বাজার অর্থনীতির বৈশিষ্ট্যঃ মুক্ত বাজারে অর্থনীতির বৈশিষ্ট্য

সাধারণত বাজার বলতে বোঝায়, কোন নির্দিষ্ট জায়গায় দ্রব কেনা বেচা। মুক্ত অর্থনীতি বাজার বলতে বোঝায়, যেখানে স্বাধীনভাবে ব্যাক্তি নিজের অর্থনৈতিক সিধান্ত গ্রহণ করতে পারে এবং সর্বোচ্চ মুনফা অর্জন করতে পারে। যেখানে যোগান ও চাহিদার দাম দ্বারা নির্ধারিত হয়ে থাকে। মুক্ত বাজার অর্থনীতির নিয়ম হছে বাজারের চাহিদা ও সরবরাহের উপর দ্রব মূল্য নির্ভর করে। মুক্ত বাজার অর্থনীতির বৈশিষ্ট্য এর মূল উপাদান হল পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে ক্রেতার পছন্দের অধিকার।

অর্থনীতি কী?

অর্থনীতি হল সামাজিক বিজ্ঞান, যেটা পণ্য বণ্টণ, সেবা, উৎপাদন, ব্যয় নিয়ে আলোচনা করে থাকে। যেটি ইংরেজী ভাষায় “ ইকোনামিক” বলা হয়ে থাকে। পণ্য এবং পরিসেবা, উৎপাদন , উৎপাদন এবং খরচ বিশ্লেষণ এবং বিশ্লেষণ সঙ্গে প্রধানত সংশ্লিষ্ট একটি সামাজিক বিজ্ঞান।

মুক্ত বাজার অর্থনীতির বৈশিষ্ট্য

  • অর্থনীতির স্বরূপঃ
    সরকার মুক্ত বাজার নিয়ন্ত্রণ করে না। তাই প্রতিষ্ঠানের মালিক বা বিনিয়োগকারী সংস্থাকে এই বিষয়ে সিধান্ত গ্রহণ করতে হবে। কোন দেশের দ্রবের গুনাগুণ, চাহিদা নির্ভর করে, সেই দেশের আর্থিক বাজারের উপর। ভোক্তার চাহিদার উপর পণ্যের উৎপাদন নির্ভর করে। চাহিদা বাড়লে উৎপাদন রীতিমতো বাড়বে।
  • অর্থনীতির বিবর্তনঃ
    বাজার অর্থনীতির পরিবর্তিত রূপই হলো মুক্তবাজার অর্থনীতি। উৎপাদন ও বিনিময়ের সঙ্গে জড়িত থেকেই বাজার অর্থনীতির উদ্ভব হয়েছিল। বাজার ব্যবস্থা বিকাশের গোড়ার দিকে সরকার কঠোরভাবে বাজার নিয়ন্ত্রণ করত।
  • পণ্য সম্পর্কিত ধারণা:
    এই বাজারে যোগান ও চাহিদা দাম দ্বারা নির্ধারিত হয়। দ্রবের নিজস্ব দাম ও চাহিদার মধ্যে বিপরীতমুখী সম্পর্ক কাজ করে। সাধারণত কোন জিনিসের দাম বাড়লে চাহিদা কমে একইভাবে জিনিসটির দাম কমলে চাহিদা বাড়ে। আবার চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উৎপাদনও বাড়বে। মুক্ত বাজারে মালিকের সঙ্গে ভোক্তাও লাভবান হয়ে থাকে।

সম্পর্কিত নিবন্ধ চেক করুন :- 

মুক্ত বাজার অর্থনীতির বৈশিষ্ট্য এ ইতিবাচক দিক:

1. অর্থনীতি বাজারে মুক্ত বাজার ব্যবস্থাটি আধুনিক স্বীকৃতি পেয়েছে। যোগান ও চাহিদার উপর পণ্যের উৎপাদন নির্ভর করে বলে বর্তমানে পণ্য সরবরাহ বৃদ্ধি পাছে।
2. এই ব্যবস্থায় সরকারের নিয়ন্ত্রণ নেই বলে মালিক, শ্রম, কারিগররা নিজদের পছন্দ মতো পণ্য সরবরাহ তো করেই থাকে তার সঙ্গে সঙ্গে ভোক্তারাও নিজেদের ইচ্ছা মতো পণ্য ক্রয় করতে পারে।
3. প্রতিযোগিতামূলক বা একচেটিয়া অর্থনীতির বাজারগুলোতে পণ্যমূল্য কম হয়ে থাকে, সেখানে ভোক্তার অধিকার রক্ষিত হয়ে থাকে। কিন্তু মুক্ত বাজারে ভোক্তা ও কারিগরের উভয়ের অধিকার অনুকূল থাকে।
4. একটি মুক্ত বাজারে, উৎপাদনকারী ভোক্তাদের সন্তুষ্ট জনক পণ্যের মূল্য নির্ধারিত করে। এটি ভোক্তাদের তাদের কেনাকাটা জন্য আরো পছন্দ দেয়।
5. সরকার নিয়ন্ত্রনহীন বলে স্বাধীনভাবে কাজ সক্ষম হয়।

সারকথাঃ
মুক্ত বাজারে এই ধরণের ইতিবাচক দিকগুলি থাকয় এই ব্যবস্থা খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

মুক্ত বাজার অর্থনীতির বৈশিষ্ট্য এ নেতিবাচক দিক:

1.বাজার অর্থনীতির বৈশিষ্ট্য এর ইতিবাচক দিকগুলির সঙ্গে কিছু কিছু নেতিবাচক দিক ও রয়েছে।
2. যেহেতু সরকার নিয়ন্ত্রিত বাজার নয়, সেক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের মালিক বা সংস্থাকেই দায়িত্ব নিতে হয়।
3. এই ব্যবস্থা মুক্ত হওয়ার ফলে ভৌগলিক সীমারেখা অতিক্রম করে। ফলে উন্নত দেশের সঙ্গে দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলি টিকতে পারে না।
4. এই ব্যবস্থায় চাহিদার উপর দ্রবের উৎপাদন নিয়ন্ত্রণ করে বলে, চাহিদা কমলে দ্রবের উৎপাদনও কমে যাবে।
5. বিদেশী পণ্যের স্থান শীর্ষে থাকার ফলে দেশীয় ক্রেতারা বিদেশী পণ্য ক্রয় করতে বেশি আগ্রহী। যার ফলে দেশীয় বাজারের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে।
6. কিছু সদস্য বয়স্ক বা বেকারদের সাথে কাজ করতে পারবে না। কারণ তাদের দক্ষতাগুলি বাজারযোগ্য নয়)। তারা চলে যাবে এবং দারিদ্র্যের মধ্যে পড়বে (যদি কোন সরকার না থাকে তবে তাদের সাহায্য করা যাবে না)।

সারকথাঃ
একটি বিনামূল্যে বাজার পদ্ধতিতে সরকারী হস্তক্ষেপ বা একচেটিয়া মূল্য নির্ধারিত নেই। সরবরাহকারী এবং ভোক্তাদের মধ্যে পণ্য এবং পরিষেবা বিনিময় স্বেচ্ছাসেবক, এবং সমস্তব্যবসার ব্যবস্থা বিকেন্দ্রীভূত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here