নবজাতক শিশুর ত্বকের যত্ন নেওয়ার অসাধারণ টিপস

বাচ্চাদের ত্বক খুব নরম হয়, যার জন্য তার সঠিকভাবে দেখাশুনো করা অনেক জরুরী। যখন একটি শিশু জন্ম নেয় তখন তাদের ত্বক সবচেয় সুন্দর হয়। তাই ছোট বয়স থেকে পিতামাতার উচিত প্রতিটি শিশুর ত্বকের যত্ন নেওয়া। কারণ ছোট থেকে ত্বকের যত্ন নেওয়া শুরু করলে পুরো জীবন তাদের ত্বক সুরক্ষিত থাকতে পারে।

সন্তান জন্ম দেওয়ার পর থেকেই বাবা মা খুব চিন্তিত থাকেন শিশুর ত্বকের যত্ন নিয়ে। তাই তাদের জন্য আমাদের আজকের এই নিবন্ধ। কারণ আমরা আজকের এই নিবন্ধে শিশুদের ত্বকের যত্ন কেমন ভাবে নেওয়া উচিত আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নেব। আসুন তাহলে জেনে শিশুর ত্বকের যত্ন নেওয়া কয়েকটি অসাধারণ টিপস।

আরও পড়ুনঃ জেনে নিন, শিশুদের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার এ কী কী রাখা জরুরী

শিশুর ত্বক (Baby skin)

বাচ্চাদের ত্বক সাধারণত ত্বকের চেয়ে পাতলা হয়। পরিবেশের তাপমাত্রার সঙ্গে বাচ্চাদের ত্বকের পরিবর্তন হতে পারে। তাপমাত্রার পরিবর্তনগুলি সরাসরি বাচ্চাদের ত্বকে প্রভাবিত করে। এছাড়াও, বাচ্চাদের ত্বকে অ্যালার্জি , ফুসকুড়ি, সংক্রমণ এবং অন্যান্য সমস্যার ঝুঁকি বেশি থাকে।

শিশুর ত্বকের যত্ন কেন নেওয়া উচিত

Source

শিশুর ত্বকের যত্ন কেন নেওয়া উচিত (Why baby skin care should be taken)

জন্মের সময় থেকে কয়েক সপ্তাহ শিশুর ত্বকের অনের পরিবর্তন দেখা যায়।  শিশুর জন্মের পর কয়েক সপ্তাহের মধ্যে খুব কমন একটি সমস্যা র‍্যাশ হয়। যেহেতু শিশুদের ত্বক খুবই সেনসিটিভ, তাই এদের ত্বকের সবচেয়ে বেশি যত্নের প্রয়োজন। ত্বক হ’ল শিশুর প্রতিরক্ষামূলক, যা তাকে বাইরের বিশ্বের নেতিবাচক পরিবর্তন থেকে রক্ষা করে। তাই আমাদেরও শিশুর ত্বকের যথাযথ যত্ন নেওয়া উচিত।

শিশুর ত্বকের যত্ন অবহেলা করলে কী হবে

Source

শিশুর ত্বকের যত্ন অবহেলা করলে কী হবে (What will happen if the baby’s skin care is neglected)

শিশুদের ত্বক যেহেতু নরম, তাই তাদের জন্মানোর পর থেকে যত্ন না নিলে মারাত্মক সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। যেমন জন্মানোর পর থেকে তাদের ত্বকে অ্যালার্জি , ফুসকুড়ি, র‍্যাশ, চামড়া শুকিয়ে যাওয়া, সংক্রমণ এবং ত্বক লাল দাগেরর মতো সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে।

শিশুর ত্বকের যত্ন কীভাবে নেবেন

Source

শিশুর ত্বকের যত্ন কীভাবে নেবেন (How to take care of baby’s skin) 

নতুন পিতামাতার কাছে একটু কঠিন ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় শিশুর ত্বকের যত্ন রাখা। কারণ শিশুদের ত্বকে আমরা কোনও কসমেটিক প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে পারি না অথবা পরীক্ষা করে দেখতে পারি না কোন পণ্যটি তার জন্য পারফেক্ট হবে। তাই তাদের যত্নে বাড়তি কড়া নজর রাখতে হবে।

