৪৯ মিলিয়ন ভিডিও ডিলিট করলো টিকটক

৪৯ মিলিয়ন ভিডিও ডিলিট করলো টিকটক

৪৯ মিলিয়ন ভিডিও ডিলিট করলো টিকটক

নির্দেশিকা অমান্য করায় টিকটক অ্যাপ মুছে দিল প্রায় ৪৯ মিলিয়ন ভিডিও। বৃহস্পতিবার এই তথ্য তারা জানায়। ২০১৯ সালের শেষের দিকে তারা ডিলিট করে সেসব ভিডিও। তাদের মতে অ্যাপের নিয়ম না মানায় এই ব্যবস্থা।

আরো পড়ুন। এবার আমেরিকাতে ব্যান হতে চলেছে টিকটক সহ একাধিক চিনা অ্যাপ

তবে এটা জানলে অবাক হবেক এই ভিডিওর সংখ্যা টিকটকের মোট ভিডিওর সংখ্যার মাত্র ১%। এই ভিডিওগুলিতে ‘হিংসার ছবি, বিদ্বেষমূলক বার্তা ও নগ্নতা’ ছিল। তাই এই ভিডিওগুলি মুছে দেওয়া হয়েছে। ডিলিট করা ভিডিও গুলোর মধ্যে এক-তৃতীয়াংশ রয়েছে ভারত থেকে। এরপর রয়েছে আমেরিকা ও পাকিস্তান।

আরো পড়ুন। হংকং থেকে বিদায় নিতে চলেছে টিকটক অ্যাপ

গত ৩০শে জুন থেকে টিকটক সহ ৫৯তি অ্যাপ বন্ধ করে দেয় কেন্দ্র। এই অ্যাপগুলি এখন গুগুল ষ্টোর বা প্লে ষ্টোর কোথাও আর নেই। এমনকি যাদের ফোনে ডাউনলোড ছিল তাদের ফোনেও আর কাজ করছে না এবং ডেস্কটপেও কাজ করছে না।

আরো পড়ুন। টিকটকের বিকল্প ভারতীয় অ্যাপ চিংগারি ডাউনলোড ১০ মিলিয়ন পেরিয়েছে

টিকটক বাতিল হয়ে যাওয়ায় ভারতে টিকটক সংস্থায় কাজ করা প্রায় কয়েক হাজার কর্মীর কাজ চলে যাওয়ার অবস্থায় এসেছে।

আরো পড়ুন। টিকটক অ্যাপ সহ ৫৯ চীনা অ্যাপস নিষিদ্ধ করল ভারত সরকার

১ জুলাই কোম্পানির ওয়েবসাইটে কর্মীদের উদ্দেশ্যে টিকটকের সিইও ও বাইট ডান্সের চিফ অপারেশনস অফিসারে কেভিন মায়ের বলেন, “২০১৮ সাল থেকে কঠিন পরিশ্রমের ফলে ভারতে ২০০ মিলিয়ন ইউজার আমাদের। তাঁরা টিকটকে নিজেদের প্রতিভার বিচ্ছুরণ ঘটান। তাঁদের অভিজ্ঞতার কথা সবার সঙ্গে ভাগ করে নেন। আমাদের কর্মীরাই আমাদের সবথেকে বড় শক্তি। তাই তাঁদের ভাল থাকা আমাদের প্রধান কর্তব্য। আমরা ভারতে থাকা আমাদের ২০০০-এর বেশি কর্মীকে বলতে চাই, তাঁদের সুযোগ ও ফের আগের পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য ১০০ শতাংশ চেষ্টা করছি আমরা।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here