বছরের সেরা ডিএসএলআর ক্যামেরা তালিকা

ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) কি

আজকের পোস্টে আমরা একটু ক্যামেরা নিয়ে আলোচনা করব। যুগের পরিবর্তনের সঙ্গে শুধু মানুষের লাইফ স্টাইলের পরিবর্তন তা নয় কিন্তু সবকিছুর পরিবর্তন হচ্ছে এমনকি আমদের চারপাশের প্রয়োজনীয় গ্যাজেটগুলোও। আগে আমরা ছবি ক্যাপচার করার জন্য ক্যামেরা ব্যবহার করতাম তবে, তা ছিল খুবই সাধারণ। সমাজের বদলের সঙ্গে ক্যামেরায় এসেছে আমূল পরিবর্তন। ক্যামেরায় এসেছে নতুনত্বের ছোঁয়া এবং অসাধারণ ফিচারস। বর্তমানে আবার ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) ট্রেন্ড চলছে। ফটোগ্রাফার থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের কাছে এখন এই গ্যাজেটি স্টাইল আইকন হয়ে উঠেছে।

বিয়ে, পার্টি, ফটোগ্রাফি অথবা প্রি ওয়েডিং ছবিই বলুন সব কিছুতেই ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) ছাড়া অচল। এককথায় সেরা ফোটো মানেই ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera)। কিন্তু মানুষ কেন এই ব্যবহার করছে বা এতে এমন কেমন ফিচারস রয়েছে যাতে মানুষ দিনের পর দিন এর ভক্ত হয়ে উঠেছে । তাহলে চলুন না আজকের এই আর্টিকেলে ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) ঘিরে ভিন্ন ধরণের তথ্য জেনে নিই। এছাড়াও এই আর্টিকেলে বছরের সেরা ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) তালিকা দেওয়া হল।

ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) কি

সূত্র :- mondrian.mashable . com

ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) কি?

এসএলআর ক্যামেরার (SLR camera) কথার অর্থ হল সিঙ্গেল লেন্স রিফ্লেক্স (Single lens reflex) এবং ডিএলআর ক্যামেরা (DLR camera) কথার অর্থ হল ডাবল লেন্স রিফ্লেএক্স ( double lens reflex)। ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) কথার অর্থ হল ডিজিটাল সিঙ্গেল লেন্স রিফ্লেএক্স ক্যামেরা (Digital single lens reflex)। এসএলআর ক্যামেরায় ছবি ক্যাপচার করার জন্য ফটো রিল লাগাতে হয় । অন্যদিকে ডিএসএলআর ক্যামেরায় ছবি ক্যাপচার করার জন্য সেন্সর লাগানো থাকে। ছবিগুলি মেমরিতে রেকর্ড করা হয়।

অর্থাৎ এটি যেকোনো ছবি ডিজিটাল ক্যাপচার করে তাই এটিকে ডিজিটাল সিঙ্গেল লেন্স ক্যাপচার বলা হয়। এখানে ছবি সেভ করে রাখা যায় আবার ডিলিট করা যায় এবং পুনারায় ফটো তুলতে পারবেন । ডিজিটাল ক্যামেরাগুলিতে যত বেশি মেগা পিক্সেল থাকবে তত বেশি ছবি রাখার ক্ষমতা থাকবে। এবং এতে ছবি আসবে ডিজিটাল ও ব্রাইট।

বছরের সেরা ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) তালিকাঃ

  • নিকন ডি৩৩০০

নিকনের ডি৩৩০০ মডেলের ক্যামেরাটি নতুন ফটোগ্রাফারদের জন্য খুবই ভালো একটি ক্যামেরা। ২৪ দশমিক ২ মেগাপিক্সেলের এই ক্যামেরা নিকনের অন্যান্য ডিএসএলআর ক্যামেরার মতোই কাজ করে। তবে দাম তুলনামূলকভাবে কম। তবে এর দুর্বলতার মধ্যে রয়েছে এতে কোনো আর্টিকুলেটেড টাচ-স্ক্রিন ডিসপ্লে বা ওয়াই-ফাই সংযোগ নেই।

  • ক্যানন ইওএস ৭৫০ডি (রেবেল টি৬আই)