শিশুর ত্বক পরিষ্কার রাখা

  1. শিশুর ত্বক পরিষ্কার রাখা (Keep baby’s skin clean) 

সব বাবা মায়েরাই তাদের বাচ্চাদের ভালোভাবে যত্ন নেয়। তবে নবজাতক শিশুদের ত্বক সাধারণত মোমের মতো নরম হয় এবং মোমের মতো সাদা স্তর থাকে। এটি জন্মের প্রথম সপ্তাহ থেকে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেতে থাকে। এটি একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া, তাই এই স্তরটি সরাতে ত্বক ঘষা বা কোন ক্রিমের প্রয়োজন নেই। তবে জন্মের প্রথম সপ্তাহ থেকে শিশুর মুখ এবং ডায়পার অংশে পরিষ্কার করার জন্য বিশেষ মনোযোগ দিতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ ত্বক এবং চুলের জন্য আমন্ড অয়েলের উপকারিতা

শিশুর স্নান

Source

  1. শিশুর স্নান (Baby bath) 

প্রয়োজনের চেয়ে বেশি স্নান করালে শিশুর ত্বকে প্রাকৃতিক তেল দূর হয়ে যেতে পারে। যার ফলে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। তাই সপ্তাহে ৩-৪ বার স্নান করানোই যথেষ্ট। এছাড়া এটা লক্ষ্য রাখতে হবে স্নানের সময় হালকা সাবান এবং হালকা গরম জল ব্যবহার করা উচিত। স্নানের পর বাচ্চাদের ত্বক পরিষ্কার করার জন্য নরম তোয়ালে অথবা কাপড় ব্যবহার করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ ভেষজ চিকিৎসাঃ শুষ্ক ত্বকের জন্য ৬ টি ভেষজ চিকিৎসা

পাউডার ব্যবহার

Source

  1. পাউডার ব্যবহার (Use of powder)

স্নানের পর বাচ্চাদের ত্বক ভালো রাখতে পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন সেটা যেন বেবি পাউডার হয়। অন্য পাউডার বাচ্চাদের ত্বকে ক্ষতি করতে পারে।

আরও পড়ুনঃ জেনে নিন ঘরোয়া পদ্ধতিতে রূপচর্চা অসাধারণ টিপস

ডায়পার র‍্যাশ থেকে সচেতন

  1. ডায়পার র‍্যাশ থেকে সচেতন (Beware of diaper rash)

এখন বাচ্চাদের ডায়পার পরানো হয় যা থেকে তাদের স্কিন র‍্যাশ অথবা অ্যালার্জির সমস্যা হতে পারে। ডায়পার থেকে শিশুদের র‍্যাশ হওয়ার একমাত্র কারণ দীর্ঘক্ষণ ডায়পার পরিয়ে রাখার জন্য। তাই বাবা মায়েদের এদিক থেকে একটু সচেতন হতে হবে। সময়মতো শিশুদের ডায়পার পাল্টানো প্রয়োজন। আর অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার শিশুর ডায়পার যেন ভালো মানের হয়।

শিশুদের ত্বকের সমস্যা

  1. শিশুদের ত্বকের সমস্যা (Children’s skin problems)

অনেক সময় বাচ্চাদের ত্বকে ফুসকুড়ি বা অন্য কোন সমস্যা দেখা যায়। শিশুদের ত্বকের কোন রকম সমস্যা হলে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে হবে। ডাক্তারের পরামর্শ মতো চলতে হবে।

আরও পড়ুনঃ ছেলেদের পায়ের যত্নঃ পুরুষদের পায়ের যত্নের টিপস

তেল মালিশ

  1. তেল মালিশ (Oil massage)

বাচ্চাদের হাড় মজবুত করার সবচেয়ে ভালো উপায় হল তেল মালিশ। এর জন্য আপনি প্রাকৃতিক তেল ব্যবহার করতে পারেন। প্রাকৃতিক তেল দিয়ে শিশুদের হালকা মালিশ করলে হাড় মজবুত হওয়ার পাশাপাশি ত্বক ময়শ্চারাইজ করে।

