Covid19-হিউম্যান ট্রায়ালে ছাড়পত্র পেল আরেক দেশীয় সংস্থা

Corona Vaccine 1

Corona Vaccineমারণ করোনা ভাইরাসের জেরে গোটা বিশ্বের অর্থব্যবস্থা অচল হয়ে পড়েছে । মহামারির জেরে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা ।

ভাইরাসের প্রতিষেধক দ্রুত আবিষ্কার না হলে সামনে আরো বড়ো বিপদ ঘনিয়ে আসছে মানব সভ্যতার দিকে । বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশই উঠে পড়ে লেগেছে কোভিড-১৯-এর প্রতিষেধক আবিষ্কারের লক্ষ্যে ।

আরও পড়ুন :বায়োএনটেক (BioNTech)। ভারতে কোভিড ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক ইতিবাচক ফলাফল

এবার করোনা রোধে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল ভারত । বায়োটেকের পর এবার আরেকটি ভারতীয় সংস্থা প্রস্তুত করল করোনার টিকা ! সেই ভ্যাকসিনই মানবদেহে ট্রায়ালের ছাড়পত্র দিল কেন্দ্রিয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক ।

দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিরোধীদের কটাক্ষ মন্তব্যে এই মুহূর্তে কর্ণপাত করতে নারাজ কেন্দ্র । করোনা রোধে একেবারে কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে মোদি সরকার ।

আরও পড়ুন : ভারতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ ছাড়িয়েছে। ৫ দিনে আরও যোগ হয়েছে ১ লক্ষ

বিভিন্ন রাজ্যের একাধিক প্রতিষ্ঠান মারণ ভাইরাস রোধে লাগাতার কাজ করে চলেছে । এমনকি ভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের প্রতিযোগিতা থেকে বাদ পড়েনি আয়ুর্বেদিক ওষুধও ।

গত মাসে ভারত বায়োটেকের ‘কোভ্যাক্সিন’ আবিষ্কারের পর এবার আরেকটি ভারতীয় সংস্থা আশার আলো দেখাল । করোনার টিকা প্রস্তুত করল দেশের সবচেয়ে বড় ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ‘জাইডাস ক্যাডিলা’ । তাদের আবিষ্কৃত টিকাই ভারতে হিউম্যান ট্রায়ালের অনুমোদন পাওয়া দ্বিতীয় ভ্যাকসিন ।

মোট দু দফায় পরীক্ষা চালাবে বলে জানা যায় ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারকারী সংস্থা জাইডাস ক্যাডিলা ।  সম্প্রতি ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া বা DCGI এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে এই সংস্থা মানবদেহে টিকা পরীক্ষার ছাড়পত্র পেয়েছে।

আরও পড়ুন : র‍্যাশ থেকে মুক্তির উপায়: গরমে র‍্যাশ থেকে মুক্তির উপায়

করোনা রোধে ভ্যাকসিন প্রস্তুতিতে দিন রাত এক করে কাজ করে চলেছেন বিশ্বের তাবড় তাবড় বিজ্ঞানীরা । ফলে মারণ ভাইরাসের টিকা আবিষ্কার করা রীতিমতো প্রতিযোগিতার সৃষ্টি করেছে বিশেষজ্ঞদের মধ্যে ।

কে কার আগে টিকা আবিষ্কার করে সফল হবে? কোন দেশের মাথায় উঠবে সেরার শিরোপা ? তাই নিয়ে যখন উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে , ঠিক তখন সেই লড়াইতে নাম লিখিয়েছে ভারতও । ইতিমধ্যেই জুন মাসে ভারত বায়োটেক ও ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি মিলে প্রস্তুত করেছে করোনার টিকা ।

৭ জুলাই থেকে শুরু হবে সেই টিকার ট্রায়াল । সুত্রের খবর, ১৫ আগস্ট থেকে তা বাজারেও চলে আসবে বলে জানা যায় । তবে এই দুটি ভারতীয় সংস্থা ছাড়াও ভারতের প্রায় ৩০টি গ্রুপ করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করছে বলে জানিয়েছিল কেন্দ্র । তবে কোন ভ্যাকসিন মানব শরীরে গিয়ে দ্রুত করোনা রোধ করবে তা জানার আমাদের এখনো বেস খানিকটা অপেক্ষা করতেই হবে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here