এটিএম কার্ড সম্পর্কিত কিছু তথ্য আপনার জানা উচিত

এটিএম কার্ড

এটিএম কার্ড

সূত্র :- blog.malwarebytes . com

এটিএম কার্ড আমরা সবাই ব্যবহার করি নিজেদের সুবিধার জন্য। ডিজিটাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দুনিয়ায় এটিএম কার্ডের ব্যবহার বাড়ছে। এটিএম কার্ড হওয়ার পর থেকে মানুষের জীবনযাত্রা আরও সহজতর হয়ে উঠছে। লোকজন এখন সহজেই যেকোনো সময় এটিএম কার্ডের মাধ্যমে টাকা তুলতে পারছে, নিজের ব্যালেন্স চেক করতে পারছে। তার জন্য ব্যাংকেও যেতে হচ্ছে না। শুধু তাই নয় বরং এই কার্ডের মাধ্যমে যখন তখন কেনাকাটা সম্ভব হচ্ছে। তবে আমরা এটিএম কার্ড ব্যবহার করি ঠিকিই কিন্তু সাবধানতা সম্পর্কে সচেতন হই না। এটিএম ব্যবহার যেমন সুবিধাজনক ঠিক তেমনি এর ঝুঁকিও কিছু কম নয়। একটু সামান্য অসাবধানতা হলেই আপনার ব্যাংক ব্যালেন্স সমস্ত কিছু হারিয়ে ফেলতে পারেন।

আজকের এই নিবন্ধে আমরা আপনাদের জানাব এটিএম সুবিধা, অসুবিধা, SBI অনলাইনে এটিএম এর আবেদনের তথ্য এবং এটিএম কার্ড হারিয়ে গেলে কি করা উচিত। এই সমস্ত তথ্য আপনাদের সকলের জেনে রাখা উচিত এটিএম কার্ড ব্যবহার করার আগে।

এটিএম সম্পর্কিত কয়েকটি তথ্যঃ

এটিএম কার্ডের সুবিধা কি?

এটিএম কার্ডের সুবিধা কি

সূত্র :- stannecreditunion . com

  • এটিএম কার্ডের মাধ্যমে আপনি যখন তখন খুব দ্রুত টাকা তুলতে পারবেন। ২৪ ঘণ্টা যেহেতু এটিএম মেশিন খোলা থাকে তাই আমাদের যখন ইচ্ছা আমরা টাকা তুলে নিতে পারি। আগে ব্যাংকে গিয়ে টাকা তুলতে হতো যার দরুন আমাদের অনেক ঝুট ঝামেলার মধ্যে পড়তে হতো। তাই বর্তমানে এখন এটিএম কার্ডের চল আসায় এই ঝামেলা থেকে আমরা মুক্তি পেয়েছি।
  • আপনার এটিএম কার্ড ব্যবহার করে আপনি এখন আপনার ক্রেডিট কার্ড বিল, পে ট্যাক্স, মোবাইল ফোন চার্জ ইত্যাদির অর্থ প্রদান করতে পারেন।
  • আপনি এটিএম কার্ডের মাধ্যমে আপনার একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে পারেন। এছাড়াও আপনার ব্যাংক একাউন্টের একটি ছোট স্টেটমেন্ট পাওয়ার সুবিধা রয়েছে।
  • এটিএম কার্ড ভ্রমণকারীদের জন্য খুব উপকারি। এখন ভ্রমণের জন্য ভ্রমণকারীদের সঙ্গে করে বেশি অর্থ নিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। তারা এটিএমের মাধ্যমে যেকোনো জায়গা থেকে নগদ টাকা তুলে নিতে পারে।
  • এটিএম কার্ড শুরু হওয়ার পর থেকে ঝুঁকি অনেকটা কমেছে, কারণ আপনাকে সবসময়ের জন্য নগদ অর্থ এবং চেকবুক নিয়ে ঘুরতে হবে না। যার ফলে নগদ অর্থ হারিয়ে যাওয়ার ভয় থাকে না।
  • কেনাকাটার ক্ষেত্রে এটিএম কার্ডে একটি সুবিধা হল খরচ সাধ্যের বাইরে যায় না, কারণ আপনার ব্যাংকে যতটা পরিমাণ অর্থ থাকবে তার বাইরে গিয়ে কেনাকাটা করতে পারবেন না.

এটিএম কার্ডের অসুবিধা কি?

এটিএম কার্ডের অসুবিধা কি

সূত্র :- care2save . co . uk

  • এটিএম কার্ড চুরি বা হারিয়ে গেলে ঝুঁকি থাকে। কারণ কারো হাতের নাগালে এলে সে এটির অপব্যবহার করতে পারে।
  • এটিএম কার্ডের পিন নাম্বার কেউ জেনে গেলে আপনার ব্যাংকে সমস্ত সঞ্চয় হারাতে পারেন।
  • অনলাইনে শপিং করার সময় আমরা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করি। একটু অসাবধানতার কারণে জালিয়াতি হওয়ার ভয় থাকে।
  • এটিএম কার্ড ব্যবহার করার একটি সময়সীমা রয়েছে। সেই সময়সীমার বাইরে ব্যবহার করলে চার্জ প্রদান করতে হয়।
  • যখন আপনি ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে এটিএম কার্ড থেকে টাকা বের করেন তখন অনেক সময় দেখা যায় সমস্যা থাকার জন্য এটিএম থেকে টাকা বেরায় না কিন্তু আপনার ব্যাংকের থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়। এটিএম ব্যবহার করার এটি একটি সমস্যা। তাই এই ধরণের অসুবিধা পড়লে আপনার দ্রুত ব্যাংকে যোগাযোগ করতে হবে।
  • ব্যাংক থেকে আপনি এক দিনে এক লাখ টাকা তুলতে পারবেন। কিন্তু এটিএম কার্ডে ৪০ হাজার টাকার বেশি এক দিনে তোলা যায় না। একইভাবে ক্যাশ ডিপোজিটেরও সুবিধাও সীমাবদ্ধ।

