স্বাস্থ্যের জন্য তোকমার উপকারিতা এবং নানা গুণাগুণ

তোকমার উপকারিতা

তোকমা নাম নিশ্চয়ই শুনেছেন। এই তোকমার উপকারিতা জানে আছে আপনাদের। ছোট কালো রঙের এই বীজটি স্বাস্থ্যের জন্য অনেক কার্যকরী। এই বীজ বিভিন্ন নামে পরিচিত। যেমন সবজা বীজ, মিষ্টি বসিল ইত্যাদি। এটি নানা ধরনের মিষ্টি খাবারে ব্যবহার করা হয়।

এটিতে স্বাস্থ্য সুবিধা রয়েছে অনেক। এটি আয়ুর্বেদিক এবং চীনা চিকিৎসায় পদ্ধতিতে ব্যবহৃত হয়। এই তোকমার বীজ বহু বছর ধরে ঘরোয়া প্রতিকারে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এতে প্রোটিন, ফাইবার এবং আয়রন প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। তোকমা সাধারণত হজম, ওজন হ্রাস, কাশি এবং সর্দির পাশাপাশি নিরাময় রোগ প্রতিরোধ বৃদ্ধি এবং অনেক স্বাস্থ্য উপকার সরবরাহ করে। তোকমার উপকারিতা আমাদের প্রতেকের জেনে রাখা উচিত। আসুন তাহলে আজকের এই নিবন্ধ থেকে জেনে নিই স্বাস্থ্যের জন্য তোকমার উপকারিতা এবং নানা গুণাগুণ।

তোকমার উপকারিতা এবং গুণাগুণ

  1. ঠাণ্ডা কাশির সমস্যা থেকে রেহাইঃ

ঠাণ্ডা কাশির সমস্যা থেকে রেহাইঃ

তোকমা বীজে অ্যান্টি স্পাজমেডিক রয়েছে, যা ঠাণ্ডা প্রতিরোধী উপাদান। যা স্বাস্থ্যের ঠাণ্ডা জনিত সমস্যার হাত থেকে রেহাই দেয়। এছাড়াও তোকমাতে উপস্থিত উপাদান অ্যান্টি ফাইরেটিক জ্বর কমাতে সহায়তা করে। শ্বাসকষ্টের মতো সমস্যা দূর করতে তোকমার উপকারিতা বহু। তাই ঠাণ্ডা কাশির সমস্যা থেকে রেহাই পেতে নিয়মিত তোকমা খেতে পারেন।

  1. রোগ প্রতিরোধরে ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করেঃ

রোগ প্রতিরোধরে ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করেঃ

তোকমা উচ্চমাত্রার ফ্ল্যাভনয়েড এবং ফেনোলিক উপাদান বিদ্যমান। এই দুটি উপাদান দেহের রোগ প্রতিরোধে ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। তোকমা বীজে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান, যা শরীরের ফ্রি রেডিকেলসের ক্ষতির হাত থেকে সুরক্ষা দেয়।

  1. পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়ঃ

পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়ঃ

পেটের জন্য তোকমার উপকারিতা অনেক। এটি পাচনতন্ত্রের উন্নতি করে। জলে ভিজালে এটি ফুলে যায় এবং উপরে জেলটিন স্তর গঠন করে। জলে ভিজিয়ে এটি খেলে পেট ভালো থাকে। এতে উপস্থিত ফাইবারগুলি অন্ত্রগুলি ভালোভাবে পরিষ্কার করে। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য, অ্যাসিডিটি এবং বদহজম দূর করে।

  1. ওজন কম করতে সহায়তা করেঃ

ওজন কম করতে সহায়তা করেঃ

তোকমায় কম ক্যালোরি থাকে এবং ক্ষুধা কমায়। সুতরাং এটি ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করতে পারে। তোকমায় উচ্চ পরিমাণে ফাইবার বিদ্যমান থাকায় অনেকটা সময় ধরে পেট ভর্তি থাকে । যার ফলে ওজন বৃদ্ধি পায় না। তাই ওজন কমাতে এটি খাবার তালিকায় যুক্ত করতে পারেন।

  1. মানসিক চাপ থেকে মুক্তি দেয়ঃ

মানসিক চাপ থেকে মুক্তি দেয়ঃ

তোকমা মস্তিষ্কের উপর খুব ভালো প্রভাব ফেলে। এটি চাপ এবং উদ্বেগের মতো সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করে। তাই তোকমা সেবন করলে মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

  1. শরীরের প্রদাহ হ্রাস করতে সহায়তা করেঃ

শরীরের প্রদাহ হ্রাস করতে সহায়তা করেঃ

তোকমায় অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি গুণ রয়েছে যা দেহের প্রদাহ হ্রাস করে। এটি শরীরে প্রদাহ বাধা প্রভাবের কারণে ডায়রিয়া হওয়ার সম্ভবনা থাকে।

  1. হৃদরোগ নিরাময় করতে সহায়তা করেঃ

হৃদরোগ নিরাময় করতে সহায়তা করেঃ

তোকমা আয়ুর্বেদে হাইপারটেনশনের চিকিৎসা হিসাবে ব্যবহৃত হয়। এটি সেবনে কোলেস্টেরলের মাত্রা বজায় রাখতে সহায়তা করে । উচ্চ কোলেস্টেরল এবং উচ্চ রক্তচাপ দুটি সমস্যা যা হৃৎপিণ্ডের জন্য মারাত্মক। এই দুটি সমস্যার তোকমা ভালো বলে বিবেচিত করা হয়েছে। যার জন্য এটি সেবনে হার্টের সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়।

  1. কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সহায়তা করেঃ

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সহায়তা করেঃ

তোকমা শরীরে ডিটক্স এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে ব্যবহৃত হয়। এর জন্য কয়েকদিন ঘুমানোর আগে আপনার এক গ্লাস দুধে তোকমার বীজ মিশিয়ে পান করুন। এটি আপনার পেট পরিষ্কার করতে কাজ করে। এই বীজে প্রয়োজনীয় তেল থাকে যা গ্যাস থেকে মুক্তি দেয় এবং হজমে সহায়তা করে।

তাহলে দেখতে পেলেন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য তোকমা উপকারি অনেক। তাহলে আজ থেকেই এই উপাদানটি আপনার ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করুন।

সারকথাঃ

তোকমাকে তুলসীর বীজ বলা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here