উচ্চমাত্রার আইএসও সেন্সিটিভিটির জন্য দারুণ ঝকঝকে ছবি তোলা যায় এই ক্যামেরা দিয়ে। এর মেগাপিক্সেল ২৪ দশমিক ২। ক্যানন ৭৫০ডি মডেলের ক্যামেরাটিতে রয়েছে উন্নতমানের অটোফোকাস এবং এক্সপোজার মিটারিং সিস্টেম। আরো আছে বিল্ট-ইন ওয়াই-ফাই ও এনএফসি।

  • নিকন ডি৫৫০০

ক্যাননের ৭৫০ডি মডেলের ক্যামেরার সঙ্গে নিকন ডি৫৫০০ ক্যামেরার তুলনা চলে। নিকনের ডি৩০০০ সিরিজের ক্যামেরাগুলো তৈরি করা হয়েছিল নতুন ফটোগ্রাফারদের হাতে কম দামে ডিএসএলআর ক্যামেরা তুলে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে। এতে রয়েছে টাচস্ক্রিন কন্ট্রোল, বিল্ট-ইন ওয়াই-ফাই। এর মেগাপিক্সেল ২৪ দশমিক ২।

সেন্সর : এপিএস-সি সিএমওএস

মেগাপিক্সেল : ২৪ দশমিক ২

লেন্স অ্যামাউন্ট : নিকন ডিএক্স

স্ক্রিন : ৩ দশমিক ২ ইঞ্চি আর্টিকুলেটিং টাচ-স্ক্রিন, ১০ লাখ ৪০ হাজার ডটস

কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড : ৫এফপিএস

সর্বোচ্চ ভিডিও রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল

দাম : ৬৩৯ ডলার থেকে শুরু

নিকন ডি ৫৩০০

নিকন ডি ৫৩০০ ক্যামেরায় ২৪.২ মেগাপিক্সেল সেন্সর এবং তার সাথে রয়েছে আইডেন্টিকাল মেক্সিমাম আইএস ২৫৬০০ সেন্সিটিভি। এই ক্যামেরার টাচস্ক্রিন খুব একটা সুবিধার না হলেও এতে আছে জিপিএস।

সেন্সরঃ এপিএস- সি সি এমওএস। মেগাপিক্সেলঃ নিকন ডিএক্স। স্ক্রিন ৩.২ ইঞ্চ আর্টিকুলেটিং ১৩৭০০০ ডটস। কন্টিনিউয়াস শুটিং গতিঃ ৫ এফপিএস। রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল। দামঃ ৫১০ ডলার থেকে শুরু।

  • ক্যানন ইওএস ৭০০ডি (রেবেলটিআই)

২০১০ সালে প্রথম বাজারে ছাড়া হয়েছিল এই ক্যামেরা। তবে এখনো ফটোগ্রাফি শেখার জন্য প্রাথমিকভাবে এটি খুবই ভালো ক্যামেরা। এতে রয়েছে নাইন-পয়েন্ট অটোফোকাস সিস্টেম ও ওয়াই-ফাই কানেক্টিভিটি।

সেন্সর : এপিএস-সি সিএমওএস

মেগাপিক্সেলঃ ১৮

লেন্স মাউন্ট : ক্যানন ইএফ-এস

স্ক্রিন : ৩ ইঞ্চি আর্টিকুলেটিং টাচস্ক্রিন, ১০ লাখ ৪০ হাজার ডটস

কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড : ৫ এফপিএস

সর্বোচ্চ ভিডিও রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল

দাম : ৪৯৭ ডলার থেকে শুরু’

  • ক্যানন ইওএস ১২০০ডি (রেবেল টি৫)

ক্যাননের ১৩০০ডি ও ১২০০ডি ক্যামেরা প্রায় একই ধরনের। এতে রয়েছে ১৮ মেগাপিক্সেলের সেন্সর । আরো আছে ৩ এফপিএস কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড।