তাহলে এটিএম কার্ডে ব্যবহারের সুবিধা এবং অসুবিধা আমরা জানতে পারলাম তাহলে এবার জেনে নিই SBI অনলাইনে এটিএম কার্ডের জন্য কীভাবে আবেদন করতে হয় এবং এটিএম কার্ড হারিয়ে গেলে আমাদের করনীয় কি?

অনলাইনে এটিএম কার্ডের জন্য আবেদন কীভাবে করব?

অনলাইনে এটিএম কার্ডের জন্য আবেদন কীভাবে করব

সূত্র :- thinkplandoact . in

আপনার যদি SBI অনলাইন একাউন্ট থাকে, তাহলে আপনি ব্যাংকে না গিয়ে বাড়ি বসেই এটিএম কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। অনলাইনে এটিএম কার্ডের জন্য কীভাবে আবেদন করবেন তা নীচে দেওয়া হল –

  • onlinesbi.com যান।
  • SBI নেট ব্যাংকিং পোর্টালে গিয়ে লগ ইন করুন। ইউজার নাম এবং পাসওয়ার্ড বিবরণ দিন।
  • e-Services অপশনটি সিলেক্ট করুন।
  • ATM card services অপশনে ক্লিক করুন।
  • ক্লিক করার পর একটি নতুন পেজ দেখতে পারবেন। Request ATM/debit card অপশনে ক্লিক করুন।
  • এরপর স্কিনে দুটি অপশন দেখতে পাবেন। একটি Using one time password (OTP) এবং আরেকটি Using profile password। এর মধ্যে আপনি যেকোনো একটি অপশন বেছে নিতে পারেন।
  • আপনি যদি one time password বাছাই করেন। তাহলে আপনি আপনার নিবন্ধিত মোবাইল নম্বরে একটি ম্যাসেজ পাবেন।
  • one time password লিখুন এবং Submit অপশনে ক্লিক করুন।
  • আপনার স্কিনে প্রাইমারী এবং সেকেন্ডারি অপশনের অধীনে আপনার একাউন্ট পরবর্তী পৃষ্ঠায় দেখাবে।
  • আপনি যে কার্ডটি ইস্যু করতে চান তা সিলেক্ট করুন।
  • আপনি যে কার্ডটি মুদ্রণ করতে চান তা লিখুন।
  • কার্ড টাইপ বেছে নিন।
  • শর্তাবলী Accept করুন। এবং submit অপশনে ক্লিক করুন।
  • একটি নতুন পেজ দেখতে পাবেন। সমস্ত তথ্য যাচাই করুন এবং submit অপশনে ক্লিক করুন।
  • এরপ্র আপনার স্কিনে একটি ম্যাসেজ পাবেন আপনার কার্ডের জন্য আবেদন রেকর্ড করা হয়েছে।
  • এরপর ৭-৮ দিনের মধ্যে আপনার কার্ড পেয়ে যাবেন।

এটিএম কার্ড হারিয়ে বা চুরি হয়ে গেলে কি করা উচিত?

এটিএম কার্ড হারিয়ে বা চুরি হয়ে গেলে কি করা উচিত

যদি আপনার এটিএম কার্ড হারিয়ে বা চুরি হয়ে যায় তাহলে আপনি যা করবেন তা হল –

  • যখন আপনি জানতে পারবেন আপনার এটিএম কার্ড হারিয়ে বা চুরি হয়ে গেছে সেই মুহূর্তেই আপনি ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন এবং আপনার কার্ডটি বন্ধ করে দিন। আপনার ডেবিট কার্ডের হেল্প লাইন নাম্বারে কল করুন এবং কার্ডটি বাতিল করে দিন। আপনি আপনার এটিএম কার্ডটি অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমেও বন্ধ করতে পারবেন।
  • ডেবিট কার্ড হারিয়ে গেলে শুধু ব্যাংকেই নয় বরং পুলিশে A FIR রিপোর্ট করুন। এই রিপোর্টের মাধ্যমে আপনি ব্যাংকে নতুন কার্ডের জন্য ইস্যু করতে পারবেন।

আশাকরি আপনি এটিএম কার্ড সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য পেয়ে গেছেন। প্রত্যেকের একটু সচেতন হয়ে এটিএম কার্ড ব্যবহার করা উচিত।

সারকথাঃ

এটিএম কার্ড ব্যবহার করা যেমন সুবিধা ঠিক তেমন বিপদজনক।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য প্রশ্ন উত্তরঃ

প্রঃ নতুন এটিএম কার্ড করলে কতদিনের মধ্যে পাওয়া যাবে?

উঃ নতুন এটিএম কার্ড ৬-৭ দিনের মধ্যে পাওয়া যায়।

উঃ এটিএম কার্ড চুরি হয়ে গেলে কি করব?

উঃ এটিএম কার্ড চুরি হয়ে গেলে সাথে সাথে ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করে কার্ডটি বন্ধ করে দিন এবং অবশ্যই পুলিশে রিপোর্ট করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here