দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফিঃ দীপিকা পাডুকোনের সফলতার কাহিনী

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি (BIOGRAPHY)

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি (BIOGRAPHY)

সূত্র :- raikfcquaxqncofqfm.stackpathdns . com

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি (BIOGRAPHY)

পুরো নাম

দীপিকা পাডুকোন

পেশা

অভিনেত্রী

শিক্ষাগত যোগ্যতা

স্নাতক

জন্ম তারিখ

১৯৮৬ সালে ৫ ই জানুয়ারি

জন্ম স্থান

কোপেনহেগেন ডেনমার্কে

বয়স

৩৩ বছর

বাবার নাম

প্রকাশ পাডুকোন

মায়ের নাম

উজ্জালা পাডুকোন

বোনের নাম

অনিশা পাডুকোন

স্বামীর নাম (Husband)

রণবীর সিং

জাতীয়তা

ভারতীয়

প্রিয় অভিনেতা

আমিতাভ বচ্চন, আমির খান, শাহরুখ খান

প্রিয় অভিনেত্রী

হেমা মালিনী, শ্রীদেবী, মাধুরী দীক্ষিত কাজল

প্রিয় খাবার

পাস্তা, বিরিয়ানি, ভারতীয় খাবার, চকলেট

প্রিয় রং

সাদা

শখ

নাচ, পড়া, খেলা, ব্যাডমিন্টন, রান্না করা

বলিউড ইন্ডাস্ট্রি অভিনেত্রীদের মধ্যে এক নম্বর স্থানে রয়েছেন দীপিকা পাডুকোন। বিশ্বের সমস্ত নায়িকাদের মধ্যে সবচেয়ে ক্ষমতাশীল নায়িকা হলেন দীপিকা পাডুকোন। তিনি বলিউডের অন্যতম সেরা সিনেমাগুলিতে অভিনয় করছেন এবং প্রচুর খ্যাতিও অর্জন করছেন তার জীবনে। অভিনয় ছাড়াও লাইভ লাফ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়াও নিজের পোশাকে নকশা তৈরি করছেন নিজে এবং খুব ভালো ব্যাডমিন্টন। নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন আজ আমরা কার সম্পর্কে কথা বলব। আজ আমারা বিখ্যাত অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি কথা আপনাদের জানাব। তাহলে আসুন তার জীবনের সফলতার কাহিনী জেনে নিই।

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – শৈশব জীবনীঃ

সূত্র :- akm-img-a-in.tosshub . com

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – শৈশব জীবনীঃ

দীপিকা পাডুকোন ১৯৮৬ সালে ৫ ই জানুয়ারি কোপেনহেগেন ডেনমার্কে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার ছিলেন প্রকাশ পাডুকোন যিনি একজন বিখ্যাত ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। দীপিকা পাডুকনের একটি ছোট বোন রয়েছে অনিশা, যিনি একজন পেশাদার গল্ফার।

দীপিকা যখন এক বছর ছিলেন, তখন তার পরিবার ভারতে চলে আসেন এবং ব্যাঙ্গালোরে থাকতে শুরু করে। তিনি ব্যাঙ্গালোরে সোফিয়া হাই স্কুল থেকে পড়াশুনো করেছিলেন এবং মাউন্ট কর্মেল কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করে।

ছোটবেলা থেকে অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোনের স্বপ্ন ছিল বাবার মতো ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়ন হওয়ার। পরে তিনি কিংফিশার ক্যালেন্ডারের জন্য মডেলিং করেছিলেন এবং পরে বেশ কয়েকটি মুভি তিনি স্বাক্ষর করেন এবং বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হয়ে উঠেছেন।

