নিমপাতার গুণাগুণঃ নিমপাতার অসাধারণ ৯ টি গুণাগুণ

নিমপাতার গুণাগুণ

নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- images-na.ssl-images-amazon . com

নিম সাধারণ ভারতীয় একটি বৃক্ষ, যা ভারতের প্রত্যেক জায়গায় পাওয়া যায়। এটি একটি উপকারি গাছ। নিমপাতা ভেষজ গুনে সমৃদ্ধ। প্রাচীনকাল থেকে নিমকে আয়ুর্বেদের ঔষধ হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এমনকি আজও বিভিন্ন রোগ নিরাময়ের জন্য নিমপাতা ব্যবহার করা হয়। নিমপাতার গুণাগুণ আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য তো উপকৃতই এর বীজ, গাছ এবং ফুলও কার্যকারী।

নিমের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে। উপরন্তু, নিম ইনফেকশন, ত্বক রোগ, ম্যালেরিয়া মতো অনেক রোগের চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করা হয়। নিমপাতা শরীরের ভিন্ন রোগ অপসারণে উপকারী।

স্বাস্থ্যের যত্নে নিমপাতার গুণাগুণ

  • কানের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ –

কানের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ

আপনি হয়তো জানেন না নিমপাতার তেল কানের জন্য উপকারি। নিমের তেল কানের দিলে কানে ব্যথার সমস্যা কম হয়। নিমপাতা তেল গরম করে উষ্ণ করে নিন। এবার ঠাণ্ডা হয়ে গেলে কয়েকফোঁটা করে নিয়মিত কানে দিলে কানে ব্যথার সমস্যা দূর হবে।

  • দাঁতের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ

দাঁতের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- static1.squarespace . com

নিমপাতা দাঁতের জন্য অত্যন্ত উপকারি। নিয়মিত নিমপাতার দাঁতন করার ফলে দাঁতে জমে থাকা ব্যাকটেরিয়া দূর হয়। এতে দাঁতের মাড়ি শক্তিশালী হয় এবং দাঁত স্বাস্থ্যকর হয়। যাদের দাঁতে পায়রিয়া এবং রক্ত পড়ার সমস্যা রয়েছে তাদে রজলে নিমপাতার ছাল এবং পাতা মিশিয়ে কুলকুচি করলে উপকার দেবে।

  • পেটের সমস্যায় নিমপাতার গুণাগুণ

পেটের সমস্যায় নিমপাতার গুণাগুণ

পেটের বিভিন্ন ধরণের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নিমপাতা কার্যকারিতা অনেক। পেটের কৃমি বিন্যাসের জন্য নিমপাতার রসের সঙ্গে মধু এবং কালো মরিচ মিশিয়ে খেলে উপকৃত হবেন। নিমের ফুল গরম জলে মিশিয়ে ছেঁকে নিন। এই জল পান করলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। ডায়রিয়া রোগের চিকিৎসায় নিম পাতা শুকিয়ে চিনি মিশিয়ে খেলে উপকার দেয়।

  • ভাইরাস রোগব্যাধি দূর করতে নিমপাতার গুণাগুণ

ভাইরাস রোগব্যাধি দূর করতে নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- takemyaudition . com

বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার জন্য নিমপাতা ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন ভাইরাস রোগের থেকে আমাদের সুরক্ষিত করে। অ্যান্টি ভাইরাল বৈশিষ্ট্য থাকার জন্য নিমপাতা গরম জলে উষ্ণ করা হয় এবং এটি স্নানের জন্য ব্যবহার করা হয়। কারণ এতে ত্বকের ইনফেকশন দূর হয়।

  • জ্বালা এবং ফুসকুড়ি কম করতে নিমপাতার গুণাগুণ

জ্বালা এবং ফুসকুড়ি কম করতে নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- altmedicinezone . com

পোড়া আক্রান্ত অংশে নিম তেল বা নিমপাতা পেস্ট করে লাগালে জ্বালা কম হয়। নিমপাতা এবং নিম টেলে এন্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তাই কাটা জায়গায় নিমপাতা বা তার তেল লাগালে টিটেনাসের ভয় থাকে না। এছাড়াও আপনার যদি ফোঁড়া বা ফুসকুড়ির সমস্যা থাকে তার থেকে মুক্তি পেতে নিমপাতা, ছাল এবং ফল সমান পরিমাণ নিয়ে পেস্ট করে নিন নিয়ে ত্বকে লাগান। এর ফলে ফোঁড়া বা ফুসকুড়ি দ্রুত সেরে যাবে।

  • ডায়াবেটিস চিকিৎসায় নিমপাতার গুণাগুণ

ডায়াবেটিস চিকিৎসায় নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- healthindian . com

নিমপাতা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য একটি চমৎকার ঔষধ। যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তাদের নিমের রস খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। তবে অতিরিক্ত পরিমাণ খেলে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য খারাপ হতে পারে। তাই চিকিৎসকের মতামত গ্রহণ করে খাওয়া শ্রেষ্ঠ।

  • কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে নিমপাতার গুনাগুন –

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে নিমপাতার গুনাগুন

নিমপাতায় ভেষজ গুণ রয়েছে। নিয়মিত নিমপাতার রস এবং অ্যালোভেরা রস মিশিয়ে খালি পেতে পান করলে সুগার নিয়ন্ত্রণে করা সম্ভব। এছাড়াও নিম একটি রক্ত শোধক উপাদান এটি কোলেস্টেরল কম করতে সহায়তা করে।

  • ত্বকের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ –

ত্বকের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- i.ytimg . com

নিয়মিত নিমপাতার রস খেলে ব্লাড পরিষ্কার হয়, যার ফলে ত্বক উজ্জ্বলতা বাড়ে। নিম তেলে পুরো বডি মালিশ করলে এতে চামড়া তরতাজা হয়। এছাড়াও নিয়মিত নিমপাতা জলে ফেলে স্নান করলে ত্বকে ইনফেকশন হওয়ার সম্ভবনা কম থাকে।

  • চুলের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ –

চুলের জন্য নিমপাতার গুণাগুণ

সূত্র :- hindustantimes . com 

এটা অনেকেরই অজানা নিমপাতা চুলের ভালো কন্ডিশনার। নিমপাতা সেদ্ধ করে ভালোভাবে পেস্ট করে নিন। এবার এই পেস্টে মধু মিশিয়ে চুলে লাগালে চুলের রুক্ষতা দূর হয় এবং চুল হয়ে নরম এবং চকচকে।

তাহলে নিমপাতার ৯ টি অসাধারণ গুণাগুণ জেনে গেলেন। আশা করি আজকের নিবন্ধ আপনাদের ভালো লাগবে।

সারকথাঃ

নিমপাতা চুলের খুশকির সমস্যা দূর করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here