সেন্সর : এপিএস-সি সিএমওএস

মেগাপিক্সেল : ১৮

লেন্স অ্যামাউন্ট : ক্যানন ইএফ-এস

স্ক্রিন : ৩ ইঞ্চি, ৪ লাখ ৬০ হাজার ডটস

কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড : ৩ এফপিএস

সর্বোচ্চ ভিডিও রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল

দাম : ৩২৪ ডলার থেকে শুরু

  • ক্যানন ইওএস ৭০০ডি (রেবেলটি৫আই)

২০১০ সালে প্রথম বাজারে ছাড়া হয়েছিল এই ক্যামেরা। তবে এখনো ফটোগ্রাফি শেখার জন্য প্রাথমিকভাবে এটি খুবই ভালো ক্যামেরা । এতে রয়েছে নাইন-পয়েন্ট অটোফোকাস সিস্টেম ও ওয়াই-ফাই কানেক্টিভিটি।

সেন্সর : এপিএস-সি সিএমওএস

মেগাপিক্সেল ১৮

লেন্স মাউন্ট : ক্যানন ইএফ-এস

স্ক্রিন : ৩ ইঞ্চি আর্টিকুলেটিং টাচস্ক্রিন, ১০ লাখ ৪০ হাজার ডটস

কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড : ৫ এফপিএস

সর্বোচ্চ ভিডিও রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল

দাম : ৪৯৭ ডলার থেকে শুরু

পেনট্যাক্স কে৫০

কম দামে ভালো ডিএসএলআর ক্যামেরা নিয়ে আসার জন্য সুনাম রয়েছে পেনট্যাক্সের। পেনট্যাক্সের কে-৫০ ও তেমন ক্যামেরা । যেকোনো আলোতে ছবি তোলার জন্য বেশ ভালো এই ক্যামেরা । এই ক্যামেরার লেন্সগুলো ওয়েদার রেজিসটেন্ট (ডব্লিউআর) প্রযুক্তিতে তৈরি। তবে সব ধরনের লেন্স এই ক্যামেরায় ব্যবহার করা যায় না ।

সেন্সর : এপিএস-সি সিএমওএস

মেগাপিক্সেল : ১৬ দশমিক ৩

লেন্স অ্যামাউন্ট : পেনটাক্স কে

স্ক্রিন : ৩ ইঞ্চি, ৯ লাখ ২১ হাজার ডটস

কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড : ৬ এফপিএস

সর্বোচ্চ ভিডিও রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল

দাম : ৪৩২ ডলার থেকে শুরু

  • ক্যানন ইওএস ১৩০০ডি (রেবেল টি৬)

১২০০ডি এর মতোই সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে ১৩০০ডি ক্যামেরাটিতে । শখের বসে বা ছবি তোলা শেখার জন্য ভালো ক্যামেরা এটি । এতে রয়েছে বিল্ট-ইন ওয়াই-ফাই ও এনএফসি টেকনোলজি। এতে রয়েছে ৩ ইঞ্চি স্ক্রিন ।

সেন্সর : এপিএস-সি সিএমওএস

মেগাপিক্সেল : ১৮

লেন্স অ্যামাউন্ট : ক্যানন ইএফ-এস

স্ক্রিন : ৩ ইঞ্চি, ৯ লাখ ২০ হাজার ডটস

কন্টিনিউয়াস শুটিং স্পিড : ৩ এফপিএস

সর্বোচ্চ ভিডিও রেজ্যুলেশন : ১০৮০ পিক্সেল

দাম : ৩৯৮ ডলার থেকে শুরু

সুপারিশ নিবন্ধন :-

নিকন ডিএইটফাইভজিরো ( Nikon D850)
Source: instagram

এখনো পর্যন্ত আমরা এপিএস -সি ফরম্যাট ডিএসএলআর ক্যামেরাগুলি (DSLR camera) খুঁজি কারণ এগুলি সেরা ফিচারস এবং গুনমান, মূল্যের সবচেয়ে ভালো অফার পাওয়া যায়। তবে আপনি যদি পিকচার কোয়ালিটি দিকে তাকান, তাহলে আপনার ফুল ফ্রেম ডিএসএলআর চয়েস করা উচিত। এখনো পর্যন্ত নিকন ডি 85 হল সেরা ডিএসএলআর। নিকন ডি 850 একটু ব্যয়বহুল হলেও ফুল ফ্রেমের জন্য সেরা। এতে ৪৫.৭ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে।