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – ক্যারিয়ার জীবনঃ

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – ক্যারিয়ার জীবনঃ

কিংফিশার ক্যালেন্ডারে মডেলিং করার পর হিমেশ রেশম্মিয়ার “নাম হ্যায় তেরা” মিউজিক ভিডিওতে তাকে দেখা যায়। তারপর খুব শ্রীঘরই তিনি ফিল্মের অফার পান। অভিনয় জগতে প্রবেশ করার জন্য সে অনুপম খের চলচ্চিত্র একাডেমিতে অভিনয় শেখার জন্য যোগদান করে।

২০০৬ সালে কানাডা সিনেমায় ঐশ্বরিয়ার রাইয়ের সঙ্গে কাজ করেন। এটি ছিল তার প্রথম সিনেমা এদিকে তিনি হিন্দি বলিউডের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ফারহ খানের সঙ্গে “হ্যাপি নিউ ইয়ার” সিনেমার জন্য চুক্তি করেন। ২০০৭ সালে তাকে শাহরুখ খানের বিপরীতে “ওম শান্তি ওম” মুভিতে দেখা যায়। বক্স অফিসে এই মুভিটি অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছিল। এবং সে বছরের সর্বোচ্চ উপার্জনকারী চলচ্চিত্র হিসাবে পরিচিত। এই সিনেমাটির পর দীপিকা পাডুকোন প্রচুর প্রশংসা অর্জন করেছিল। এই সিনেমাটির জন্য তিনি ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার পান।

“ওম শান্তি ওম” সিনেমায় সাফল্য অর্জনের পর অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোনের কাছে একের পর এক ফিল্মের অফার আসে। ২০০৮ সালে যশরাজ প্রোডাকশন এর মুভি “বাছনা এ হাসিনো” রনবীর কাপুরের বিপরীতে মুখ্য ভুমিকায় তাকে দেখা যায়। এছাড়াও মুভিতে উপস্থিত ছিলেন বিপাশা বসু এবং মনিশা লাম্বা। এই ফিল্মটিও বক্স অফিসে ভালো সাফল্যে লাভ করেছিল।

তার পরবর্তী সিনেমা “চাঁদনী চক টু চায়না” বিপরীত ভুমিকায় ছিলেন অক্ষয় কুমার। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত সিনেমাটি ফ্লপ হয়েছিল। তবে ২০০৯ সালে সাইফ আলি খানের বিপরীতে একটি রোমান্টিক মুভি করেন “লাভ আজ কাল” যা বক্স অফিসে আবার ভালো সাফল্যে অর্জন করে। এই সিনেমাটির জন্য তিনি ফিল্মফেয়ারে দ্বিতীয় বারের জন্য আবার পুরস্কার পান। সেই সময়টা রীতিমত তিনি একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী হিসাবে খ্যাতি লাভ করে ফেলেছিলেন।

২০১০ সালে এর তার প্রথম চলচ্চিত্র, থ্রিলার কার্তিককে অভিনয় করেছিলেন ফারহান আখতারের সহ-অভিনেতা, বাণিজ্যিকভাবে ভাল কাজ করেননি। তার পরবর্তী ছবি, সাজিদ খান এর হাউসফুল, একটি বিস্ময়কর আঘাত ছিল। আবারো দীপিকা আবার অক্ষয় কুমারের বিপরীতে ঢুকে পড়েছিলেন, দারুণ মৃতদেহ দেখেছিলেন এবং অবশেষে তার সমালোচক তার অভিনয় ক্ষমতা স্বীকার করেছিলেন। লফাঙ্গে পারিন্দে, ইমরান খানের বিপরীতে নীল নিতিন মুকেশ এবং ব্রেক কে বাডের বিপরীতে অভিনয়ের জন্য তার প্রশংসা করা হয়েছিল। উভয় ছবি মাঝারি সফল হয়েছে। ২০১২ সালের মুক্তিযুদ্ধের আশুতোষ গোয়ারিকরের খেলে হুম জি জান সে, একটি সময়ের নাটক ছিল, বাণিজ্যিক দুর্যোগ ছিল যদিও দীপিকা অভিষেক বাচ্চনের সাথে জুটিবদ্ধ হয়েছিলেন।

