আইডিবিআই ঋণের ইএমআই স্থগিত রাখার শর্তাবলী

idbi

idbi

রিজার্ভ ব্যাংকের নির্দেশ অনুযায়ী গত ২৭ শে মার্চ থেকে সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক তাদের ঋণের উপর ঋণগ্রহীতাদের ইএমআই স্থগিত রেখেছে। ঋণগ্রহীতাদের মাসিক কিস্তি তিন মাসের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। আরবিআই নির্দেশ দিয়েছে ঋণগ্রহীতাদের বাড়তি তিনমাসের সময় দেওয়ার জন্য। এই ঋণের মধ্যে বাড়ি, গাড়ি, ব্যক্তিগত লোণের পাশাপাশি ডেবিড কার্ডের ইএমআই এবং ক্রেডিট কার্ডের বকেয়াও অন্তর্ভুক্ত। নির্দেশ অনুযায়ী আইডিবিআই তার গ্রাহকদের এই সুবিধা প্রদান করেছে। তবে কিছু শর্তাবলী  রেখেছে। নীচে আইডিবিআই ঋণের ইএমআই স্থগিত রাখার বিশদ দেওয়া হল-

আরও পড়ুন । আইসিআইসিআই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাংকিং পরিষেবা চালু করেছে

ঋণের ইএমআই স্থগিত রাখার শর্তাবলী

  • যেহেতু ২০২০ সালের ১ মার্চ থেকে ৩১ শে মার্চ অবধি এই তিন মাসের সুদ স্থগিত। তাই এই তিন মাসের জমা সুদের টাকা ঋণের অসামান্য অংশের উপর জমা হবে। অর্থাৎ স্থগিতের সময়কালে জমা হওয়া সুদ স্থগিতের শেষের পরে বকেয়া ঋণের পরিমাণে যুক্ত হবে এবং এই পরিশোধের সময়সূচী পুনরায় খারিজ করা হবে।
  • যেহেতু ১ মার্চ থেকে ৩১ শে মার্চ অবধি তিন মাসের সুদ স্থগিত রাখা হয়েছে, তাই তার আগে বকেয়া থাকলে তা ২৯ শে ফেব্রুয়ারী বা তার আগে তার কিস্তি / অন্যান্য অর্থের অতিরিক্ত পরিশোধ করতে হবে। ২০২০ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত বকেয়া অর্থ পরিশোধ না করলে ফলশ্রুতিতে ২০২০ এপ্রিলের মধ্যে অ্যাকাউন্টের গ্রেডেশন হতে পারে।

আরও পড়ুন । ব্যাংক অফ বরোদা ঋণের হার ৭৫ বিপিএস কমিয়ে ৭.২৫ শতাংশ করেছে

  • যদি ঋণগ্রহীতা ইএমআই পেমেন্ট চালিয়ে যেতে চায় তাহলে  [email protected] এ ১৫ এপ্রিল, ২০২০ এর মধ্যে ইমেল করতে হবে। ইমেলে নিজের নাম, একাউন্ট নাম্বার এবং ইমেলে  উল্লেখ করতে হবে যে “আমি ব্যাঙ্কের দেওয়া কিস্তি মোরটরিয়াম সুবিধা থেকে বেরিয়ে আসতে চাই “।
  • গিতকালীন ত্রাণের সাথে মঞ্জুর করা অ্যাকাউন্টের জন্য ব্যাংক স্থগিত সময়ে দেরিতে অর্থ প্রদান বা অতিরিক্ত সুদের কোনও চার্জ আদায় করবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here