তেল মালিশ করার জন্য খাঁটি সরিষার তেল (তেল খাঁটি হয় না হলে ক্ষতি হতে পারে), নারকেল তেল, জলপাইয়ের তেল, বাদামের তেল ব্যবহার করতে পারেন। তবে খাঁটি তেল ব্যবহার করবেন। বাজারে সাধারণ তেল বাচ্চাদের ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।

সূর্যের-রোদের-হাত-থেকে-শিশুকে-রক্ষা-করুনঃ

  1. সূর্যের রোদের হাত থেকে শিশুকে রক্ষা করুন (Protect the baby from the sun)

শিশুদের সূর্যের রোদ থেকে ত্বকের সমস্যা হতে পারে। তাই নবজাতকে শিশুদের সূর্যের হাত থেকে দূরে সরিয়ে রাখা ভালো। বাবা মায়েদের বিশেষ নজর দেওয়া উচিত যখন শিশুকে বাইরে বের করবে। সূর্যের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য শিশুদের ফুল হাতা জামা, প্যান্ট এবং মাথায় টুপি পরিয়ে বের করানো উচিত।

আরও পড়ুনঃ চুল এবং ত্বকের যত্নে মেথি ব্যবহারের উপকারিতা

শিশুর ত্বকের যত্ন অবহেলা করলে কী হবে

Source

শিশুর ত্বকের যত্নে কি করা উচিত নয় (What not to do in baby skin care)

নবজাতক শিশুর ত্বকের যত্নে অনেকেই কিছু ভুল করে থাকে যার ফলে ঘন ঘন শিশুটি অসুস্থ হয়ে পরে। তাই শিশুর ত্বকের যত্নে সাবধানতা খুব জরুরী। শিশুর ত্বকের যত্নের সময় যেই জিনিসগুলি এড়িয়ে চলবেন সেগুলি হল

  • বাচ্চাদের ত্বক সংবেদনশীল, তাই দিনে একবারের বেশি স্নান একদমই নয়। বার বার ত্বক পরিষ্কার করা অভ্যাস ছাড়ুন।
  • নবজাতক শিশুদের রোজ সাবান দিয়ে স্নান করাবেন না, এতে ঠাণ্ডা লাগতে পারে।
  • কোনও কেমিক্যাল প্রোডাক্ট বাচ্চাদের ব্যবহার করা একদমই উচিত নয়।
  • খাঁটি তেল ছাড়া বাচ্চাদের ত্বক মালিশ করা উচিত নয়।
  • ডায়পার পরানো যতটা পারবেন এড়িয়ে চলবেন।

শিশুদের জামা কাপড় সবসময় পরিষ্কার করে রাখতে হবে এবং নরম সুতির জামাকাপড় পরাতে হবে। শিশুদের ত্বকের যত্ন নেওয়া প্রত্যেক বাবা মার প্রয়োজন। তাদের ত্বক খুব নরম তাই কোন ক্ষতিকারক ক্রিম থেকে এড়িয়ে চলুন।

Keypoint: শিশুদের ত্বকের সৌন্দর্য বজায় রাখার জন্য বাড়তি যত্নের প্রয়োজন।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তর

Q. কীভাবে বাচ্চাদের ত্বক নরম রাখা যায়?

A.  প্রাকৃতিক তেল দিয়ে মাসাজ করলে বাচ্চাদের ত্বক নরম রাখা যায়।

Q. বাচ্চাদের কতবার স্নান করানো প্রয়োজন?

A. নবজাতক শিশুদের সপ্তাহে ৩/৪ দিন স্নান করানো প্রয়োজন।

Q. বাচ্চাদের ডায়পার পড়ালে কি বিপদ হতে পারে?

A. বাচ্চাদের ডায়পার পড়ালে স্কিনে র‍্যাশ হতে পারে। তাই যতটা সম্ভব কম পরানো উচিত।

Q. বাচ্চাদের সরিষার তেল কি ব্যবহার করা যায়? 

A. প্রাচীনকালে সরিষার তেল দিয়ে মালিশ করা হত। তবে অনেক ডাক্তাররা সরিষার তেল ব্যবহারের পরামর্শ দেন না। কারন এখনকার সরিষার তেলগুলি খাঁটি নাও হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here