২০১১ সালে, একই আইটেমের সিনেমাটির তার আইটেম নাম ডুম মারো ডুম তাকে তার প্রস্তাবিত নৃত্যের প্যাচসমূহের জন্য কিছুটা ফাঁক দিয়েছিল, কিন্তু তার চলচ্চিত্র আর্কষণ, সহ অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন এবং সাইফ আলী খান, তার অভিনয় অভিনয়ের জন্য তার প্রশংসা করেছিলেন। ২0১২ সালে, তিনি দেশী বয়জে অক্ষয় কুমার এবং জন আব্রাহামের সাথে অভিনয় করেছিলেন।

তার বাঁকানো বিন্দু হকী আদাজানিয়া পরিচালিত চলচ্চিত্র ককটেলের সাথে এসেছিল। চরিত্রে অভিনয় করেছেন এমন কয়েকটি ছবিতে তিনি হলেন রেস ২, ইয়ে জাওয়ানী হ্যায় দেওয়ানি, চেন্নাই এক্সপ্রেস, গোলিয়েন কি রাসলিরা রাম-লীলা, পিকু, বাজিরাও মাস্তানী এবং পদ্মাবাত।

হলিউডের তার প্রথম প্রজেক্টটি হল এক্সএক্সএক্স: দ্য রিটার্ন অফ এক্সান্ডার কেজ, যেখানে সে মহিলা ভিন ডিজেলের বিপরীতে মহিলা লিড করেছে।

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – পুরস্কারঃ

সূত্র :- topplanetinfo . com

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – পুরস্কারঃ

ওম শান্তি ওম (২০০৭), এবং গোলিয়ান কি রাসলি রাম-লীলা (২০১৩) এবং পিকু (২০১৫) এর জন্য দুটি সেরা অভিনেত্রী পুরস্কার পেয়েছেন শ্রেষ্ঠ মহিলা অভিনেত্রী। এ ছাড়া, তিনি বছরের বিনোদন (২0১৪), এম বক্স অফিস ইন্ডিয়া (২0১৪), নারী অব দি ইয়ার (২0১৫) এর মতো কয়েকটি পুরষ্কার পেয়েছেন।

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – ব্যক্তিগত জীবনঃ

সূত্র :- img.timesnownews . com

দীপিকা পাডুকোন বায়োগ্রাফি – ব্যক্তিগত জীবনঃ

রণবীর কাপুরের সঙ্গে বছর দীপিকা পাডূকোনের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু এক বছরের মধ্যে সেই সম্পর্ক বিচ্ছেদ হয়ে যায় । পরবর্তীকালে অভিনেতা রণভীর সিংয়ের তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে আব্দধ হন এবং শেষ পর্যন্ত তা বাগদানে পরিণত হয়।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ 

প্রঃ দীপিকা পাডুকোনের প্রথম সিনেমা কি?

উঃ ওম শান্তি ওম।

প্রঃ দীপিকা পাডুকোনের জন্মদিন কবে?

উঃ ৫ ই জানুয়ারি।

প্রঃ দীপিকা পাডুকোনের রনবীর কাপুরের সঙ্গে বিচ্ছেদ কেন হয়?

উঃ ব্যক্তিগত কারণে তাদের বিচ্ছেদ হয়।

প্রঃ দীপিকা পাডুকোনের আয় কত?

উঃ বার্ষিক ১৪ কোটি টাকা।

প্রঃ দীপিকা পাডুকোন কোন স্কুলে পড়াশুনো করেন?

উঃ ব্যাঙ্গালোরে সোফিয়া হাই স্কুল।

প্রঃ দীপিকা পাডুকোনের উচ্চতা কত?

উঃ ৫ ফুট ৮ ইঞ্চ

প্রঃ দীপিকা পাডুকোনের ওজন কত?

উঃ দীপিকা পাডুকোনের ওজন ৫৫ কেজি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here