এতে হাই-টেক মিটারিং এবং অটোফোকাস মডিউল রয়েছে যা অটোফোকাস সিস্টেম 53 পয়েন্টের পরিবর্তে ১৫৩ এবং প্রতি সেকেন্ডে সাতটি ফ্রেমে চিত্রগুলি ক্যাপচার করতে পারে। 4k ক্যামেরার মধ্যে এটি অসাধারণ ভিডিও তৈরি করতে পারে।

 

নিকন ডিএইটফাইভজিরো ( Nikon D850):

 

টাইপ (Type)

ডিএসএলআর (DSLR)

 

সেন্সর (Sensor)

 

ফুল ফ্রেম সিএমওএস (Full frame CMOS)

 

লেন্স (Lens)

 

নিকন এফএক্স (Nikon FX)

গতি (speed)

সেভেন এফপিএস ( 7fps)

ভিডিও রেজ্যুলেশন (video resolution)

৪ কে ( 4K)

অটোফোকাস (Autofocus)

১৫৩ পয়েন্ট এএফ (153-point AF)

মেগাপিক্সেল ( Megapixels)

৪৫.৪ মেগাপিক্সেল 45.4MP

ইউজার লেভেল (User level)

এক্সপার্ট (Expert)
স্ক্রিন টাইপ (Screen type)

৩.২ ইঞ্চ (3.2-inch tilt angle touchscreen)

  • নিকন ডি৫০০ (Nikon D500):

নিকন ডি৫০০ (Nikon D500)
Source: Instagram

এই মডেলটি অন্যান্য এপিএস- সি ফরম্যাটের তুলনায় মূল্যের স্কেলে শীর্ষে রয়েছে তবে অন্যদিক থেকে দেখতে গেলে কোম্পানির ফুল ফ্রেম ডি5 মডেলের তুলনায় সস্তা। এতে রয়েছে বিল্ট ইন ওয়াই- ফাই এবং টাচ স্ক্রিন । এতে মেগাপিক্সেল রয়েছে ২৪.২ মেগাপিক্সেল। এটি ছোট ছোট এপিএস-সি সেন্সর ফর্ম্যাট ব্যবহার করে। ১০fsp সুপারফাস্ট ড্রাইভ রেট এবং ব্যতিক্রমী মেমরির ক্ষমতা সহ ফটোগ্রাফারদের জন্য একটি দর্শনীয় ক্যামেরা বলা যেতে পারে। 153-পয়েন্ট এএফ সম্ভবত এখন সেরা অটোফোকাস সিস্টেম।

নিকন ডি৫০০ (Nikon D500)

টাইপ (Type)

ডিএসএলআর (DSLR)

সেন্সর (Sensor)

এপিসি (APS-C)

লেন্স (Lens)

নিকন ডিএক্স (Nikon DX)

গতি (speed)

টেন এফপিএস (10fps)

ভিডিও রেজ্যুলেশন (video resolution)

৪ কে (4K)

অটোফোকাস (Autofocus)

১৫৩ পয়েন্ট এএফ (153-point AF)

মেগাপিক্সেল ( Megapixels)

২০.৯ মেগাপিক্সেল (20.9MP)

ইউজার লেভেল (User level)

এক্সপার্ট (Expert)

স্ক্রিন টাইপ (Screen type)

৩.২ ইঞ্চ (3.2in tilting touchscreen, 2,359,000 dots)

  • নিকন ডি7500 (Nikon D7500):

নিকন ডি7500 (Nikon D7500)
Source: Instagram

নিকন ডি500 মডেলের তুলনায় এটি সস্তা তবে ফিচারস একই নয় । দুটো মডেলের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে । নিকন ডি7500 ২০.৯ মেগাপিক্সেল সেন্সর প্যাকগুলির মধ্যে অসাধারণ। হয়তো ১৫৩ পয়েন্ট এএফ সিস্টেম নেই তবে ৫১ পয়েন্ট অটোফোকাস সিস্টেম রয়েছে। এবং ৪ কে ভিডিও ক্যাপচার করার মতো ক্ষমতা রয়েছে । টিল্ট অ্যাঙ্গেল টাচ স্ক্রিন ডিসপ্লে এবং 8এফপিএস শ্যুটিং। ডি7500 ক্যামেরাটি ফটো প্রেমিকদের জন্য এখনো সেরা ডিএসএলআর এর মধ্যে একটি।

