পার্লারে গিয়ে টাকা খরচ না করে বাড়িতে বসেই ঘরোয়া উপাদানে করে নিন ব্লিচ

skin

skin

অনেকেই ব্লিচ করতে ভালোবাসেন। কারণ ব্লিচ করার পর আমাদের স্কিনের রঙ উজ্জ্বল দেখায় এবং ফর্সা। তবে অকেনেই এটা জানে ব্লিচ করলে মুখ পুড়ে যাওয়ার ভয় থাকে। হ্যাঁ কথাটা কিন্তু একেবারে এড়িয়ে যাওয়া যায় না। আমরা পার্লারে মুখে ব্লিচ করি তাতে প্রচুর পরিমাণে ক্ষতিকারক উপাদান থাকে। এতে আমাদের ত্বকের ক্ষতি হওয়ার ভয় থাকে। তবে আপনি যদি ঘরোয়া পদ্ধতিতে বাড়ি বসে ব্লিচ করেন তাহলে আপনার ত্বকে ক্ষতি হওয়ার ভয় থাকবে না বরং ত্বক থাকবে সুস্থ এবং উজ্জ্বল।

এখানে বাড়িতে বসে ঘরোয়া উপাদানে ব্লিচ করার কিছু টিপস দেওয়া হল দেখে নিনি –

  • শসা ও লেবুর  রস দিয়ে ব্লিচ (Bleach with cucumber and lemon juice)

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে দুই টেবিল চামচ শসার রস এবং আড়াই টেবিল চামচ লেবুর রস একসাথে মিসিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি ৫ মিনিট হালকাভাবে মুখে মাসাজ করে পরিষ্কার করে নিন।

আরও পড়ুন । শসার পুষ্টিগুণ : শসার গুণাগুণ জানলে অবাক হবেন

  • মধু দিয়ে ব্লিচ (Bleach with honey)

মধু আমাদের ত্বকের জন্য খুবই ভালো। ত্বক খুব জলদি গ্লো করে তোলে। মধু ব্লিচের ভালো কাজ করে। মধু দিয়ে ব্লিচ করার জন্য সমপরিমাণ মধু, মিল্ক পাউডার, লেবুর রস, আমন্ড অয়েল একটি পাত্রে একসঙ্গে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই পেস্টটি মুখে লাগিয়ে নিন। ১৫  মিনিট বাদে ঠাণ্ডা জলে পরিষ্কার করে নেবেন। এটি আপনার ত্বক তরতাজা রাখতে সহায়তা করবে।

  • ভেজ ব্লিচ (Veg bleach)

ভেজ ব্লিচ হল ভেজিটেবিল ব্লিচ। বাড়ির কিছু সবজি দিয়ে আপনি ত্বকে ব্লিচ করে নিতে পারেন। এই সবজির ব্লিচ আপনার ত্বকের সতেজ রাখবে। এক চামচ শসা, আলু ও টমেটো রস নিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার এই পেস্টটি ১০-১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলার আগে হালকা ভাবে ঘষে নেবেন।

আরও পড়ুন ।  সৌন্দর্যচর্চায় পাকা টমেটোর উপকারিতা জানলে আশ্চর্য হয়ে যাবেন

  • বেসন দিয়ে ব্লিচ (Bleach with besan)

সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন বেসন দিয়ে ব্লিচ করলে ত্বক উজ্জ্বল হয়। বেসনের ব্লিচের জন্য আপনাকে নিতে হবে ২ চামচ বেসন এবং পরিমাণ মতো গোলাপ জল। এবার এই দুটি উপাদান দিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্টটি মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নেবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here