যা এই মুক্ত রেডিকেলসকে আক্রমণ করে এবং তাদের ধ্বংস করে। কোষগুলোকে ধ্বংস থেকে রক্ষা করে।

আরও পড়ুন ।  শসার উপকারিতাঃ নিয়মিত শসা খান এবং সুস্থ থাকুন

পেস্তা

পেস্তা কোন সময়ে খাওয়া উচিত (When Pistachios should be eaten)

সকালে আপনি পেস্তা খেলে ভালো উপকার পাবেন। সন্ধ্যায় ব্যায়াম করার পরে পেস্তা খাওয়া শরীরকে শক্তি দেয়। তবে রাতের বেলা একদমই খাওয়া উচিত নয়।

আরও পড়ুন ।  গাজরের পুষ্টিগুণঃ নিয়মত গাজর খেলেই হবে রোগ নির্মূল

পেস্তা বাদাম

পেস্তা বাদামের সাইড এফেক্ট (Side effects of Pistachios)

অতিরিক্ত পরিমাণে পেস্তা বাদাম খেলে কিছু সাইড এফেক্ট হতে পারে যেমন-

  • অ্যালার্জির সমস্যা।
  • কাশি, হাঁচি, ফুসকুড়ি এবং মুখের ফোলাভাবের মতো লক্ষণগুলির কারণ হতে পারে।
  • অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে ডায়রিয়া, পেট খারাপ হতে পারে।

Key Point: পেস্তা উচ্চ প্রোটিন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফাইবার সমৃদ্ধ। এছাড়াও এতে বি ৬ এবং পটাশিয়াম সহ গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি রয়েছে।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

Q. প্রতিদিন কতগুলি পেস্তা বাদাম খাওয়া প্রয়োজন?

A.  নিয়মিত একমুঠো পেস্তা বাদাম খাওয়া উচিত।

Q. দিনের কোন সময় পেস্তা খাওয়া ভালো?

A. সকাল বেলা খেলে সবচেয়ে উপকার।

Q.  রাতের বেলায় পেস্তা বাদাম খাওয়া কি উচিত?

A. না রাতের বেলা না খাওয়াই ভালো।

Q.  পেস্তা বাদাম খেলে কি অ্যালার্জি হয়?

A. যাদের খুব অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে তাদের পেস্তা বাদাম না খাওয়াই ভালো।

1 Comment

Leave A Reply

Please enter your comment!
Please enter your name here