নিকন ডি7500 (Nikon D7500

টাইপ (Type)

ডিএসএলআর (DSLR)

সেন্সর (Sensor)

এপিএস- সি সিএমওএস (APS-C CMOS)

লেন্স (Lens)

নিকন ডিএক্স (Nikon DX)

গতি (speed)

৮ এফপিএস (8fps)

ভিডিও রেজ্যুলেশন (video resolution)

৪ কে (4K)

অটোফোকাস (Autofocus)

৫১ পয়েন্ট এএফ (51-point AF, 15)

মেগাপিক্সেল ( Megapixels)

২০.৯ মেগাপিক্সেল (20.9MP)

ইউজার লেভেল (User level)

Enthusiast

স্ক্রিন টাইপ (Screen type)

৩.২ ইঞ্চ (3.2-inch tilt-angle touchscreen, 922,000 dots)

  • ক্যানন ইওএস 80ডি (Canon EOS 80D):

ক্যানন ইওএস 80ডি (Canon EOS 80D)
Source: Instagram

এটি ফটোগ্রাফারদের জন্য সেরা ক্যানন ক্যামেরা। এটি একটি দ্রুত এবং কার্যকরী 45-পয়েন্ট অটো-ফোকাসিং সিস্টেম রয়েছে, যখন লাইভ ভিউ শ্যুটিংয়ের জন্য অসাধারণ। ক্যামেরা হ্যান্ডলিং চমৎকার, সৃজনশীল শুটিং এর পাশাপাশি সেটিং দ্রুত এবং সহজ। এই মডেলটিতে উচ্চমানের ২৪.২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে।

ক্যানন ইওএস 80ডি (Canon EOS 80D)

টাইপ (Type)

ডিএসএলআর (DSLR)

সেন্সর (Sensor)

এপিএস- সি (APS-C)

লেন্স (Lens)

ক্যানন ইএফ- এস Canon EF-S

গতি (speed)

সেভেন এফপিএস (7fps)

 

ভিডিও রেজ্যুলেশন (video resolution)

১০৮০পি ফুল এইচ ডি( 1080p (Full HD)

অটোফোকাস (Autofocus)

৪৫ পয়েন্ট এএফ (45-point AF)

মেগাপিক্সেল ( Megapixels)

২৪.২ মেগাপিক্সেল (24.2MP)

ইউজার লেভেল (User level)

Enthusiast

স্ক্রিন টাইপ (Screen type)

৩ ইঞ্চ (3.0-inch, 1,040,000 dots)

 

  • নিকন ডি3400 (Nikon D3400):

নিকন ডি3400 (Nikon D3400)

সূত্র :- images-na.ssl-images-amazon . com

নিকন ডি3400 (Nikon D3400)

টাইপ (Type)

ডিএসএলআর (DSLR)

সেন্সর (Sensor)

এপিএস- সি সিএমওএস (APS-C CMOS)

লেন্স (Lens)

ক্যানন এএফ- এস (Canon EF-S)
গতি (speed)

ফাইভ এফপিএস (5fps)

ভিডিও রেজ্যুলেশন (video resolution)

১০৮০পি ফুল এইচডি 1080p (Full HD)
অটোফোকাস (Autofocus)

১১ পয়েন্ট এএফ (11-point AF)

মেগাপিক্সেল ( Megapixels)

২৪.২ মেগাপিক্সেল (24.2MP)
ইউজার লেভেল (User level)

Beginner

 

স্ক্রিন টাইপ (Screen type)

৩ ইঞ্চ (3.0-inch, 921,000 dots)

আগামি দিনেও আশা করি আরও ভালো ফিচারস নিয়ে হাজির হবে ডিএসএলআর ক্যামেরাগুলি। বছরের সেরা বছরের সেরা ডিএসএলআর ক্যামেরা (DSLR camera) তালিকা যেকোনো একটি ক্যামেরা চয়েস করে কিনে নিতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here